scorecardresearch

বড় খবর

‘বুদ্ধবাবু কথা বলতেন না! মমতাদি ফোন করে খোঁজ নেন’, মুখ্যমন্ত্রীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ কৌশিক

‘মমতাদির কাছে শিল্পীরা গুরুত্ব পান…’ বলছেন কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়।

‘বুদ্ধবাবু কথা বলতেন না! মমতাদি ফোন করে খোঁজ নেন’, মুখ্যমন্ত্রীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ কৌশিক
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশংসায় পঞ্চমুখ কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়

“মমতার কাছে শিল্পীরা গুরুত্ব পান। এটাই বড় প্রাপ্তি”, বলছেন কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়। ‘দিদি’ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশংসায় পঞ্চমুখ পরিচালক। কথা বললেন বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য সম্পর্কেও।

২০১৬ সালে তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে টিটাগড়, দমদমে বক্তৃতা দিয়েছিলেন কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়। রাজনীতির সঙ্গে তিনি সরাসরি যুক্ত না থাকলেও বর্তমানে শিল্পীরা কিন্তু ব্যক্তিগত রাজনৈতিক মতাদর্শ নিয়ে বেজায় প্রকট এবং সরবও। একুশের বিধানসভা নির্বাচনেই টলিউড যোগসূত্র তার প্রমাণ। এবার সংবাদমাধ্যম চ্যানেলে রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বদের নিয়ে মুখ খুললেন পরিচালক কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়।

পরিচালক অবশ্য বছরখানেক আগের বক্তৃতা দেওয়ার কথা সংশ্লিষ্ট চ্যানেলে স্বীকার করে নিলেও স্পষ্ট জানিয়েছেন যে, রাজনীতি তাঁর জায়গা নয়। অদূর ভবিষ্যতেও সেই ময়দানে নামতে নারাজ। এপ্রসঙ্গে কৌশিকের মন্তব্য, রাজনীতি তাঁর শারীরিক কিংবা মানসিক, কোনও দিক থেকেই হজম হবে না। সেটা রাজনৈতিক রং-দল নির্বিশেষে।

চূর্ণী গঙ্গোপাধ্যায়ের বাবার সঙ্গে একই শ্রেণীতে পড়তেন রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। সেই প্রেক্ষিতেই চূর্ণীর পরিবারের সঙ্গে তাঁর আগাগোড়াই সুসম্পর্ক। এদিকে কৌশিকের শ্বশুরবাড়িও আদ্যপান্ত কমিউনিজমে বিশ্বাসী। তবে একথা জানা সত্ত্বেও বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য কোনওদিন চূর্ণীর স্বামী হিসেবে কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের সঙ্গে কথা বলতেন না। তবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আপন করে নেওয়ার কথা কিন্তু শোনা গেল পরিচালকের মুখেই।

[আরও পড়ুন: স্বজনকেই যদি পোষণ না করা হয়, তাহলে কাকে পুষব?: কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়]

কৌশিক জানান, “মমতাদি সবার সঙ্গে কথা বলেন। আমি জাতীয় পুরস্কার পাওয়ার পর নিজে ফোন করেছিলেন। মুখ্যমন্ত্রী ফোন করবেন একথা আমি কখনও ভাবতেও পারিনি। ওঁর কাছে শিল্পীরা গুরুত্ব পেয়েছেন,এটাই আমাদের প্রাপ্তি।” অন্যদিকে বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য প্রসঙ্গে তাঁর মন্তব্য, “আমি চূর্ণীর স্বামী জানা সত্ত্বেও উনি কোনওদিন আমার সঙ্গে কথা বলেননি।”

বাংলা বিনোদন ইন্ডাস্ট্রির অনেক শিল্পীদেরই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে সুসম্পর্ক রয়েছে। তৃণমূল আমলে শিল্পী, কলাকুশলীদের উৎসাহ জোগাতে বিশেষ সম্মান, পুরস্কারের আয়োজনও করা হয় প্রতিবছর। টলিউডের অনেক তারকার কাছেই ‘দিদি’ অভিভাবক-সম। বরাবর সকলের বিপদে-আপদে খোঁজ নেন। কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের ক্ষেত্রেও তার অন্যথা হয়নি। চূর্ণীর পরিবার বাম মতাদর্শে বিশ্বাসী জেনেও অভিনেত্রী-পরিচালকের দাদু অসুস্থ থাকাকালীন ফোন করে খোঁজ নিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একথা জি ২৪ ঘণ্টার এক অনুষ্ঠানে নিজেই জানান কৌশিক।

২৬ আগস্ট, শুক্রবার গঙ্গোপাধ্যাায়দের বিগ ফ্রাইডে রিলিজ। মুক্তি পাচ্ছে ‘লক্ষ্মী ছেলে’। যে সিনেমার সুবাদে প্রথমবার চূর্ণী, কৌশিক ও উজান একসঙ্গে কাজ করলেন।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Kaushik ganguly praises mamata banerjee