বড় খবর

শিবলিঙ্গে কন্ডোম! পুরনো টুইট ডিলিট করে সায়নীর সাফাই, ‘নিজের ধর্মকে আঘাত করতে চাইনি’

হিন্দুদের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করার অভিযোগে সম্প্রতি অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছেন বিজেপি নেতা তথাগত রায়।

sayani-ghosh

তথাগত রায় (Tathagata Roy) এবং সায়নী ঘোষের (Sayani Ghosh) টুইট যুদ্ধে কার্যত সরগরম সোশ্যাল মিডিয়া। এরই মাঝে বছর পাঁচেক পুরনো এক টুইটের জেরে আইনি বিপাকে পড়লেন টলিউড অভিনেত্রী। সায়নীর বিরুদ্ধে অভিযোগ, হিন্দুদের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করেছেন তিনি। যার জেরে ইতিমধ্যেই টলিউড অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে রবীন্দ্র সরোবর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন বিজেপি নেতা তথা মেঘালয় ও ত্রিপুরার প্রাক্তন রাজ্যপাল তথাগত। আর সেই সমালোচনা-তরজা যখন তুঙ্গে, তখন বিতর্কিত ওই টুইটের দায় এড়ালেন সায়নী। অভিনেত্রীর সাফ সাফাই, “ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করতে চাইনি।”

পাঁচ বছর আগের ওই টুইটে দেখা গিয়েছে, শিবলিঙ্গের মাথায় কন্ডোম পরাচ্ছেন এইডস সচেতনতার বিজ্ঞাপনের ম্যাসকট ‘বুলাদি’। ওই ছবিতে লেখা ‘বুলাদির শিবরাত্রি’। আর পোস্টের ক্যাপশনে লেখা, “ঈশ্বর এর থেকে বেশি কার্যকরী হতে পারেন না।” পুরনো সেই টুইট ঘেঁটেই এফআইআর দায়ের করেছেন তথাগত রায়।

শুক্রবার তথাগত রায় সায়নী ঘোষকে ট্যাগ করে টুইটে লেখেন, “আপনি শিবলিঙ্গে কন্ডোম পরিয়েছেন, যা কিনা আমার মতো হিন্দুদের পবিত্রতা নষ্ট করেছে। ভারতীয় সংবিধানের ২৯৫ এ ধারার (ইচ্ছাকৃত ও বিদ্বেষমূলকভাবে কোনও সম্প্রদায়ের ধর্মীর ভাবাবেগে আঘাত হানা) ভিত্তিতে যা গুরুতর অপরাধমূলক। অ-জামিনযোগ্য এই অপরাধের জন্য জরিমানার পাশাপাশি ৩ বছরের জেল হয়। সুতরাং ফল ভোগ করার জন্য তৈরি থাকুন।” শুধু তাই নয়, আসামে বসবাসকারী এক হিন্দু ব্যক্তিও যে সায়নীর এই টুইটে আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে গুয়াহাটির এক থানায় অভিযোগ দায়ের করছেন অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে, সেকথাও টুইট করে প্রকাশ্যে আনেন বিজেপি নেতা।

পুরনো টুইট নিয়ে শোরগোল, আইনি বিপাকে পড়ার পরই ময়দানে নামেন সায়নী খোদ। সেই বিতর্কিত টুইট ডিলিট করে একটি দীর্ঘ বিবৃতি জারি করে অভিনেত্রীর মন্তব্য, “২০১৫ সালে টুইটার অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছিল। সেই সময় এই ছবিটি পোস্ট করা হয়েছে। পরে যখন নজরে আসে তখন টুইটটি ডিলিট করে দিই আমি।” তীব্র নিন্দাও করেন। তবে এই টুইটটির জন্য তাঁকে যেভাবে অপমান করা হয়েছে, সে কারণে দুঃখপ্রকাশও করেছেন অভিনেত্রী।

তবে স্বাভাবিকবশতই প্রশ্ন উঠছে যে, বছর পাঁচেক আগেকার টুইট নিয়ে এখন কেন এত শোরগোল? আসলে ঘটনার সূত্রপাত অভিনেত্রী সায়নী ঘোষের এক মন্তব্যকে ঘিরে। সম্প্রতি এক বাংলা সংবাদমাধ্যম চ্যানেলে অথিতি হিসেবে আমন্ত্রিত ছিলেন সায়নী। সেখানেই বিজেপি শিবিরের রাজনৈতিক সংস্কৃতি নিয়ে প্রশ্ন তোলেন অভিনেত্রী। প্রকাশ্যেই সায়নী বলেন, “বাইকে করে জয় শ্রী রাম রণধ্বনি দিয়ে ভয় দেখানো তো আমাদের সংস্কৃতি নয়। যেভাবে ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগানটিকে রণধ্বনিতে পরিণত করা হয়েছে, তা অত্যন্ত ভুল। উপরন্তু, এটি বাঙালি সংস্কৃতির মধ্যেও পড়ে না। ঈশ্বরের নাম ভালবেসে বলা উচিত।” ব্যস, এমন মন্তব্যের পরই গেরুয়া শিবির সমর্থকদের বাক্যবাণ ধেয়ে আসে টলিউড অভিনেত্রীর উপর। সায়নী ঘোষকে কটাক্ষ করে প্রবীণ রাজনীতিক তথাগত টুইট করেন। তাঁর কথায়, সায়নী ‘টাইপের’ মানুষকে তিনি ‘মূর্খ’ বলেই গণ্য করেন। আর সেই একই তালিকায় যোগ করেন বাংলার বামপন্থী মানুষদেরও। এরপরই শুরু হয় সায়নী-তথাগতর টুইট তরজা। তার জেরেই সম্ভবত ৫ বছর আগেকার এক টুইটকে প্রকাশ্যে এনে সায়নী ঘোষের বিরুদ্ধে এইআইআর দায়ের করেছেন তথাগত রায়, মন্তব্য রাজনৈতিক মহলের একাংশের।

Web Title: Amid of tweet controversy actress sayani ghosh deletes her old controversial tweet

Next Story
মায়াবতীকে অপমান! রিচা চাড্ডার ‘জিভ কেটে নেওয়া’র হুমকি ভীম সেনার, পালটা দিলেন অভিনেত্রীওricha
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com