scorecardresearch

বড় খবর

‘অন্তত পুলিশের পোশাকে সমকামিতা দেখানো মেনে নিল সরকার!’, রাজকুমার-ভূমিকে ‘বাধাই’ ওনিরের

হর্ষবর্ধন কুলকারনির সাহসকে কুর্নিশ পরিচালক অনিরের

রাজকুমার এবং ভূমির নয়া ছবিকে শুভেচ্ছা অনিরের

সমকামী মানুষদের দেখলেই নাক সিটকানো এখনও বেশ কিছু মানুষের চিরাচরিত স্বভাব। তথাকথিত সমাজের অন্দরে ঝাঁকলে দেখা যাবে, কি বিভৎস পরিমাণে মানসিক নির্যাতনের শিকার তারা! গতকাল রাজকুমার রাও ( Rajkumar Rao ) এবং ভূমি পেডনেকর ( Bhumi Pednekar ) অভিনীত ‘বাধাই দো’ এর ট্রেলার লঞ্চের পর থেকেই, হাজারো প্রশ্নের ভিড় দর্শকমহলে। নজর কেড়েছে রাজকুমারের পুলিশি ইউনিফর্ম এবং ফের একবার হিন্দি সিনেমার নায়িকাদের ধারাবাহিকতাকে ভেঙে গুঁড়িয়ে মাইলস্টোন সেট করেছেন ভূমি। তবে তাদের এই কার্যকলাপে বেজায় খুশি পরিচালক অনির। কিন্তু কেন? 

গল্পের প্রেক্ষাপট জুড়ে একজন পিই শিক্ষিকা ( ভূমি পেডনেকর ) এবং একজন পুলিশ ( রাজকুমার রাও ) – দুজনকে একেবারে জোর করে বিয়ের পিড়িতে বসানোর যত্রতত্র চেষ্টা চালাচ্ছে পরিবার। তবে পাত্র এবং পাত্রী উভয়েই যখন সমকামী, বিয়ে হবে কী করে? পরিবারের কাছ থেকে এই তথ্য একেবারেই লুকিয়েছিলেন দুজন। এদিকে ট্রেলার লঞ্চের পর, পরিচালক অনির উৎসাহে ডগমগ। বলছেন, পুলিশি বর্দি পড়ার পরেও যে সমকামীতা দেখানোর ছাড়পত্র পেয়েছে এই ছবি সেটি ভেবেই তিনি যথেষ্ট খুশি। শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সিনেমার সঙ্গে যুক্ত সকল কলাকুশলীদের। তবে হঠাৎ তার এমন মন্তব্যের কারণ? 

পরিচালক নিজেও বেশ কিছুদিন ধরেই সমকামীতার ওপর নির্ভর করেই মেজর জে সুরেশের জীবনভিত্তিক ছবি বানানোর চেষ্টা করছিলেন, তবে সেটিকে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকেই বানচাল করে দেওয়া হয়। একজন দেশীয় সেনাবাহিনীর চরিত্র নিয়ে পর্দায় এমন কিছু উপস্থাপনের বিষয়টিকে মান্যতা দেওয়া হয়নি সেই মুহূর্তে। প্রসঙ্গত এক সাক্ষাৎকারে তিনি জানান, পূর্বে তারই নির্মিত একটি ছবি যেখানে পুলিশ অফিসারকে একজন নাগরিককে যৌণ নিপীড়িত করতে দেখা যায়, সেটি হিন্দি ফিচার ফিল্ম হিসেবে জাতীয় পুরস্কার লাভ করে। তবে জে সুরেশের ওপর নির্মিত সিনেমার প্রসঙ্গে কোনও আলোচনা এবং সংলাপ ছাড়াই সেটিকে প্রত্যাখ্যান করা হয়েছে। 

শুধু তাই নয়, সিনেমাটিকে আইনের চোখে বৈধ নয় বলেই জানানো হয়। পরিচালকের বক্তব্য, ঔপনিবেশিক আইনে সমকামীতা অবৈধ হলেও বিশ্ব জুরে এটিকে এখন খুব স্বাভাবিক ভাবেই নেওয়া হয়। প্রচুর দেশে এমন সেনাবাহিনী রয়েছে, যাদের মধ্যে সমকামীদের দেখতে পাওয়া যেতেই পারে। পুরুষতান্ত্রিক সমাজে এটি একটি নিরাপত্তাহীন সমস্যা, এটিকে অবশ্যই সকলের সামনে তুলে ধরা উচিত। বলাই বাহুল্য, রাজকুমার অভিনয় করেছেন একজন পুলিশ অফিসার হিসেবে, তারপরেও যে সিনেমাটি নিয়ে শোরগোল হয়নি তাতেই খুশি পরিচালক।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Director onir congratulate team badhaai do for not banning the film as a illegal representation