scorecardresearch

বড় খবর

হারছেন মোদী, সমর্থন করছে না আরএসএস-ও, আবার তোপ মায়াবতীর

বহুজন সমাজ পার্টি সুপ্রিমো একই সঙ্গে নির্বাচন কমিশনের প্রচারে নিষেধাজ্ঞা চলাকালীন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের মন্দির পরিদর্শন নিয়েও তোপ দেগেছেন।

Mayawati
ফাইল ছবি
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে ব্যক্তিগত আক্রমণ করার একদিন পর, বহুজন সমাজ পার্টি নেত্রী মায়াবতী মঙ্গলবার দাবি করেছেন সরকারকে সমর্থন করা বন্ধ করে দিয়েছে আরএসএস। এর ফলে মোদী বিচলিত হয়ে পড়ছেন বলেও দাবি করেছেন তিনি।

সংবাদসংস্থা এএনআই মায়াবতীকে উদ্ধৃত করেছে, “প্রধানমন্ত্রী মোদীর  সরকার ভোটে হারছে, মনে হচ্ছে আরএসএস-ও তাদের সমর্থন করা বন্ধ করে দিয়েছে। নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি পূরণ না হওয়া এবং গণবিক্ষোভের মাঝে তাদের স্বয়ংসেবকরাও কাজ করা বন্ধ করে দিয়েছে যার ফলে শ্রী মোদী বিচলিত হয়ে পড়েছেন।”

মায়াবতী একই সঙ্গে বলেছেন, “দেশ আর দুমুখো চরিত্রের লোকের কাছে প্রতারিত হবে না, দেশ এখন একজন প্রধানমন্ত্রী চায়, চা ওলা বা চৌকিদার নয়।”

তিনি বলেন, “দেশ ইতিমধ্যে একাধিক নেতার সাক্ষাৎ পেয়ে গেছে, যাঁরা সেবক, মুখ্য সেবক, চা ওলা, চৌকিদার নামে পরিচিত এবং জনগণকে বিপথে পরিচালিত করতে চায়। কিন্তু, দেশ এখন চায় একজন সত্যিকারের প্রধানমন্ত্রী যিনি সংবিধানের কল্যাণমূলক ভাবধারার সঙ্গে সঙ্গতি রেখে দেশ চালাতে পারেন… জনগণ দুুমুখো চরিত্রের নেতাদের দ্বারা ইতিমধ্যেই বোকা বনেছে, আর তারা বোকা বনবে না।”

বহুজন সমাজ পার্টি সুপ্রিমো একই সঙ্গে নির্বাচন কমিশনের প্রচারে নিষেধাজ্ঞা চলাকালীন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের মন্দির পরিদর্শন নিয়েও তোপ দেগেছেন।

“নির্বাচনের সময়ে রোড শো এবং পূজো আচ্চা এখন ফ্যাশন হয়ে দাঁড়িয়েছে, এ খাতে প্রচুর অর্থ ব্যয় করা হচ্ছে। নির্বাচন কমিশনের উচিত প্রার্থীর মোট ব্য়য়ের সীমার মধ্যে এ খরচকে যুক্ত করা।”

মায়াবতী বলেন, “আদর্শ আচরণবিধি ভঙ্গের কারণে একজন প্রার্থীর প্রচার যখন নিষিদ্ধ, সে সময়ে যদি তাঁর জনসমক্ষে যাওয়া অথবা কোনও মন্দিরে পুজো দিতে যাওয়া এবং তা সংবাদমাধ্য়মে প্রদর্শন বন্ধ করা উচিত। এ ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিত নির্বাচন কমিশনের।”

মায়াবতী বলেন, “আমি জানতে পেরেছি যে বিজেপির বিবাহিতা মহিলারা যদি দেখেন যে তাঁদের স্বামীরা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কাছে যাচ্ছেন, তখন আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। তাঁদের ভয় হয় যে তাঁরাও স্ত্রীকে পরিত্যাগ করবেন।” এর প্রেক্ষিতে প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারমন মায়াবতীর ক্ষমাপ্রার্থনার দাবি করেছেন। অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি টুইটারে পোস্ট করে বলেছেন, “মায়াবতী পাবলিক লাইফের যোগ্য নন।”

প্রধানমন্ত্রী মোদী এর আগে রাজস্থানের আলওয়ারে এক দলিত মহিলার গণধর্ষণ নিয়ে মায়াবতীর উদ্দেশে প্রশ্ন করেন। কেন বহুজন সমাজ পার্টি রাজস্থানে সরকারের উপর থেকে সমর্থন তুলে নিচ্ছে না এ প্রশ্ন তুলে মায়াকে বেঁধেন মোদী।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Election news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Modi not getting support of rss losing election says mayawati