বড় খবর

‘নজরে টলিউড’! সিনে ইন্ডাস্ট্রিকে আয়ত্তে আনতে অরূপের বিরুদ্ধে ‘বিজেপির বাজি’ বাবুল

হাড্ডাহাড্ডি লড়াই অবশ্যম্ভাবী। পদ্ম শিবিরের লক্ষ্য, ‘বিশ্বাস ব্রাদার্স’ মুক্ত সিনে ইন্ডাস্ট্রি। আর তাই ভরসার পাত্র বাবুল সুপ্রিয়।

babul

বাংলার মসনদ দখলের পাশাপাশি গেরুয়া শিবিরের নজর এখন গ্ল্যামার ইন্ডাস্ট্রিতেও। সিনে ইন্ডাস্ট্রি এখন ভিন্ন রাজনৈতিক মতাদর্শে দ্বি-বিভক্ত। একদিকে সবুজ, বিরোধীপক্ষ গেরুয়া শিবির। টলিউডকে আয়ত্ত আনা মানেই ‘পাখির চোখ’ টালিগঞ্জ কেন্দ্র। তৃণমূলের ‘তুরুপের তাস’ যেখানে অরূপ বিশ্বাস (Arup Biswas), সেখানে ‘বিজেপির বাজি’ বাবুল সুপ্রিয় (Babul Supriyo)। হাড্ডাহাড্ডি লড়াই অবস্যম্ভাবী। পদ্ম শিবিরের লক্ষ্য, ‘বিশ্বাস ব্রাদার্স’ মুক্ত সিনে ইন্ডাস্ট্রি। আর তাই ভরসার পাত্র বিজেপি সাংসদ বাবুল।

সম্প্রতি গেরুয়া শিবির দাবি তুলেছিল, ‘বিশ্বাস ভ্রাতৃদ্বয়’-এর ‘একচেটিয়া দখল’-এর হাত থেকে বাংলা চলচ্চিত্র শিল্পকে বাঁচাতে হবে। যার জেরে ‘টলিউড বাঁচাও’ ডাকও দিয়েছিল বঙ্গ বিজেপি। পরোক্ষভাবে ভারতীয় জনতা পার্টির তারকা সদস্যদের নিশানা যে তৃণমূলের মন্ত্রী অরুপ বিশ্বাস (Arup Biswas) এবং তাঁর ভাই স্বরূপ (Swarup Biswas), তা বোধহয় আর আলাদা করে বলার প্রয়োজন পড়ে না। উল্লেখ্য, একুশে বাংলায় পদ্ম ফোটানোর লড়াইয়ের পাশাপাশি গেরুয়া শিবিরের ‘পাখির চোখ’ এখন টলিউডেও। সেই প্রেক্ষিতেই টালিগঞ্জ কেন্দ্র থেকে বিজেপির তরফে কোনও হেভিওয়েট প্রার্থীকেই দরকার ছিল। কারণ, সংশ্লিষ্ট কেন্দ্র থেকে ঘাসফুল শিবিরের হয়ে প্রতিদ্বন্দিতা করছেন পোড় খাওয়া অরূপ বিশ্বাস। এবার সেই বিশ্বাস ব্রাদার্স-এর পাল্টা চ্যালেঞ্জ হিসেবেই টালিগঞ্জ কেন্দ্রে বিজেপির তরফে বাজি ধরা হল বাবুল সুপ্রিয়কে।

বাবুলের প্রার্থী হওয়া নিয়ে ইতিমধ্যেই রাজনৈতিক মহলের অন্দরে একটা ফিসফাস শুরু হয়েছে। কারণ, তিনি একাধারে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী, অন্যদিকে আসানসোলের সাংসদ। তাই বিরোধী শিবিরপক্ষের সমালোচকরা ছেড়ে কথা বলতে নারাজ! তাঁরা প্রশ্ন তুলেছেন, “গেরুয়া শিবিরে কি মুখের অভাব! একজন সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকেই কেন ফের বিধানসভায় প্রার্থী করা হল?” এই সমালোচনা ক্রমাগত জোরালো হচ্ছে বৈকী!

এপ্রসঙ্গে উল্লেখ্য, বিশ্বাস ব্রাদার্স-এর বিরুদ্ধে টলিউডের অন্দরে বহুদিন ধরেই ক্ষোভ জমছে। শিল্পী, কলা-কুশলীদের একাংশের কথায়, “স্বেচ্ছাচারিতা আর মেনে নেওয়া যায় না।” এমন অভিযোগ তুলেই তাঁরা পদ্ম শিবিরের দিকে ঝুঁকেছে। অতঃপর বিজেপির তরফে একটা ‘ভরসাযোগ্য’ হেভিওয়েট প্রার্থীরও দরকার ছিল টালিগঞ্জে। সেই প্রেক্ষিতেই বাবুল সুপ্রিয়র উপরই আস্থা রেখেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। এক্ষেত্রে বাবুলের ‘স্টার তকমা’, অন্যদিকে ‘পদ্ম শিবিরের পোড় খাওয়া নেতা’ ফ্যাক্টর যে ভোটবাক্সে আলাদা প্রভাব ফেলতে পারে, তা বলাই বাহুল্য। কাজেই একুশের ভোটযুদ্ধে (West Bengal Assembly Election 2021) টালিগঞ্জে বাবুল সুপ্রিয় বনাম অরূপ বিশ্বাসের হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের সম্ভাবনা রয়েছে।

অন্যদিকে, সবুজ-গেরুয়া দুই শিবিরের তরফেই যখন দুই হেভিওয়েট নেতা প্রতিদ্বন্দিতা করছেন, তখন টালিগঞ্জে সংযুক্ত মোর্চা সমর্থিত ‘তুরুপের তাস’ এবার বামেদের তারকাপ্রার্থী অভিনেতা দেবদূত ঘোষ (Devdut Ghosh)। প্রচারে নেমেই দুই পক্ষকে বিঁধেছেন তিনি। নেতা-মন্ত্রীদের দলবদলকে কটাক্ষ করে দেবদূতের মন্তব্য, “বিজেপি-তৃণমূলের কেউই দলে থেকে কাজ করতে পারছে না, বলছে…।” তবে অরূপ বনাম বাবুলের লড়াইয়ে দেবদূতকে ‘ফ্যাক্টর’ হিসেবে দেখতে নারাজ রাজনৈতিক মহলের একাংশ। অতঃপর একুশের রণক্ষেত্রে শেষমেশ, তৃণমূল (TMC)-বিজেপির (BJP) মারকাটারি যুযুধানের পাশাপাশি সংযুক্ত মোর্চা কোন দিকে ঝোঁকে সেটাই দেখার অপেক্ষায় রয়েছেন তাঁরা।

Get the latest Bengali news and Entertainment news here. You can also read all the Entertainment news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Bjps babul supriyo to contest against tmcs arup biswas

Next Story
রাজপথে ‘বাঘিনীর প্রত্যাবর্তন’, হুইলচেয়ারে মমতা, আসানসোল থেকে গর্জে উঠলেন সায়নী ঘোষSaayoni
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com