scorecardresearch

বড় খবর

অষ্টমীতে ওঁর দেওয়া শাড়িতে অঞ্জলি, নবমীতে বিদেশ পাড়ি: সন্দীপ্তা

এই পুজোটা কেন স্পেশ্যাল সন্দীপ্তা সেনের কাছে? জানালেন অভিনেত্রী।

অষ্টমীতে ওঁর দেওয়া শাড়িতে অঞ্জলি, নবমীতে বিদেশ পাড়ি: সন্দীপ্তা
পুজো প্ল্যান শেয়ার করলেন সন্দীপ্তা সেন

তারকাদের পুজো:

পুজো মানেই বাঙালির কাছে কবজি ডুবিয়ে খাওয়া-দাওয়া, দেদার গান-গল্প, আড্ডা আর অবশ্যই সিনেমা দেখা। সারাবছর শুটিং, সিরিজ, সিনেমার প্রচার কাজের ব্যস্ততা দূরে সরিয়ে পুজোর আমেজে মেতে ওঠেন তারকারা। পায়ের তলায় সর্ষে দিয়ে এপ্রান্ত থেকে ওপ্রান্ত। সন্দীপ্তা সেনও সেই তালিকার অন্যতম। পুজোটা কীভাবে কাটানোর পরিকল্পনা করেছেন অভিনেত্রী? ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলার তরফে খোঁজ নিলেন সন্দীপ্তা ভঞ্জ

“পুজোতে প্রতি বছরই বিদেশে ঘুরতে যাই। তবে এবার একটু নিয়ম ভেঙে নবমীতে যাচ্ছি। ইউরোপের বেশ কয়েকটা জায়গায় ঘুরব। তার আগে বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে প্রচুর খাওয়া-দাওয়া, আড্ডার প্ল্যান আছে। একটা দিন মা-বাবাকে নিয়ে মধ্য়াহ্নভোজে যাব কোথাও।”, জানালেন সন্দীপ্তা। আর অষ্টমীর দিন রয়েছে বিশেষ প্ল্যান। মনের মানুষ সৌম্যর (মুখোপাধ্যায়) দেওয়া শাড়ি পরবেন নায়িকা। জুটিতে কোথায় অঞ্জলি দেবেন? জানালেন সেকথাও, “আমার এক দিদির বাড়ির সামনেই খুব ভাল একটা পুজো হয়, একেবারে ওদের নিজেদের বাড়ির মতোই। সেখানেই অঞ্জলি দেব।”

শৈশবের স্মৃতিতে ডুব দিয়ে অভিনেত্রী জানালেন, “নস্ট্যালজিয়া বলতে ছোটবেলায় পুজোর সময়ে হরিশপার্কে গিয়ে প্রচুর রাইডস চড়তাম। আমি একেবারে রাইড ফ্রেক বলতে যা বোঝায়। সেটা বড় হয়ে খুব মিস করি। আমার তুতো ভাই-বোনরা সকলেই বিদেশে থাকে। তাই বহুবছর ধরেই পুজোর সময়টায় ওদের সঙ্গে দেখা হয় না। সেই আড্ডা পর্ব হয় ক্রিসমাসের সময়টায়।”

তবে এবার পুজো আরও একটা কারণে স্পেশ্যাল সন্দীপ্তা সেনের কাছে। কারণ, পঞ্চমীর দিন রিলিজ করছে ‘বোধন’। সেই সিরিজের খবর দিতে গিয়ে ততোধিক উচ্ছ্বসিত অভিনেত্রী। বললেন, “সিনেমা হোক বা সিরিজ, পুজো রিলিজ মানে সেটা সবসময়েই আনন্দের। তাই ‘বোধন’ নিয়ে আমি খুব উচ্ছ্বসিত। রাকা সেন নামে আমি যে চরিত্রটায় অভিনয় করেছি, সেটা ভীষণ চ্যালেঞ্জিং। আর বোধন মানেই তো দেবী শক্তির জাগরণ বা মনের জাগরণ। যে বিষয়গুলো দুর্গাপুজোর সঙ্গে ভীষণভাবে যুক্ত। তাই দর্শকদেরও ভাল লাগবে বলে আশা করি।”

দুর্গাপুজো মানেই কেনাকাটা। শপিংয়ে কতটা কেতাদুরস্থ ‘দুর্গা’ সন্দীপ্তা? বললেন, “পুজোর কটা দিন এথনিক পরি। তবে হ্য়াঁ, ফ্যাশনের পাশাপাশি আমি সবসময়ে কমফর্টের বিষয়টাও মাথায় রাখি। মসলিন, মলমলের শাড়ি, কুর্তি, সালোয়ারও থাকে। এবারেও যেরকম সাদা রঙের মলমলের একটা শাড়ি কিনেছি। এখনও পুজোর শপিং পুরোপুরি হয়ে ওঠেনি। তবে মা-বাবার জন্য কিনে ফেলেছি। অষ্টমীর দিন সৌম্যর দেওয়া শাড়ি পরে অঞ্জলি দেব।”

[আরও পড়ুন: পুজোয় নতুন ক্যাফে খুলছি, ওখানেই আড্ডা জমাব: সৌরভ]

‘দুর্গা’ সিরিয়াল থেকেই টেলিদর্শকদের মনের মণিকোঠায় জায়গা করে নেন সন্দীপ্তা সেন। অনেকেই তাঁকে আজও ‘দুর্গা’ বলেই চেনেন। আর দুর্গাপুজো নিয়েই যখন কথা, সেইপ্রসঙ্গে একটা মজার ঘটনাও শেয়ার করলেন অভিনেত্রী। সন্দীপ্তার কথায়, “প্রথম প্রথম বুঝতাম না যে সিরিয়ালের চরিত্রদের নিয়ে দর্শকদের কতটা উন্মাদনা। সেপ্টেম্বর মাসে শুরু হয়েছিল দুর্গা সিরিয়ালটা। আর অক্টোবর মাসে দুর্গাপুজো। তো প্রতিবছরের মতো সেবারও বন্ধুদের সঙ্গে ম্যাডক্স স্কোয়ারে গিয়েছিলাম। ফুচকা খেতে গিয়ে দেখি আমাকে দেখার জন্য সেখানে এত লোকের ভিড় হয়ে গেছে যে গোগ্রাসে প্রথম ফুচকাটা মুখে পুরেই দৌঁড়ে গাড়িতে ওঠে পড়তে হয়েছিল।”

“আরেকটা ঘটনা আমার কাছে খুবই স্পেশ্যাল। একটি বাচ্চা মায়ের সঙ্গে ম্যাডক্সে পুজো দেখতে এসেছে। সে প্রতিমার দিকে না তাকিয়ে আমার দিকে পিছন ঘুরে মাকে ডেকে বলছে- ‘মা ওই দেখো দুর্গা।’সেটা আমার খুব বড় পাওনা”, স্মৃতির পাতা ঘেঁটে জানালেন সন্দীপ্তা সেন।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Durga puja 2022 sandipta sen shares puja plan