scorecardresearch

বড় খবর

‘আইটেম নম্বরে যৌন সুড়সুড়ি দিতে আপত্তি নেই’, স্বীকারোক্তি মালাইকার

“বিবাহবিচ্ছেদের পর জীবনের সবথেকে কঠিন সময় কাটিয়েছি”, ফাঁস করলেন অভিনেত্রী

প্রতীকী ছবি

বলিউড মানেই একসময়ের সিরিয়াস রোমান্স, ডেডলি ড্রামা এবং গানের আড়ালে এক নিদারুণ উপস্থাপনা। সারা বিশ্বে বলিউডের প্রেমী কিন্তু অনেকেই, সবথেকে বেশি হিন্দি সিনেমার গানের সঙ্গেই কোমর দোলাতে পছন্দ করেন মানুষ। গানের কথা বললেই বেশ কিছু সিনেমায় আইটেম সং কিন্তু নজর কাড়ার মত, এবং তার অসাধারণ প্রতিক্রিয়া থেকে দর্শক মননে স্থান পাওয়া – অভিনেত্রী মালাইকা অরোরা ( Malaika Arora ) কিন্তু আইটেম গানের বেশ পরিচিত মুখ। তবে তার শুরুর দিনগুলো ঠিক কেমন ছিল? জানালেন অভিনেত্রী নিজেই। 

শুরু হয়েছিল দিল সে ছবির সেই বিখ্যাত গান ছাইয়া ছাইয়া দিয়ে। তারপর একে একে ‘মুন্নী বদনাম’, কিংবা ‘আনারকলি ডিসকো চলি’, তার নাচের ভঙ্গি পর্দায় আগুন ধরাতে একাই একশো! তবে প্রতিকূলতা এবং নেতিবাচক মন্তব্য যে তিনি যথেষ্ট শুনেছেন তার খোলাসা করেছেন নিজেই! সাম্প্রতিক একটি সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, বেশিরভাগ সময় তার আইটেম সঙ্গে দেখেই লোকজন নাক সিটকাতেন। কেউ কেউ এমনও বলতেন, ‘তোমাকে আপত্তিজনক ভাবে দেখানো হচ্ছে, একরকম সুড়সুড়ি দেওয়া হচ্ছে যেন!’ তবে সমস্ত মন্তব্যকেই বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে এগিয়ে গেছেন মালাইকা। তার বক্তব্য, ‘কতটা নিয়ন্ত্রণে থাকতে হয় সেটি আমার জানা ছিল। এবং তারপরেও আমি যদি ইচ্ছার বস্তু হয়ে রূপালী পর্দায় থেকে যেতে পারি, তাহলে আপত্তি কোথায়?’  

মালাইকা জানান, একেকটি ছবিতে কত চেনা মানুষের সঙ্গে কাজ করেছেন। দিল সে’র ছবি বলতে গেলেই বন্ধু ফারহা, শাহরুখ এবং মনিরত্নমের মত পরিচালকের সঙ্গে কাজ করার লোভ ছাড়তে পারেননি তিনি। ভারতীয় চলচ্চিত্র মানেই জীবনের উদযাপন, অনেকসময় বাস্তবের থেকে সিনেমার চরিত্রকে বড় করে দেখেন দর্শকরা। তবে এখন অনেকটা কমেছে সেই চিন্তাধারা, তবে আইটেম নাম্বারে পারফর্ম করে যে একেবারেই তার কোনও গিলটি নেই তা সাফ জানিয়েছেন অভিনেত্রী! 

এতো গেল, প্রফেশনাল জীবন! ব্যক্তিগত জীবনেও কম কাঠখড় পোড়াননি অভিনেত্রী। তিনি জানান, যখন বিবাহ বিচ্ছেদের মধ্যে দিয়ে তিনি যাচ্ছিলেন, সবকিছু কেমন ধোঁয়াশা লাগছিল। পারিবারিক সমস্যা, একা থাকার সমস্যা, ছেলের ভবিষ্যতের চিন্তা নিয়ে প্রতিনিয়ত দিন কাটিয়েছেন। শুধু তাই নয়, সামনের দিনে সমাজের সঙ্গে কীভাবে মোকাবিলা করবেন সেই দুশ্চিন্তাও কম ছিল না। 

তবে সারাজীবন কাজ করে যাবেন বলেই জানিয়েছেন তিনি। জীবনের সবথেকে বড় সুখ এবং মোটিভেশন তিনি একেবারেই বাদ দিতে পারবেন না। পরিবারের জন্য, ছেলের জন্য এমনকি নিজের ভাল থাকার জন্য কাজ থেকে দূরে সরছেন না তিনি।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Malaika arora spoken up about her item songs shooting and experience from society