scorecardresearch

বড় খবর

হিন্দু ক্যালেন্ডার দেখে মঙ্গলে রকেট পাঠায় ভারত! মাধবনের দাবি ঘিরে বিতর্কের ঝড়

হিন্দুধর্মের সমর্থনে ফের এগিয়ে এলেন মাধবন।

R Madhavan, Madhavan on ISRO, Madhavan in controversy, বিতর্কে মাধবন, Madhavan's controversial comment on ISRO, Madhavan trolled, Madhavan on science, মাধবন, মাধবন ট্রোলড, ইসরো নিয়ে মাধবনের বিতর্কিত মন্তব্য, বিতর্কে মাধবন, মঙ্গলঅভিযান নিয়ে মাধবনের বিতর্কিত মন্তব্য, bengali news today
ISRO নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য মাধবনের

‘রকেট্রি: দ্য নাম্বি এফেক্ট’ ঘোষণা করার পর থেকেই মাধবনকে নিয়ে হইচই অনুরাগীদের মধ্যে। ইসরোর প্রাক্তন রকেট বিজ্ঞানী নাম্বি নারায়ণের চর্চিত জীবনকাহিনি পর্দায় তুলে ধরতে চলেছেন তিনি। আর সেই সিনেমা রিলিজের আগেই ধর্মীয় মন্তব্য করে বিতর্কে জড়ালেন মাধবন (R Madhavan)। সোশ্যাল মিডিয়ায় চর্চার শিরোনামে অভিনেতা।

সম্প্রতি ‘রকেট্রি: দ্য নাম্বি এফেক্ট’-এর প্রচারে এক সাংবাদিক সম্মেলনে হাজির হয়ে মাধবন বলেন, “হিন্দু ক্যালেন্ডার পঞ্চাং-এর সাহায্যেই মঙ্গলগ্রহে মহাকাশযন্ত্র পাঠিয়েছিল ইসরো।” ব্যস! আর সেই মন্তব্য ঝড়ের গতিতে ভাইরাল হতেই নেটপাড়ার নীতিপুলিশরা অভিনেতাকে বিজ্ঞান নিয়ে ভুলভাল তথ্য দিতে বারণ করেন। ট্রোল করতেও পিছপা হননি তাঁরা।

কারও মন্তব্য, “বিজ্ঞান নিয়ে কথা বলা অত সহজ নয়। না জানাটা ঠিক আছে। কিন্তু তাই বলে আষাঢ়ে গল্প না জুড়ে চুপ থাকাই শ্রেয়।” আবার কারও প্রশ্ন, “এটা কি হোয়াটসঅ্যাপ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে জানতে পারলেন?” কেউ বললেন, “কয়েক মিনিট ধরে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে মাধবন যা বলে গেলেন ইসরোর মঙ্গলঅভিযান নিয়ে, তা অত্যন্ত বোকামি বললেও ভুল হবে। এরকম ফালতু কথা বিজ্ঞান অথবা বিজ্ঞানীদের নিয়ে না বলাই ভাল।” এক নেটিজেন তো সপাটে বলেই দিলেন, “মাধবনকে ততক্ষণ-ই ভাল লাগে, যতক্ষণ উনি মুখ না খোলেন।”

[আরও পড়ুন: জনপ্রিয় হিন্দি গানের সুর চুরি! নেটদুনিয়ার ভয়ঙ্কর ট্রোলে ছারখার রূপঙ্কর]

প্রসঙ্গত, ‘রকেট্রি: দ্য নাম্বি এফেক্ট’-এ নাম্বি নারায়ণের ভূমিকায় অভিনয় করার পাশাপাশি এই সিনেমার সুবাদেই পরিচালক হিসেবে হাতেখড়ি করলেন তিনি। সম্প্রতি কান ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে এই ছবির প্রিমিয়ারেও হাজির ছিলেন মাধবন। এই সিনেমা বানাতে গিয়ে যে কী পরিমাণ খাটুনি করতে হয়েছে মাধবনকে, সেই নিয়েও সম্প্রতি মুখ খুলেছিলেন তিনি। জানান, শাহরুখ, সূর্য কেউই নাকি গেস্ট অ্যাপিয়ারেন্সের জন্য একটাকাও নেননি।

উল্লেখ্য, ১৯৯৪ সালে ইসরোর রকেট বিজ্ঞানী নাম্বির ওপর মিথ্যা গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ উঠেছিল। দেশের হয়ে কাজ করেও দেশদ্রোহীর আখ্যা জুটেছিল তাঁর কপালে। যার জেরে গ্রেপ্তারও হতে হয় তাঁকে। তার বছর চারেক বাদে সুপ্রিম কোর্ট তাঁকে মুক্তি দেয়। নাম্বির জীবনের এই চড়াই-উতরাই, সাফল্য-ব্যার্থতার সঙ্গে আইনি জটিলতায় পড়া, তাঁর জীবনের সব পর্ব দিয়েই সিনেমার গল্প সাজিয়েছেন পরিচালক মাধবন। মুক্তির জন্য এযাবৎকাল অনুরাগীরা মুখিয়ে থাকলেও এবার বিজ্ঞানের সঙ্গে ধর্মকে গুলিয়ে ফেলে মন্তব্য করেই বিতর্কে জড়ালেন মাধবন।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Netizens slams madhavan as he says isro used hindu calendar to launch rocket