scorecardresearch

বড় খবর

‘অতিমারিই ভিলেন’, বক্স অফিসে ‘৮৩’ মুখ থুবড়ে পড়ায় আক্ষেপ কবীর খানের

স্ক্রিনিং নেই, জনগণ ভয়ে – অতিমারি নিয়ে মুখ খুললেন পরিচালক

কবীর খান

 বেশকিছুদিন হল রিলিজ করেছে ৮৩’ ( 83 The film )। কবীর খানের ( Kabir Khan ) পরিচালনায় ১৯৮৩ এর বিশ্বকাপের প্রেক্ষাপটে তৈরি এই সিনেমা সেই যুগের মানুষদের তো বটেই, তবে অল্প বয়সিদের মনেও জায়গা করে নিয়েছে। তবে বাঁধ সাধলো করোনা ভাইরাসের জের। দিল্লি, হরিয়ানা সর্বত্রই হলের দরজা একেবারে বন্ধ। সঙ্গেই বেশ কিছু জায়গায় ৫০% আসন নিয়ে অনুমতি মিললেও ভাইরাসের রোষে মানুষ গৃহবন্দি হয়েছেন। এর মধ্যেই ছবি নিয়ে মুখ খুলেছেন পরিচালক কবীর খান।

এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, “আমরা মহামারীর শিকার! এতদিন পরে ছবি রিলিজ করার পরেও বেশিদিন মানুষকে আনন্দ দিতে পারলো না। যথেষ্ট উচ্ছসিত সিনেমাটি তৈরি করতে পেরে, মানুষ উপভোগও করেছেন, তবে যারা এখনও দেখে উঠতে পারেননি তাদের কথা ভেবেই খারাপ লাগছে। দুই বছর ধরে সঠিক সময়ের অপেক্ষা তারপরেও বেশিদিন বড়পর্দায় থাকল না এটিই হতাশার কারণ!” তার বক্তব্য, মহামারী শুধু সিনেমাহল বন্ধ করেছে এমন নয়, মানুষকে বাইরে বেরতে গেলেও ভাবতে হয়, ভয় কাজ করে। ফলেই আর লড়াই করার কোনও সুযোগই নেই।

সূত্র ধরেই কবীর জানান, রিলিজের দিনই আক্রান্তদের সংখ্যা বেড়ে বিশাল আকার নিল। তার ৪৮ ঘণ্টা আগেই ইঙ্গিত পাওয়া গেছিল বটে, তবে তখন সবকিছু ভেস্তে দেওয়া সম্ভব ছিল না। এক কথায় ফিঙ্গার ক্রস রেখেই সম্পূর্ণ টিম এগিয়েছিল। প্রথমদিনের পরেই জানা যায় গুজরাট, হরিয়ানা এবং ইউপিতে নাইট কারফিউ জারি করা হয়। ফলেই নাইট শো বন্ধ করতে বাধ্য হয় সিনেমা হল কর্তৃপক্ষ। তারপরেই দিল্লিতে সিনেমাহল সম্পূর্ণ বন্ধ করে দেওয়া হয়, তখন থেকেই একরকম ভেঙে পড়েন সকলে। 

দর্শকদের অফুরন্ত ভালবাসা পেয়েছে রণবীর সিং ( Ranveer singh ) অভিনীত ৮৩’। বর্তমানে দাঁড়িয়ে অনেক শো বন্ধ হয়ে গিয়েছে, মানুষ হলমুখী হচ্ছেন না তবে বিশ্বব্যাপী ছবি বানিজ্য ভালই করেছে। ক্রিটিক থেকে সাধারণ মানুষ প্রশংসায় পঞ্চমুখ অভিনেতাদের। প্রতিটা চরিত্র রিল নাকি রিয়েল বোঝা দায়। 

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Kabir khan spoken up how pandemic effected 83 the halls were shut down