scorecardresearch

বড় খবর

অসুস্থ ধর্মেন্দ্র, বিবাহবার্ষিকীর আগেই হাসপাতালে প্রবীণ অভিনেতা, কী বলছেন হেমা মালিনী?

কেমন আছেন ধর্মেন্দ্র?

Dharmendra’s health update, Dharmendra hospitalized, Hema Malini, Dharmendra-Hema Malini marriage anniversary, হেমা মালিনী, ধর্মেন্দ্র, হাসপাতালে ধর্মেন্দ্র, হেমা-ধর্মেন্দ্রর বিবাহবার্ষিকী, bengali news today
হেমা-ধর্মেন্দ্র

সম্প্রতি মুম্বইয়ের এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন ধর্মেন্দ্র। শুট করতে গিয়েই বিপত্তি! মারাত্মক পিটে ব্যথা। এরপর কোনওরকম ঝুঁকি না নিয়ে পরিবারের তরফে বর্ষীয়াণ অভিনেতাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এদিকে, ২মে ধর্মেন্দ্র-হেমা মালিনীর বিবাহবার্ষিকী। তার আগেই অসুস্থ হয়ে পড়েন। সোমবার দেওল পরিবারের ঘনিষ্ঠ সূত্র মারফৎ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানতে পারে যে, ধর্মেন্দ্র আপাতত সুস্থ রয়েছেন।

জানানো হয়েছে, পিঠের ব্যথায় ভুগছিলেন ধর্মেন্দ্র। যার জন্যে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়। তবে এখন সুস্থ রয়েছেন। তবে দিন চারেক হাসপাতালে থাকার পর সোমবারই বাড়িতে ফিরেছেন বলিউডে প্রবীণ অভিনেতা। টুইটে সেখবর জানিয়েছেন খোদ স্ত্রী হেমা মালিনী। শুধু তাই নয়, ধর্মেন্দ্র নিজেও একটি ভিডিও শেয়ার করে বিশেষ বার্তা দিয়েছেন। কেন আচমকাই অসুস্থ হয়ে পড়লেন তিনি? ভিডিওতে সেকথাও জানান তিনি।

ধর্মেন্দ্রর মন্তব্য, “বন্ধুরা, বেশি কাজ করবেন না। নিজের শরীরের ক্ষমতাটা আগে বুঝুন। আমি মাত্রাতিরিক্ত কাজ করেই অসুস্থ হয়েছিল। পিঠের ব্যথায় ভুগে ২-৪ দিন হাসপাতালে কাটিয়ে এলাম। খুব কষ্ট পেয়েছি। আর এই ঘটনা থেকেই পাঠ নিলাম।” পাশাপাশি অনুরাগীদের ভালবাসা, প্রার্থনার জন্য ধন্যবাদও জানালেন অভিনেতা।

[আরও পড়ুন: ‘বেলাশুরু’র ট্রেলারে প্রেমের উদযাপন, চোখে জল আনবে সৌমিত্র-স্বাতীলেখার উপস্থিতি, দেখুন]

এদিকে বিবাহবার্ষিকীর সকালে স্বামীর হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফেরায় খুশি হেমা মালিনীও। টুইটে জানালেন, “ধর্মেন্দ্রর হাজার হাজার অনুরাগীদের ধন্যবাদ জানাতে চাই, যে বা যাঁরা গত কদিনে ওঁর শারীরিক পরিস্থিতির ব্যাপারে অনবরত খোঁজ নিয়েছেন। এখন ও অনেকটাই সুস্থ রয়েছে এবং বাড়িও ফিরেছে। ঈশ্বর মুখ তুলে চেয়েছেন।”

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Hema malini shares update about dharmendras health after his hospitalisation