scorecardresearch

বড় খবর

ভারতী ঘোষের নামে এফআইআর পুলিশের

Loksabha Election 2019: ভারতী ঘোষের বিরুদ্ধে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা রুজু করল পিংলা থানার পুলিশ। ঘাটালের বিজেপি প্রার্থীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে।

ভারতী ঘোষের নামে এফআইআর পুলিশের
ভারতী ঘোষ।

General Election 2019: ঘাটালে ভোটের মুখে আরও বিড়ম্বনায় পড়লেন বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষ। টাকা উদ্ধারের ঘটনায় ভারতীর বিরুদ্ধে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা রুজু করল পিংলা থানার পুলিশ। ঘাটালের বিজেপি প্রার্থীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। পিংলা থানা সূত্রে এ খবর জানা গিয়েছে। সরকারি কাজে বাধা, হুমকি-সহ একাধিক ধারায় মামলা রুজু করেছে পুলিশ। কয়েকটি জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে ভারতীর বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে পশ্চিম মেদিনীপুরের পিংলায় নাকা তল্লাশির সময় ভারতীর গাড়ি থেকে নগদ ১ লক্ষ ১৩ হাজার ৮৯৫ টাকা বাজেয়াপ্ত করে পুলিশ। প্রথমে গাড়ি নিয়ে পালানোর চেষ্টা করেন ভারতী। পরে পুলিশ ভারতীকে আটক করে থানায় জিজ্ঞাসাবাদ করে। রাত ২টো নাগাদ ভারতীকে ছেড়ে দেওয়া হয়। এদিকে, এ ঘটনায় দিল্লির নির্বাচন কমিশনে রিপোর্ট পাঠিয়েছে রাজ্যেপ মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের দফতর।

লোকসভা নির্বাচনের আরও খবর পড়ুন, এখানে

ঠিক কী ঘটেছে?

বৃহস্পতিবার গভীর রাতে পিংলায় নাকা তল্লাশির সময় ভারতী ঘোষের গাড়ি আটকায় পুলিশ। প্রথমে গাড়ি নিয়ে চম্পট দেওয়ার চেষ্টা করেন ভারতী। পরে পুলিশের হাতে আটক হন প্রাক্তন আইপিএস। গাড়ি থেকে নগদ ১ লক্ষ ১৩ হাজার ৮৯৫ টাকা উদ্ধার করা হয়। ভারতীকে থানায় নিয়ে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তবে সিজার লিস্টে সই না করেই ভারতীকে রাত ২টো নাগাদ ছেড়ে দেওয়া হয়। কেন বিজেপি প্রার্থীকে গ্রেফতার করা হল না? কেন সিজার লিস্টে সই না করিয়েই তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হল? এ নিয়ে সরব হয় পিংলা ব্লক তৃণমূল। ভারতীকে গ্রেফতারের দাবিতে রাস্তা অবরোধ করেন তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয়।

আরও পড়ুন: বড় বিপাকে ভারতী? কলকাতা থেকে ভিডিও গেল দিল্লিতে

ভোট কেনার জন্যই টাকা বিলোচ্ছেন ভারতী ঘোষ, এ অভিযোগই করেছে জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব। জেলা তৃণমূল সভাপতি অজিত মাইতি বলেন, ‘‘আমরা জানতাম, উনি টাকা ছড়িয়ে ভোট করার চেষ্টা করবেন, ওঁর পদ্ধতি এটাই। উনি রাতের অন্ধকারে টাকা বিলি করছিলেন। ওঁকে অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবি জানাচ্ছি।’’

এ প্রসঙ্গে কী বললেন ভারতী ঘোষ?

তাঁকে ফাঁসানোর চেষ্টা করা হচ্ছে, এমন অভিযোগই করেছেন ঘাটালের বিজেপি প্রার্থী। ভারতী বলেন, ‘‘পুরো গাড়িটা ৩ বার তল্লাশি চালানো হয়। আমার সঙ্গে যাঁরা ছিলেন, তাঁদের থেকে টাকা নিয়ে আমার ব্যাগে রাখা হয়। প্রত্যেকের টাকা এক জায়গায় করলে যা হয়। আমি কেন টাকা বিলি করতে যাব? ১ লক্ষ ১৩ হাজার টাকা দিয়ে ভোট হয়?’’

অন্যদিকে, দলের প্রার্থীর গাড়ি থেকে টাকা বাজেয়াপ্ত প্রসঙ্গে বিজেপি রাজ্য সভাপতি তথা মেদিনীপুরের বিজেপি প্রার্থী দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘‘আইন অনুযায়ী চলবে। পুলিশ যদি ধরে থাকে, পুলিশ তার ব্যবস্থা করবে’’।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Election news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Loksabha election 2019 west bengal bharati ghosh bjp tmc ghatal pingla cash cash seized