বড় খবর

অতিমারী সংকটমোচনে অভিনব উদ্যোগ অক্ষয়-ট্যুইঙ্কলের, দিলেন ১০০ অক্সিজেন কনসেনট্রেটর

অক্ষয় কুমার নিজেও সম্প্রতি করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। এবার নিজেই ময়দানে নেমে পড়লেন অক্সিজেনের অভাব মেটাতে।

akshay

এমন অতিমারীতে বিধ্বস্ত জনজীবন। মৃত্যু, লাশের ভীড়, আর্তনাদ…। করোনা বিপর্যস্ত মৃত্যুপুরীতে চারিদিকে শুধু বেঁচে থাকার আর্তি। কিন্তু কোথাও পরিমিত অক্সিজেন (Oxygen) সিলিন্ডারের অভাব, আবার কোথাও বা হাসপাতালের বেড, প্লাজমার জন্য হাহাকার। দেশের অতিমারী পরিস্থিতি ভাঁজ ফেলেছে স্বাস্থ্যবিদদের কপালেও। নিত্যদিন হু-হু করে বাড়ছে সংক্রমণের সংখ্যা। দেশের এমন অতিমারী পরিস্থিতিতেই সংকটমোচনে ফের এগিয়ে এলেন অক্ষয় কুমার (Akshay Kumar) এবং ট্যুইঙ্কল খান্না (Twinkle Khanna)। অক্সিজেনের অভাবে যাতে কোভিড রোগীদের আর মৃত্যু না হয়, সেই ভাবনা থেকেই ১০০টি অক্সিজেন কনসেনট্রেটর দান করলেন বলিউডের তারকা-দম্পতি।

প্রসঙ্গত, অক্ষয় কুমার নিজেও সম্প্রতি করোনায় (COVID-19) আক্রান্ত হয়েছিলেন। এবার নিজেই ময়দানে নেমে পড়লেন অক্সিজেনের অভাব মেটাতে। মঙ্গলবার ট্যুইঙ্কল নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে জানান, “তিনি এবং অক্ষয় অতিমারীর বিরুদ্ধে লড়াই করতে ১০০টি অক্সিজেন কনসেনট্রেটরের ব্যবস্থা করেছেন। পাশাপাশি, একটি ইতিবাচক বার্তাও শেয়ার করেন অভিনেত্রী-লেখিকা। তিনি লেখেন, বিগত কয়েক সপ্তাহে আমি অনেক কিছু উপলব্ধি করলাম। আমার নিজের পরিবারের সদস্যরা অসুস্থ হলেও আমি সেখানে বেশিক্ষণ থাকতে পারিনি। সকলকে অনুরোধ করছি, আপনারা সকলে নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী সাহায্য করুন। ভবিষ্যতে অন্তত এটা যাতে বলা যায় যে, এই কঠিন সময় আমাদের মধ্যে থেকে সেরাটা বের করে এনেছে।”

উল্লেখ্য, এর আগেও অক্ষয় কুমার প্রাক্তন ক্রিকেটার তথা দিল্লির বিধায়ক গৌতম গম্ভীরের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনে মারণ ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য ১ কোটি টাকা আর্থিক সাহায্য অনুদান দিয়েছিলেন।

Get the latest Bengali news and Entertainment news here. You can also read all the Entertainment news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Akshay kumar twinkle khanna donates 100 oxygen concentrator

Next Story
কলকাতার করোনা আক্রান্ত পরিবারকে সাহায্যের আর্জি ভূমি পেড়নেকরের, এগিয়ে এলেন সৃজিতsrijit
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com