scorecardresearch

বড় খবর

‘শৃঙ্খলহীন স্বপ্ন দেখত সুশান্ত, সিংহের মতো হৃদয় নিয়ে লড়ে যেত’

সুশান্ত সিং রাজপুতের স্মৃতিতে তাঁর পরিবারের পক্ষ থেকে গঠন করা হল একটি বিশেষ ফাউন্ডেশন, সিনেমা, খেলাধুলো ও বিজ্ঞানের জগতে নতুন প্রতিভাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য।

Family declares Sushant Singh Rajput Foundation to support young talents
সুশান্তের ছবি ইনস্টাগ্রাম থেকে সংগৃহীত।

সুশান্তের এই অকালে চলে যাওয়ার সঙ্গে একটু একটু করে মানিয়ে নিচ্ছে তাঁর পরিবার। বিজ্ঞান, খেলাধুলো ও সিনেমা– এই তিনটি ক্ষেত্রের প্রতিই সুশান্তের আবেগ ছিল অফুরান। সেই আবেগের কথা মাথায় রেখেই শনিবার অভিনেতার পরিবারের পক্ষ থেকে একটি বিবৃতি প্রকাশ করা হয়। সুশান্ত ছিলেন একজন উন্মুক্ত মনের মানুষ যিনি নিজের স্বপ্ন সফল করতে কঠোর পরিশ্রম করেছেন বরাবর, এমনটাই বলা হয়েছে সেই বিবৃতিতে।

”সে ছিল স্বাধীন মনের মানুষ। চনমনে, ঝকঝকে আর কথা বলতে ভালো বাসত খুব। পৃথিবীর সব কিছুর প্রতি তার কৌতূহল ছিল। শৃঙ্খলহীন স্বপ্ন দেখত সুশান্ত আর সিংহের মতো হৃদয় নিয়ে লড়ে যেত। সব সময় প্রাণখোলা হাসিটি লেগে থাকত তার মুখে। সে ছিল আমাদের পরিবারের গর্ব, আমাদের প্রেরণার উৎস”, লেখা হয়েছে বিবৃতিতে।

আরও পড়ুন: ‘সুশান্ত আমায় মানুষের পাশে থাকতে শিখিয়েছিল’, স্মৃতিমেদুর জ্যাকলিন

৩৪ বছরের সুশান্ত সিং রাজপুতকে তার মুম্বইয়ের বাড়িতে মৃত অবস্থায় আবিষ্কার করা হয় গত ১৪ জুন। ‘কাই পো চে’, ‘এম এস ধোনি দ্য আনটোল্ড স্টোরি’ ও ‘ছিছোড়ে’ অভিনেতার এই আকস্মিক মৃত্যুতে বলিউড ও বলিউড দর্শক স্তম্ভিত ও শোকাহত। পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে সুশান্তের মৃত্যু পরিবারে যে শূন্যতা সৃষ্টি করেছে তা অপূরণীয়।

”আমরা এখনও বিশ্বাস করতে পারছি না যে ওর কণ্ঠস্বর, ওর হাসির শব্দ আর শুনতে পাব না। আর কোনওদিনই ঝকঝকে সেই দৃষ্টি চোখে পড়বে না। বিজ্ঞান নিয়ে তার অবিশ্রান্ত বকবকানিও আর শোনা যাবে না কখনও। চিরকালের মতো এই পরিবারে একটা শূন্যতা তৈরি হল। কোনও কিছুতেই সেই শূন্যতা ঢাকা যাবে না।”- এই সময়ে সুশান্তের অসংখ্য গুণমুগ্ধ যে ফ্যানেরা পরিবারের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে, তাদেরও ধন্যবাদ জানানো হয়েছে পরিবারের পক্ষ থেকে।

আরও পড়ুন: সুশান্তের সঙ্গে মিষ্টি স্মৃতি উসকে দিল মৌনীর কথা

পাঁচ ভাইবোনদের মধ্যে সুশান্তই ছিলেন সবচেয়ে ছোট। ২০০২ সালে তাঁর মা-কে হারিয়েছিলেন সুশান্ত। প্রয়াত অভিনেতার স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে, পরিবারের পক্ষ থেকে তৈরি করা হবে একটি জনকল্যাণমূলক বডি– সুশান্ত সিং রাজপুত ফাউন্ডেশন। সিনেমা, বিজ্ঞান ও খেলাধুলো জগতের নতুন প্রতিভাদের পাশে দাঁড়াবে এই ফাউন্ডেশন, এমনটাই জানানো হয়েছে বিশেষ বিবৃতিতে।

এছাড়া পাটনার রাজীব নগরের যে বাড়িতে সুশান্তের ছোটবেলা কেটেছে, সেই বাড়িটিকে সংগ্রহশালা হিসেবে সাধারণের জন্য উন্মুক্ত করা হবে। অভিনেতার ব্যক্তিগত সংগ্রহ, তাঁর বইপত্র, তাঁর প্রিয় টেলিস্কোপ, ফ্লাইট সিমুলেটর– সবই থাকবে সেখানে। পরিবারের সকলের কাছে তিনি ছিলেন আদরের গুলশন। তাঁর সমস্ত সোশাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টগুলি এখন থেকে লেগাসি অ্যাকাউন্ট হিসেবে পরিচালনা করবে তাঁর পরিবার।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Family declares sushant singh rajput foundation to support young talents