বড় খবর

জিডিপি-র হার উদ্বেগজনক, আত্মতুষ্টি কাটাক সরকার: রঘুরাম রাজন

এই অর্থনীতির হাল ফেরাতে সরকার ও আমলাদের আত্মতুষ্টি কাটিয়ে খোলস থেকে বেরোনো দরকার বলে বার্তা দিয়েছেন প্রাক্তন আরবিআই গভর্নর।

raghuram rajan, রঘুরাম রাজন
ছবি: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

দেশে জিডিপি-র পতন নিয়ে মুখ খুললেন রিজার্ভ ব্য়াঙ্কের প্রাক্তন গভর্নর রঘুরাম রাজন। দেশে আর্থিক বৃদ্ধির হারের ছবি ‘উদ্বেগজনক’ বলে সোমবার মন্তব্য় করেছেন রাজন। পাশাপাশি এই অর্থনীতির হাল ফেরাতে সরকার ও আমলাদের আত্মতুষ্টি কাটিয়ে খোলস থেকে বেরোনো দরকার বলে বার্তা দিয়েছেন প্রাক্তন আরবিআই গভর্নর।

এ প্রসঙ্গে সোশ্য়াল মিডিয়ায় রঘুরাম রাজন লিখেছেন, ”২০২০-২১ অর্থবর্ষের প্রথম ত্রৈমাসিকে জিডিপির হার আমাদের কাছে খুবই উদ্বেগের। ভারতে সংকোচন হয়েছে ২৩.৯ শতাংশ। সেখানে করোনা বিধ্বস্ত আমেরিকা ও ইটালিতে পতন হয়েছে যথাক্রমে ৯.৫ শতাংশ ও ১২.৪ শতাংশ”।

রাজন আরও লিখেছেন, ”ভারতে এখনও অতিমারী পরিস্থিতি…যতক্ষণ না ভাইরাস রোখা যাচ্ছে, ততক্ষণ রেস্তোরাঁর মতো জায়গা যেখানে খরচ বেশি এবং সংক্রমণ ছড়ানোর সম্ভাবনা বেশি, সেখানে কর্মসংস্থান কমবে”।

আরও পড়ুন: জিডিপি-তে বড়সড় ধস, বৃদ্ধি কমল ২৩.৯ শতাংশ

অর্থনীতিকে রোগের সঙ্গে তুলনা টেনে রাজন লিখেছেন, যদি আপনি অর্থনীতিকে একজন রোগী ভাবেন, তাহলে রোগ সারাতে বিভিন্ন ওষুধ প্রয়োগ করতে হয়। সেই ওষুধ হল ত্রাণ। ফলে, ত্রাণ না মিললে গৃহস্থে খাবার জুটবে না, বাচ্চাদের স্কুল থেকে ছাড়িয়ে কাজ বা ভিক্ষা করতে পাঠাবে, সোনা বন্ধক নিতে হবে, কোনও ঋণ শোধ করা যাবে না। সেরকভাবেই পর্যাপ্ত সাহায্য় ছাড়া ছোটো ও মাঝারি শিল্প যেমন ছোটো রেস্তোরাঁ, সেখানে কর্মীদের বেতন দিতে পরাবে না, ঋণের বোঝা বাড়তে থাকবে বা পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যাবে।

উল্লেখ্য়, চলতি অর্থবর্ষের প্রথম ত্রৈমাসিকে জিডিপির হার নেমে দাঁড়িয়েছে ২৩.৯ শতাংশে। গত সোমবার স্ট্য়াটেস্টিক্স অ্য়ান্ড প্রোগ্রাম ইমপ্লিমিন্টেশন মন্ত্রকের তরফে এই পরিসংখ্য়ান প্রকাশ করা হয়েছে। গত অর্থবর্ষে এই সময় জিডিপির হার ছিল ৫.২ শতাংশ।

Read the full story in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Business news here. You can also read all the Business news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Gdp data alarming govt needs to be frightened out of complacency raghuram rajan

Next Story
পরিকাঠামো ক্ষেত্রে উন্নয়ন ব্যাংকের ভাবনা কেন্দ্রের
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com