বড় খবর

‘বিহারে আমাকে ধর্ষণ ও খুন করে ফেলত’, ভোট প্রচারের পর LJP নেতার বিরুদ্ধে বিস্ফোরক আমিশা

অভিনেত্রীর যাবতীয় অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন ওই নেতা।

Ameesha

“বিহারে আমাকে ধর্ষণ করে খুন করা হতে পারত!” বিহারের বিধানসভা নির্বাচনীর আগে প্রচারে গিয়ে বিস্ফোরক আমিশা প্যাটেল (Ameesha Patel)। নীতিশ কুমার-শাসিত রাজ্যে ভোট আসন্ন। আর এর মাঝেই বিরোধী দলনেতা এলজেপি প্রার্থী চন্দ্র প্রকাশের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ আনলেন বলিউড অভিনেত্রী আমিশা।

নির্বাচনী প্রচারের উত্তেজনার মাঝেই সম্প্রতি এক অডিও ক্লিপ ভাইরাল হয়েছে। যেখানে অভিনেত্রী আমিশা প্যাটেলের কণ্ঠস্বর শোনা যাচ্ছে বলেই দাবি করা হয়েছে। আর তাতেই লোক জনশক্তি পার্টির নেতার বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ করেছেন বলিউডের অভিনেত্রী। আশঙ্কিত আমিশার কথায়, বিহারে নির্বাচনী প্রচারের সময় তাঁকে ধর্ষণ ও খুন করা হতে পারত। বিহারের নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় এর যথেষ্ট প্রভাব পড়বে বলেও মনে করা হচ্ছে।

জাতীয় এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে আমিশা প্যাটেল স্পষ্ট জানিয়েছেন যে, “লোক জনশক্তি পার্টির নেতা চন্দ্র প্রকাশের কথা রাখতেই বিহারে সম্প্রতি নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিয়েছিলাম। কিন্তু উনি সাংঘাতিক একজন লোক। ব্ল্যাকমেইল ও হুমকি পর্যন্ত দিয়ে বেড়ান। আমাকে তো বটেই, এমনকী আমার সঙ্গীসাথীদেরও হুমকি দিয়েছেন। নির্বাচনী প্রচারের সময় খুব খারাপ ব্যবহারও করেছেন। শুধু তাই নয়, মুম্বইতে ফিরে আসার পরও নিস্তার মেলেনি। ফোন, এসএমএসে হমকি দিয়ে যাচ্ছেন ক্রমাগত। একপ্রকার প্রাণভয় নিয়েই পালিয়ে এসেছি। মুম্বইতে না আসা অবধি আমার চুপচাপ ওদের কথামতো কাজ না করা ছাড়া আর কোনও উপায়ও ছিল না।”

আমিশার অভিযোগ এখানেই শেষ নয়। তিনি আরও বলেন, “ওখানে একটা গ্রামে আমাকে আটকে দিয়েছিল রীতিমতো। যার জন্য সন্ধেবেলার ফ্লাইট মিস করেছি। চন্দ্র প্রকাশের কথা না শুনলে আমাকে ওই গ্রামেই ছেড়ে আসার হুমকি দেওয়া হয়েছিল। কোনও নিরাপত্তা ছিল না আমার। চাইলে ওখানেই ধর্ষণ করে খুন করে দিত ওরা। এমনকী, আমার গাড়িও সবসময়ে ঘিরে রেখেছিল ওর লোকজন। তাই মুম্বই ফিরে এসেই দুনিয়ার কাছে ওর মুখোশ টেনে ছিঁড়ে ফেলার জন্য মুখ খুলি। এরপর থেকেই হুমকি ফোন পাচ্ছি।”

যদিও আমিশার তোলা যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করে উড়িয়ে দিয়েছেন চন্দ্র প্রকাশ। তাঁর মন্তব্য, “মানুষের ভালবাসা আর লোকের ভোটেই আমি নির্বাচনে জেতায় বিশ্বাসী। কিন্তু আমারই এক আত্মীয় ওবরায় আমিশার ব়্যালির আয়োজন করেন। ওঁকে সবরকম নিরাপত্তাই দেওয়া হয়েছিল। যার দায়িত্বের মূলভাগে ছিল দাউদনগর থানা। আমিশা যা দাবী করেছেন, তার একাংশও সত্যি নয়! বিহারে কি আর্টিস্টরা আসেন না? এই তো সেদিন পাপ্পু যাদবের সঙ্গে দেখা করে সোনাক্ষী সিনহা ১৫ লাখের চুক্তি স্বাক্ষর করল।”

তিনিন আরও বলেন, “আমিশা তো ১০ লক্ষ টাকার বিনিময়ে আমার সমর্থনে একটি ভিডিও শুট করার কথা দিয়েছিল। দেখুন আমি শিক্ষিত মানুষ আর শিক্ষিত মানুষজনদের নিয়েই কোম্পানি চালাই। ওঁকে এখানে ভালরকম নিরাপত্তাই দেওয়া হয়েছিল।”

Web Title: Ameesha patel claims she was threatened by ljp leader

Next Story
মারাঠি ভাষাকে অপমান, চাপের মুখে মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনার কাছে ক্ষমা চাইল শানু-পুত্র জানJaan-sanu
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com