scorecardresearch

বড় খবর

সর্বকালের সেরা ছবি সত্যজিতের ‘পথের পাঁচালি’, প্রথম দশে ঋত্বিক-মৃণালও

তালিকায় সত্যজিতের ২টি ছবি। দ্বিতীয় ও তৃতীয় ঋত্বিক-মৃণাল। বাকিরা কে কত নম্বরে? দেখুন।

সর্বকালের সেরা ছবি সত্যজিতের ‘পথের পাঁচালি’, প্রথম দশে ঋত্বিক-মৃণালও
সর্বকালের 'সেরা ১০' ভারতীয় ছবির শীর্ষে সত্যজিতের পথের পাঁচালি, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে ঋত্বিক-মৃণাল

ভারতীয় চলচ্চিত্র ইতিহাসে বাংলার জয়জয়কার। সেরা ১০ সিনেমার তালিকার শীর্ষে সত্যজিৎ রায়ের ‘পথের পাঁচালি’। শুধু তাই নয় তালিকায় ঠাঁই পেয়েছে মাণিকবাবু পরিচালিত ‘চারুলতা’ও। তবে পিছিয়ে নেই ঋত্বিক ঘটক, মৃণাল সেনের মতো বিশ্ববরেণ্য পরিচালকরাও। সত্যজিৎ রায়ের পরই দ্বিতীয় স্থানে ঋত্বিক ঘটক এবং তৃতীয় স্থানে মৃণাল সেন। বাংলা সিনেমার ‘দুর্দিনে’ এর থেকে আর ভাল খবর কী-ই বা হতে পারে?

সিনেপ্রমীদের কথায় বাংলার তিনমূর্তি-ই এখনও সর্বকালের সেরা ভারতীয় সিনেমার তালিকায় দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন। সম্প্রতি ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অফ ফিল্ম ক্রিটিকস-এর তরফে ‘ইন্ডিয়া পোল’ নামে একটি সমীক্ষা চালানো হয়। সেই সমীক্ষায় সমালোচকদের মতামতের ভিত্তিতেই উঠে এসে সত্যজিৎ, ঋত্বিক, মৃণালের শ্রেষ্ঠ সৃষ্টির নাম। শুক্রবারই সেই রিপোর্ট প্রকাশ্যে এসেছে। য দেখে ইতিমধ্যেই খুশির হাওয়া বঙ্গ নেটিজেনদের সোশ্যাল ওয়ালে।

মেঘে ঢাকা তারা

সিনে-সমালোচক তথা বিশেষজ্ঞদের মতে, সর্বকালের সেরা ১০ ভারতীয় সিনেমার তালিকায় প্রথম সত্যজিতের ‘পথের পাঁচালি’। ১৯৫৫ সালে নানা প্রতিকূলতার মুখে পড়েও যে ছবি তৈরি করে আন্তর্জাতিক সিনে ময়দানে ভারতকে তুলে ধরেন মাণিকবাবু। এই সিনেমার হাত ধরেই ভারতীয় সিনে-ময়দানে নিও-রিয়ালিজম আসে। জানা গিয়েছে, গোপন এই সমীক্ষায় ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অফ ফিল্ম ক্রিটিকস- কমিটির ৩০ জন সিনে বিশেষজ্ঞ ভোট দিয়েছে ‘পথের পাঁচালি’কে।

মৃণাল সেনের ‘ভূবন সোম’

এদিকে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ঋত্বিক ঘটকের ‘মেঘে ঢাকা তারা’। তৃতীয় স্থানে মৃণাল সেন পরিচালিত হিন্দি সিনেমা ‘ভূবনসোম’। মুক্তি পেয়েছিল ১৯৬৯ সালে। যে ছবিতে উৎপল দত্ত অভিনয় প্রশংসিত হয়েছিল বিশ্বের দরবারে। চতুর্থ স্থানে আদুর গোপালকৃষ্ণণের মালয়ালম সিনেমা ‘এলিপ্পাত্থায়াম’। পঞ্চম স্থানে কন্নড় পরিচালক গিরীশ কাশারাভাল্লির ‘ঘাটশ্রদ্ধা’। ষষ্ঠ স্থানে এমএস সথ্যুর ‘গরম হাওয়া’। এরপরই সপ্তম স্থানে রয়েছে সত্যজিৎ রায়ের ‘চারুলতা’। যে ছবিতে অভিনয় করে মুগ্ধ করেছিলেন মাধবী মুখোপাধ্যায়।

[আরও পড়ুন: ‘অনীক দত্ত-র চামচা..’, জিতু কামালকে ভয়ঙ্কর কটাক্ষ! পাল্টা দিলেন অভিনেতা]

তালিকার অষ্টম স্থানে শ্যাম বেনেগালের ‘অঙ্কুর’। মুক্তি পেয়েছিল ১৯৭৪ সালে। তারপরই গুরু দত্তের ‘পিয়াসা’। এবং ১০ নম্বরে ভারতীয় সিনেমার অন্যতম মাইলস্টোন ছবি অমিতাভ-ধর্মেন্দ্র জুটির ‘শোলে’। যা পরিচালনা করেন রমেশ সিপ্পি।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Fipresci india satyajit rays pather pachali declared as best ritwik ghatak mrinal sen also in list