scorecardresearch

আইডিতে চিকিৎসায় নারাজ, ৪ ঘণ্টা ‘নাটকের’ পর বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হলেন বনিতা সান্ধু

ব্রিটিশ দূতাবাসের মধ্যস্থতায় বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হলেন অভিনেত্রী।

banita-Sandhu

মাদার টেরেসার বায়োপিক- ‘কবিতা অ্যান্ড টেরেসা’র (Kavita & Teresa) শুটিংয়ের জন্য সদ্য কলকাতায় এসেছেন অভিনেত্রী বনিতা সান্ধু (Banita Sandhu)। আর শহরে পা রাখা মাত্রই অভিনেত্রীর করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর প্রকাশ্যে আসে। শোনা যায়, মারণ ভাইরাস তাঁর শরীরে থাবা বসানোয় বেলেঘাটা আইডিতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে তাঁকে। তবে ঘণ্টাখানেক পরই অন্য দৃশ্য সামনে আসে। শোনা যায়, সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে নাকি নারাজ বনিতা। তাই ৪ ঘণ্টা বেলেঘাটা আইডির বাইরে অ্যাম্বুল্যান্সেই বসে ছিলেন। সেখান থেকে তাঁকে বুঝিয়ে-সুঝিয়ে একচুলও নড়ানো যায়নি।

সূত্রের খবর, দমদম বিমানবন্দরে নমুনা পরীক্ষা করা হয় বনিতার। রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এরপর চিত্তরঞ্জন ন্যাশনাল হাসপাতালের নিউটাউন ক্যাম্পাসে ভর্তি করা হয়েছিল তাঁকে। ফের পরীক্ষা করা হলে রিপোর্ট পজিটিভ আসে। সেখান থেকেই বেলেঘাটা আইডিতে স্থানান্তরিত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কিন্তু ৪ ঘণ্টা অ্যাম্বুল্যান্স থেকে নামতেই চাইলেন না অভিনেত্রী। অগত্যা, অ্যাম্বুলেন্স নিয়ে বেরিয়ে যাওয়ার সময় পুলিশ বাধা দেয়। যোগাযোগ করা হয় স্বাস্থ্য কর্তা ও প্রশাসনের সঙ্গে। ব্রিটিশ দূতাবাসকেও জানানো হয়। শেষপর্যন্ত দূতাবাসের মধ্যস্থতায় বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন তিনি। সেখান থেকে তাঁর ফের করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হবে। পরীক্ষায় দেখা হবে তিনি করোনার নয়া স্ট্রেনে আক্রান্ত হয়েছেন কিনা।

সুইজারল্যান্ড থেকে লন্ডন, দুবাই হয়ে ‘কবিতা অ্যান্ড টেরেসা’র জন্য গত ৩০ ডিসেম্বর ব্রিটেন থেকে কলকাতায় আসেন বনিতা সান্ধু। শহরে শুটিংও শুরু হয়েছিল। কিন্তু তার মাঝেই অভিনেত্রীর শরীরে করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়ে। সূত্রের খবর, করোনায় আক্রান্ত বনিতার কোনওরকম শারীরিক অসুস্থতা নেই। আপাতত তিনি সুস্থই রয়েছেন। যেহেতু সদ্য ব্রিটেন থেকে ফিরেছেন, তাই তাঁর শরীরে করোনার নয়া স্ট্রেন রয়েছে কি না, তা পরীক্ষানিরীক্ষা করা হবে।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Actress banita sandhu refused to admit in government hospital belghata id