scorecardresearch

বড় খবর

বিতর্ক উস্কে প্রেসিডেন্সিতে সরস্বতী পুজো হচ্ছেই! কী জানালেন তৃণাঙ্কুর ভট্টাচার্য?

পুজোর আয়োজন নিয়ে মুখ খুললেন তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতি।

বিতর্ক উস্কে প্রেসিডেন্সিতে সরস্বতী পুজো হচ্ছেই! কী জানালেন তৃণাঙ্কুর ভট্টাচার্য?
প্রেসিডেন্সিতে সরস্বতী পুজো…

রাত পেরোলেই সরস্বতী পুজো। বাগদেবীর আরাধনা মেতে উঠবেন রাজ্যবাসী। শিক্ষক-শিক্ষিকা থেকে পড়ুয়ারা, এইদিন সকলের কাছেই ভীষণ আনন্দের। বিদ্যা এবং শিল্পের আরাধ্যা দেবীর আরাধনা নিয়েও এবার রাজনৈতিক তরজা! কেউ বলছেন, পশ্চিমবঙ্গে যেখানে শিক্ষা এবং শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি সেখানে সরস্বতীর পূজার্চনা বিলাসিতা। তার মধ্যে, প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়েও সরস্বতী আরাধনা নিয়ে তরজা চরমে পৌঁছেছে।

আদৌ হচ্ছে সরস্বতী পুজো? কিছুদিন আগেই শোরগোল ছিল তুঙ্গে। আজ পর্যন্ত কোনওদিনই প্রেসিডেন্সির ক্যাম্পাসে বাগদেবীর আরাধনা হয়নি। বেশ কিছু ছাত্রছাত্রী দাবি করেছিলেন, অযথা ধর্ম এবং রাজনীতি ঢোকানোর কোনও মানে নেই। যা আজ পর্যন্ত হয়নি, তা এখন কেন হবে? আবার কেউ কেউ শিক্ষাঙ্গনে সরস্বতী পুজো হোক এই দাবিও করেছিলেন। এর আগেও বহুবার, ডিনের কাছে চিঠি গেছে কিন্তু তিনি সম্মতি দেননি। এ প্রসঙ্গে ভোটাভুটি পর্যন্ত হয়েছে। টিএমসিপির তরফে একটি চিঠিও দেওয়া হয় ডিনের কাছে। কিন্তু সেখানেও ‘নট ভেরিফায়েড’ লিখে দেন তিনি। ফলেই পূজার্চনা করতে গিয়ে শাসকদলের ছাত্র সংগঠন পড়েছিল নানান বাধার মুখে। তবে, পুজো হচ্ছেই।

এপ্রসঙ্গে, তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতি তৃণাঙ্কুর ভট্টাচার্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলাকে বলেন, “পুজো হচ্ছে তবে ক্যাম্পাসের ভেতরে নয় বাইরে। মেন গেটের সামনেই পুজো করা হচ্ছে। বেশ ভালমতোই হচ্ছে। এতে দলীয় মতভেদের কোনও জায়গা নেই। বরং, আমাদের মধ্যেই এক প্রাক্তনী দাবি করেছিল যে, কোনওদিন যা হয়নি সেটা আজ কেন। তবে, প্রেসিডেন্সির ছাত্ররাই জানিয়েছেন, যে পুজো হোক। রমরমিয়ে পুজো হবে”।

আরও পড়ুন প্রেসিডেন্সিতে সরস্বতী পুজো হচ্ছেই, আমন্ত্রণপত্র পোস্ট করে বিতর্কে ঘি দিল TMCP

এখানেই শেষ নয়, তিনি আরও বলেন, “পুজো হবে নাকি না এই নিয়ে যে ভোটাভুটি হয়েছে, তা গণনা করা দেখা গেছে, ৮৯.২ শতাংশ ছেলেমেয়েরা পুজো করতে রাজি হয়েছেন। তাঁরা চেয়েছেন তাই পুজো হচ্ছে”। আর পুজোর খরচ? ছাত্রনেতা বললেন, “আমরা দিচ্ছি। ছাত্রছাত্রীরা দিচ্ছে। কলেজ কর্তৃপক্ষের তরফে আমরা কিছু পাচ্ছি না, তবে আমরা সবাই মিলে দিয়েই পুজোটা হচ্ছে। আশা করছি সব ভালভাবে হবে। আনন্দ করবেন পড়ুয়ারা”।

একথা অজানা নয়, অনেক মিশনারী স্কুল কলেজেও ক্যাম্পাসের বাইরে পুজো করে থাকেন পড়ুয়ারা। আবার রবীন্দ্র ভারতী থেকে বিশ্বভারতী – কোথাওই পুজো করার রীতিনীতি নেই। তবে, কর্তৃপক্ষের উপর বাম ছাত্র সংগঠনের চাপ রয়েছে কিনা সেই নিয়েও প্রশ্ন তুলেছিলেন ছাত্রদের অনেকে।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Education news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Presidency university kolkata saraswati puja controversy tmcp union body claimed puja will held tomorrow