scorecardresearch

বড় খবর

করোনার কোপ, কী অবস্থায় শহরের প্রেক্ষাগৃহগুলি?

আশেপাশের পরিস্থিতি ক্রমশ বিপজ্জনক হওয়ার ইঙ্গিত মিলছে। ইতিমধ্যেই দিল্লি ও মুম্বইয়ে  সিনেমা হল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তবে কলকাতার চিত্রটা একটু অন্যরকম।

priya cinema
প্রিয়া সিনেমাহল। ফোটো- অরিজিৎ দত্তর ফেসবুক সৌজন্যে

দেশের করোনা আতঙ্কের প্রভাব শহর কলকাতায় এখনও সেভাবে নেই। তবে আশেপাশের পরিস্থিতি ক্রমশ বিপজ্জনক হওয়ার ইঙ্গিত মিলছে। সে কারণেই ৫ মার্চ একটি নির্দেশিকা জারি করেছে ইন্ডিয়ান মোশন পিকচার্স প্রোডিউসার্স অ্যাসোসিয়েশন। ইতিমধ্যেই দিল্লি ও মুম্বইয়ে  সিনেমা হল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তবে কলকাতার চিত্রটা একটু অন্যরকম।

টেলিপাড়ার শুটিং বন্ধ নিয়ে দোলাচল থাকলেও সিনেমা হলগুলিতে এখনও সেভাবে তার প্রভাব নেই। উত্তর থেকে দক্ষিণ কলকাতার সিঙ্গলস্ক্রিন ও মাল্টিপ্লেক্সে সিনেমাপ্রেমীদের ভিড় উপচে না পড়লেও কমে যায়নি তেমন। প্রাচী সিনেমা হলেও কর্ণধার বিদিশা বসু বললেন, ”আমি বাইরে রয়েছি। এখনও এ ধরণের কিছু শুনিনি। তবে বন্ধ হয়ে গেলে ভাল। কর্মীদের নিরাপত্তা নিয়েও তো ভাবতে হবে। যদিও ওদের স্যানিটাইজার ও হ্যান্ডওয়াশ ব্যবহার করতে বলেছি।”

আরও পড়ুন, করোনার জন্য শুটিং বন্ধ নিয়ে ধন্দে টেলিপাড়া

তিনি আরও বলেন, ”শেষ দু-তিন দিন ছবির শোগুলো ভালই চলেছে। মানুষের বিনোদনের রসদ তো এটাই। যে কটা বাংলা ছবি রয়েছে সেগুলোও বুকিংও ভাল। কিন্তু কোনও ছবি রিলিজ না হলে এটা কতদিন চলবে সেটাও ভাবনার বিষয়। ভীষণ দ্বন্দ্বে রয়েছি।”

নবীনা সিনেমাহলের কর্ণধার নবীন চৌখানি বলেন, ”এখনও পর্যন্ত কোনও নোটিশ আসেনি। সরকার, ইম্পা কিংবা আমাদের অ্যাসোসিয়েশন থেকে কোনও নির্দেশিকা আসেনি, তাই হল খোলাই রয়েছে। তবে ভিড় আগের থেকে কমছে। ৫০ শতাংশ সিটও বুক হচ্ছে না। ”

প্রিয়া সিনেমার প্রধান অরিজিৎ দত্ত কলকাতায় নেই। তবে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলার তরফে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, ”মুম্বই এবং দিল্লিতে সিনেমা হল বন্ধ আছে। কিন্তু কলকাতায় এখনও কোনও খবর নেই। দেখা যাক ইম্পা কী সিদ্ধান্ত নেয়। দর্শকরা হলমুখী কম হচ্ছেন। টিকিট বিক্রি কমে গিয়েছিল এখন যদিও কিছুটা ঠিক হয়েছে। কিন্তু সব ছবির মুক্তি পিছিয়ে যাচ্ছে, একরম হলে হলমালিকরা মুশকিলে পড়বেন।”

আরও পড়ুন, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের বায়োপিকের শুটিংয়ে পরম-যিশু-রুদ্র

কলকাতার মাল্টিপ্লেক্সের অবস্থাও ভাল রয়েছে। তবে এই অবস্থায় আইনক্স কর্তৃপক্ষ সতর্কতা জারি করেছে। আইনক্সের তরফে জানানো হয়েছে, বারবার হল পরিস্কার করা, দরজা, সুইচ ইত্যাদি পরিস্কার রাখার চেষ্টা করছেন তারা। সিনেমার অপারেশন টিম সমস্তটা লক্ষ্য রাখছে এবং সেই সঙ্গে সরকারি নির্দেশ মেনে চলছেন তারা।

প্রসঙ্গত, করোনার প্রভাবে উত্তর-দক্ষিণ ত্রস্ত হলেও এখনও সেভাবে আতঙ্ক ছড়ায়নি কলকাতায়। ‘ব্রহ্মা জানেন গোপন কম্মটি’- সপ্তাহান্তে কিছু কিছু সিনেমা হলে হাউসফুল হয়েছে বলেই খবর। সোমবার ইম্পা (ইস্টার্ন ইন্ডিয়া মোশন পিকচারস অ্যাসোসিয়েশন) পরিস্থিতি সামাল দিতে বৈঠকের ডাক দিলেও তা পরবর্তীতে বাতিল হয়েছে।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Coronavirus effects kolkata cinema halls are suppose to shut down