scorecardresearch

বড় খবর

জল্পনার অবসান, কলকাতার ভোটার হলেও মিঠুন চক্রবর্তীকে ‘প্রার্থী করল না’ বিজেপি

‘বাঙালিবাবু’কে শুধুমাত্র পদ্ম শিবিরের হয়ে প্রচারের ময়দানেই দেখা যাবে। ৩০ মার্চ থেকে নির্বাচনী প্রচারে নামছেন মিঠুন। শুরু করবেন নন্দীগ্রামের মতো গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্র দিয়ে।

mithun

একুশের বিধানসভা নির্বাচনে কি পদ্ম শিবিরের হয়ে লড়বেন মিঠুন চক্রবর্তী (Mithun Chakraborty)? মোদী ব্রিগেডে বিজেপির (BJP) পতাকা তুলে নেওয়ার পর থেকেই মহাগুরুকে নিয়ে শুরু হয়েছিল মহা-জল্পনা। এরপর জল্পনা উসকে ছিল কৈলাস বিজয়বর্গীয়র (Kailash Vijayvargiya) মন্তব্য। উপরন্তু সম্প্রতি মিঠুন চক্রবর্তী মুম্বই থেকে কলকাতার ভোটার হলে, তাঁর প্রার্থী হওয়ার সম্ভাবনা পৌঁছয় তুঙ্গে। ঘনিষ্ঠমহলে কানাঘুষো চলছিল, কাশীপুর, বেলগাছিয়া কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থীরা বেঁকে বসায় সম্ভবত সংশ্লিষ্ট এই দুটি কেন্দ্রের মধ্যেই কোনও একটা থেকে ‘বাঙালিবাবু’কে প্রার্থী করা হতে পারে। তবে মঙ্গলবার যাবতীয় জল্পনার অবসান ঘটল। ১৩টি গুরুত্বপূর্ণ আসনের প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করল বিজেপি। সেই তালিকায় একাধিক চমক থাকলেও নাম নেই মিঠুন চক্রবর্তীর।

প্রসঙ্গত, কাশীপুর-বেলগাছিয়া (Kashipur-Belgachia) বিধানসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত রাজা লমনীন্দ্র রোডের ২২/১৮০ নম্বর বাড়ির ঠিকানায় ভোটার হয়েছেন মিঠুন। ভোটার তালিকায় তাঁর নাম রয়েছে মিঠুন বসন্ত চক্রবর্তী। এই বাড়িটি আসলে অভিনেতার বোন শর্মিষ্ঠা সরকারের। তিনি জানিয়েছিলেন, মিঠুন চক্রবর্তী সম্পর্কে তাঁর তুতো দাদা। যখনই ব্যক্তিগত কাজে কলকাতায় আসেন, এই বোনের বাড়িতেই ওঠেন তিনি। সেই থেকেই কাশীপুর-বেলগাছিয়া বিধানসভা কেন্দ্রে মহাগুরুর প্রার্থী হওয়া নিয়ে জল্পনার সূত্রপাত। তবে মঙ্গলবার পদ্ম শিবিরের তরফে ঘোষিত ১৩টি কেন্দ্রের মধ্যে ছিল কাশীপুর-বেলগাছিয়াও। আর তাতেই দেখা গেল যে, সেই তালিকায় নাম নেই মিঠুন চক্রবর্তীর।

রবিবার ব্রিগেড সমাবেশে মোদী-মিঠুন সাক্ষাৎ। এক্সপ্রেস ফটো- পার্থ পাল

কাশীপুর এবং বেলগাছিয়া কেন্দ্র থেকে প্রার্থী করা হয়েছে যথাক্রমে দেবব্রত মাঝি ও শিবাজী সিংহ রায়কে। তাই মহাগুরু এই কেন্দ্রের ভোটার হলেও প্রার্থী হলেন না। অতঃপর ‘বাঙালিবাবু’কে যে শুধুমাত্র পদ্ম শিবিরের হয়ে প্রচারের ময়দানেই দেখা যাবে, তা বলাই বাহুল্য। উল্লেখ্য, আগামী ৩০ মার্চ থেকে নির্বাচনী প্রচারে নামছেন মিঠুন। শুরু করবেন নন্দীগ্রামের মতো গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্র দিয়ে। যা কিনা একুশের রণক্ষেত্রে সবুজ-গেরুয়া দুই শিবিরের জন্যই ‘পাখির চোখ’। কারণ, নন্দীগ্রাম থেকে বিজেপি প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারীর প্রতিপক্ষ হিসেবে লড়ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় খোদ। হাওয়া বলছে, হাড্ডাহাড্ডি লড়াই অবশ্যম্ভাবী। আর সেই হাওয়াতেই পদ্ম শিবিরের হয়ে পাল ধরতে ময়দানে নামবেন মিঠুন চক্রবর্তী।

প্রসঙ্গত, কলকাতা ও তৎসংলগ্ন এলাকার বেশ কয়েকটি আসন নিয়ে চিন্তায় ছিল গেরুয়া শিবির। এই বিধানসভা আসনগুলি তৃণমূলের দুর্জেয় ঘাঁটি। একুশে (West Bengal Assembly Election 2021) বাংলার মসনদ দখল করতে সংশ্লিষ্ট আসনগুলিতে বিজেপির জয় অতিপ্রয়োজন। আর তাই, মিঠুনকে কাশীপুর-বেলগাছিয়ার মতো গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রের প্রার্থী করার সম্ভাবনার কথা শোনা গিয়েছিল। কারণ, এই আসন থেকে মহাগুরু প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলে তার প্রভাব পড়তে পারত কলকাতার বাকি আসনগুলিতেও। তবে সেইসব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটল মঙ্গলবার সকালে। প্রার্থী তালিকা প্রকাশ্যে আসতেই দেখা গেল, কাশীপুর-বেলগাছিয়া কেন্দ্রে গেরুয়া শিবির ভরসা রেখেছে দলের দুই পুরনো কাণ্ডারীর উপরই।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Mithun chakraborty is not contesting in west bengal assembly election