scorecardresearch

বড় খবর
এক ফ্রেমে কেন্দ্রীয় কয়লামন্ত্রী ও কয়লা মাফিয়া, বিজেপিকে বিঁধলেন অভিষেক

প্রচার পাওয়ার জন্যই #MeToo, দাবি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের প্রধান জুরির

#মিটু আন্দোলন নিয়ে বিনোদ বলেছেন, এটা মানুষের খামখেয়ালি আচরণের বহিঃপ্রকাশ। প্রচারের আলোয় আসতেই এসব করা হচ্ছে। তবে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে মানুষ সব ভুলে যাবে।

প্রচার পাওয়ার জন্যই #MeToo, দাবি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের প্রধান জুরির
বিনোদ গনাত্রা, ছবি: ফেসবুক/ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবেও #MeToo প্রসঙ্গ। মি টু আন্দোলন নিয়ে মুখ খুলে এবার বিতর্কে জড়ালেন ৪৯তম আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের জুরি বোর্ডের প্রধান বিনোদ গনেত্রা। #MeToo আন্দোলন ‘প্রচারে আসার চেষ্টা’ বলে বুধবার মন্তব্য করেছেন তিনি। তাঁর আরও দাবি, সময়ের সঙ্গে সব ভুলে যাবে মানুষ। চলচ্চিত্র উৎসবের ‘নন ফিচার ফিল্মে’র ৭ জন জুরি সদস্যের নেতৃত্বে রয়েছেন বিনোদ।

#MeToo আন্দোলন নিয়ে বিনোদ বলেছেন, এটা মানুষের খামখেয়ালি আচরণের বহিঃপ্রকাশ। প্রচারের আলোয় আসতেই এসব করা হচ্ছে। তবে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে মানুষ সব ভুলে যাবে। এদিকে, আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের জুরি সদস্যদের প্রধানের এহেন মন্তব্য ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

আরও পড়ুন, #MeToo: দেশের সব মহিলাদের জন্যই মি টু, বললেন নন্দিতা দাস

প্রসঙ্গত, গত বেশ কয়েকদিন ধরেই যৌন হেনস্থার অভিযোগ তুলে #মিটু আন্দোলনে মুখ খুলেছেন অনেকে। সাম্প্রতিক সময়ে, মিটু আন্দোলন শুরু হয়েছে বলিউড অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্তের অভিযোগ ঘিরে। অভিনেতা নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ তুলে সরব হন তনুশ্রী। তারপরই দেশের বিভিন্ন প্রান্তে একাধিক মহিলা সরব হন এ নিয়ে। বলিউডেরই আরেক অভিনেতা অলোক নাথের বিরুদ্ধেও যৌন হেনস্থার অভিযোগ উঠেছে। ইতিমধ্যেই ধর্ষণে অভিযুক্ত ওই অভিনেতার বিরুদ্ধে মুম্বই পুলিশে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। তবে শুধু সিনে দুনিয়াই নয়, সংবাদিকতা, রাজনীতি-সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রেই #মিটু ঝড় উঠেছে।

কয়েকদিন আগেই ২৪ তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে এসে অভিনেত্রী নন্দিতা দাস বলেছিলেন, ‘‘আমরা এই আন্দোলনকে তুচ্ছ করতে চাই না। আমাদের সুনিশ্চিত করতে হবে যাতে কোনও মহিলা যৌন হেনস্থার শিকার হলে, সামনে এগিয়ে আসতে পারেন। এটা পুরুষ বনাম মহিলার লড়াই নয়। এ লড়াইটা পিতৃতান্ত্রিক সমাজের বিরুদ্ধে। আমরা এটাও চাই, এই আন্দোলনকে পুরুষরাও সমর্থন করুক।’’ নন্দিতা আরও বলেন, গোটা দেশে বহু মহিলা রয়েছেন, যাঁরা যৌন হেনস্থার শিকার হয়েছেন। কিন্তু তাঁরা #MeToo করেননি। তাঁদের জীবনের এসব অভিজ্ঞতা নিয়েও আমাদের সরব হওয়া প্রয়োজন।

Read the full story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Metoo campaign iffi jury head vinod ganatra