Bengal Line

Result: 1- 17 out of 20 Bangla Articles Found
ভারতমাতা কি জয় বনাম ইনকিলাব জিন্দাবাদ

ভারতমাতা কি জয় বনাম ইনকিলাব জিন্দাবাদ

ইনকিলাব জিন্দাবাদ, হসরত মোহানির এই স্লোগান বংলায় ঢুকে পড়েছে বহুদিন আগে। কোনও সন্দেহ নেই বামপন্থীরাই জনপ্রিয় করেছে ভগত সিংদের এই স্লোগান।

ভক্তদের দাপট আসলে একনায়কের লাল কার্পেট, সাবধান করেছিলেন বাবাসাহেব

ভক্তদের দাপট আসলে একনায়কের লাল কার্পেট, সাবধান করেছিলেন বাবাসাহেব

ইন্দিরা গান্ধীর সময়ে গণতান্ত্রিক অধিকার হরণের বহু অভিযোগ উঠলেও, যে অভিযোগ ইন্দিরার বিরুদ্ধে কখনও ওঠেনি, এখন অবশ্য সেই অভিযোগও উঠছে।

দীনেশ বাজাজকে দাঁড় করিয়ে অযথা বদনামের ঝুঁকি নিল তৃণমূল

দীনেশ বাজাজকে দাঁড় করিয়ে অযথা বদনামের ঝুঁকি নিল তৃণমূল

ঘটনা হল, ১৯৯৮ থেকে ২০০৬ পর্যন্ত, মাঝে কয়েক বারের বিচ্ছেদ বাদ দিলে, তৃণমূল বিজেপির সঙ্গে ছিল। সেই সময়ে মমতা আরএসএসের সভায় গিয়ে তাদের দেশপ্রেমিকের তকমাও দিয়ে এসেছেন।

পুরভোটেই মিলবে বিধানসভার আভাস

পুরভোটেই মিলবে বিধানসভার আভাস

এখন চলছে ‘বাংলার গর্ব মমতা’ কর্মসূচি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেই নিজের নামে করা এই ‘বাংলার গর্ব মমতা’ কর্মসূচি উদ্বোধন করেছেন। আত্মপ্রচারে এ-ও এক নজির বিহীন কাজ।

প্রশ্ন-ফাঁস পরিকল্পিত চক্রান্ত, পালের গোদাদের খুঁজতে দায়িত্ব দেওয়া হোক গোয়েন্দাদের

প্রশ্ন-ফাঁস পরিকল্পিত চক্রান্ত, পালের গোদাদের খুঁজতে দায়িত্ব দেওয়া হোক গোয়েন্দাদের

তখন মোবাইল ফোনের এমন দাপট ছিল না। হোয়াটসঅ্যাপ জন্মায়নি। শেষের দিকে হোয়াটসঅ্যাপ জন্মালেও তখনও অ্যান্ড্রয়েড ফোন হাতঘড়ির থেকেও বেশি সহজলভ্য হয়ে ওঠেনি।

রাষ্ট্র এবং দেশদ্রোহিতা- জয়প্রকাশ নারায়ণ, ফার্নানডেজ থেকে বিদারের শিশুরা, শরজিল ইমাম

রাষ্ট্র এবং দেশদ্রোহিতা- জয়প্রকাশ নারায়ণ, ফার্নানডেজ থেকে বিদারের শিশুরা, শরজিল ইমাম

দেশদ্রোহিতা অপরাধের তালিকা আগে থাকত না। এই তালিকা প্রথম দেখা গেল ২০১৪ সালে। সে বছর ৪৭টি মামলা হয়েছিল এই অভিযোগে ১২৪-এ ধারায়। গ্রেফতার হয়েছিল ৫৮ জন।

রাজনীতিতে দলবদল: সোমনাথ চ্যাটার্জি থেকে বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়দের ভূমিকা

রাজনীতিতে দলবদল: সোমনাথ চ্যাটার্জি থেকে বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়দের ভূমিকা

একেকটা বিধানসভার ভোট হচ্ছে আর কুৎসিত ছবি দেখা যাচ্ছে, বাস বোঝাই বিধায়কদের মোবাইল ফোন কেড়ে নিয়ে হোটেল বন্দি করে রাখার।

হর্নশূন্য আইজল,  কলকাতা কি সপ্তাহে একটা দিনও হর্নশূন্য হতে পারে?

হর্নশূন্য আইজল,  কলকাতা কি সপ্তাহে একটা দিনও হর্নশূন্য হতে পারে?

২০১৬ তে এই নিয়ে মামলা হয় প্রায় ১৬ হাজার। অকারণে হর্ন বাজানোর জন্য আরো প্রায় ৬ হাজার। তাতে কি হর্ন বাজানোর কুঅভ্যাস কমেছে?

প্রজাতন্ত্র-৭০:  দলীয় সত্যের সঙ্গে মানবধর্মের মতো চিরসত্যের সংঘাত

প্রজাতন্ত্র-৭০: দলীয় সত্যের সঙ্গে মানবধর্মের মতো চিরসত্যের সংঘাত

আমাদের সামনে এখন দুই ধর্মের লড়াই। ধর্মান্ধতার রাজনীতি বনাম কর্তব্যবোধের ধর্ম। ধর্মান্ধতার রাজনীতি বনাম মানবধর্মের রাজনীতি।

শাহিনবাগের পক্ষে এবং ওমব্যাটদের প্রতি ভালোবাসায়

শাহিনবাগের পক্ষে এবং ওমব্যাটদের প্রতি ভালোবাসায়

ধনখড় সাহেব এক কঠিন লড়াইয়ে নেমেছেন। এই যে এতগুলো ফ্রন্টে ওঁর লড়াই, এ নজির বিহীন। মনে পড়ে যায় সুকুমার রায়ের জগাইয়ের কথা। ‘সাত জার্মান জগাই একা, তবুও জগাই লড়ে’।

বামপন্থা, সাম্য, বিবেকানন্দের ভাবনা এবং আজকের হিন্দুত্ববাদীরা

বামপন্থা, সাম্য, বিবেকানন্দের ভাবনা এবং আজকের হিন্দুত্ববাদীরা

ধর্মবিরোধী রুশ সমাজতন্ত্র বা পূর্ব ইওরোপের সমাজতন্ত্রের জন্ম ও মৃত্যু আমরা দেখেছি। সেই সব দেশে ধর্মের ফিরে আসাও দেখা গিয়েছে।

মাননীয় বিমানবাবু, এখনও সময় আছে, ধর্মঘট ছেড়ে অনশনে বসুন

মাননীয় বিমানবাবু, এখনও সময় আছে, ধর্মঘট ছেড়ে অনশনে বসুন

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একটা রাজ্যে যা করেছেন, আপনারা সারা দেশে তাই করেছেন, সর্বভারতীয় ক্ষেত্রে বিজেপিকে মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্য হয়ে উঠতে সাহায্য করেছেন।

বঙ্গ রাজনীতি থেকে ‘তরমুজ’ কি হারিয়ে গেল!

বঙ্গ রাজনীতি থেকে ‘তরমুজ’ কি হারিয়ে গেল!

সিপিএমের নেতৃত্বে ৩৪ বছরের বামফ্রন্টের শাসনে আর একটি শব্দও মুখে মুখে ঘুরত। এলসি। এই শব্দটি এখন এনডেঞ্জার্ড স্পিসিসের মত।

বিদ্বেষ-আদর্শ আর নতুন ভারত, এই লড়াই এখন মুখোমুখি

বিদ্বেষ-আদর্শ আর নতুন ভারত, এই লড়াই এখন মুখোমুখি

দেশে যদি নির্বাচন ব্যবস্থা টিকে থাকে, তাহলে একদিন না একদিন নতুন কোনও সরকার এসে এই আইন বাতিল করবেই। যেমন ইন্দিরা গান্ধীর তৈরি অগণতান্ত্রিক আইনের ক্ষেত্রে হয়েছিল জরুরি অবস্থার পর।

নয়া নাগরিকত্ব বনাম জুতা হ্যায় জাপানি, পাৎলুন ইংলিশস্তানি

নয়া নাগরিকত্ব বনাম জুতা হ্যায় জাপানি, পাৎলুন ইংলিশস্তানি

দেশের অর্থনীতি নিয়ে এই মুহূর্তে বিজেপির কাছে কিছু নেই যা দিয়ে ভোটে জেতা যায়। ফলে আপাতত হিন্দু-মুসলমানের রাজনীতিই বিজেপির হাতে একমাত্র অস্ত্র।

এনকাউন্টার: কে ফ্যাসিবাদী, কে নয়?

এনকাউন্টার: কে ফ্যাসিবাদী, কে নয়?

অত্যাচারী রুনু গুহ নিয়োগীকে বামফ্রন্ট সরকার এসে প্রোমোশন দিয়ে দেয়। এমনও বামপন্থী নেতাদের বলতে শুনেছি, রুনু আছে বলে কলকাতার মানুষ রাতে শান্তিতে ঘুমোতে পারে। এই বামপন্থীরা কি সবাই ফ্যাসিবাদ বিরোধী?

উপনির্বাচন: ভোটারদের ‘মন কি বাত’-এ বড় পরিবর্তনের ইঙ্গিত

উপনির্বাচন: ভোটারদের ‘মন কি বাত’-এ বড় পরিবর্তনের ইঙ্গিত

বঙ্গ রাজনীতির ভাষায় কেউ বলতেই পারেন, তাহলে কি ভোটাররা এখন স্যাটা-স্যাট সিদ্ধান্ত বদল করছেন?

Advertisement

ট্রেন্ডিং
করোনা আপডেট
X