scorecardresearch

বড় খবর

সংস্থার কর্মীর যমজ সন্তানের বাবা হলেন ধনকুবের এলন মাস্ক, ছেলে-মেয়ের সংখ্যা বেড়ে হল ৯

৩৬ বছরের শিভন জিলিস মাস্কের সংস্থার শীর্ষ পদে রয়েছেন।

সংস্থার কর্মীর যমজ সন্তানের বাবা হলেন ধনকুবের এলন মাস্ক, ছেলে-মেয়ের সংখ্যা বেড়ে হল ৯
দুই সন্তানের জন্ম নিয়ে এলন মাস্ক বা শিভন কোনও মন্তব্য করেননি।

নিজের সংস্থার শীর্ষ আধিকারিকের যমজ সন্তানের বাবা হলেন ধনকুবের এলন মাস্ক। টেসলা-র কর্ণধার এলন মাস্ক এবং তাঁর সংস্থার শীর্ষকর্ত্রী শিভন জিলিসের গত নভেম্বরে যমজ সন্তান হয়েছে বলে বিজনেস ইনসাইডার খবর করেছে বুধবার। এই নিয়ে শিল্পপতির সন্তানের সংখ্যা বেড়ে হল ৯।

গত এপ্রিল মাসে এলন এবং শিভন আদালতে হলফনামা দিয়ে সন্তানদের পদবী মাস্ক করার জন্য আবেদন করেন। এবং মায়ের পদবী নামের সঙ্গে রাখার জন্যেও আবেদন করেন। এক মাস পর নাকি টেক্সাসের বিচারক সেই আবেদন মঞ্জুর করেন।

কানাঘুষো চলছে, টুইটারের সঙ্গে ৪৪০০ কোটি ডলারের চুক্তি সম্পূর্ণ হলেই মাইক্রোব্লগিং সংস্থার শীর্ষ পদে বসবেন শিভন। এরকমই পরিকল্পনা রয়েছে মাস্কের। তবে পুরোটাই জল্পনা। এখনও টুইটার অধিগ্রহণ সম্পূর্ণ হয়নি।

আরও পড়ুন নানা ধরনের ছুতোয় হস্তক্ষেপের অভিযোগ, কেন্দ্রের বিরুদ্ধে আইনি পথে হাঁটছে টুইটার

৩৬ বছরের শিভনের লিঙ্কডইন প্রোফাইল অনুযায়ী, তিনি নিউরালিঙ্কের স্পেশ্যাল প্রজেক্ট এবং অপরাশনের ডিরেক্টর পদে রয়েছেন। সেই সংস্থার কর্ণধার ৫১ বছরের এলন মাস্ক। ২০১৭ সালের মে মাস থেকে সংস্থা কাজ করা শুরু করেন শিভন। সেই মাসেই টেসলার আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্সের ডিরেক্টর পদে বসেন মহিলা। সেই পদে ২০১৯ সাল পর্যন্ত ছিলেন।

যমজ সন্তানের ফলে এলন মাস্কের ছেলে-মেয়ের সংখ্যা বেড়ে হল ৯। কানাডিয়ান গায়িকা গ্রাইমসের সঙ্গে মাস্কের দুটি সন্তান রয়েছে, বাকি পাঁচ সন্তান তাঁর প্রাক্তন স্ত্রী জাস্টিন উইলসনের সঙ্গে রয়েছে। তিনি কানাডিয়ান লেখিকা।

উল্লেখ্য, পেজ সিক্স-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, গত বছর ডিসেম্বরে সারোগেসির মাধ্যমে মাস্ক এবং গ্রাইমস তাঁদের দ্বিতীয় সন্তানের বাবা-মা হন। বর্তমানে গ্রাইমসের সঙ্গে থাকেন মাস্ক। তবে বিচ্ছেদও হয়নি। দুই সন্তানের জন্ম নিয়ে এলন মাস্ক বা শিভন কোনও মন্তব্য করেননি।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Business news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Elon musk had twins last year with one of his top executives says report