scorecardresearch

‘পল্লবী মোটেই সুবিধের মেয়ে ছিল না! ওর সংসার চালাত বড়লোক বাবার ছেলে সাগ্নিক’, বিস্ফোরক প্রাক্তন স্ত্রী

বোমা ফাটালেন পল্লবীর লিভ-ইন সঙ্গী সাগ্নিকের ‘প্রাক্তন’ স্ত্রী।

‘পল্লবী মোটেই সুবিধের মেয়ে ছিল না! ওর সংসার চালাত বড়লোক বাবার ছেলে সাগ্নিক’, বিস্ফোরক প্রাক্তন স্ত্রী
মৃত্যুর দিন সকালে কী নিয়ে অশান্তি হয়েছিল পল্লবী-সাগ্নিকের?

অভিনেত্রী পল্লবী দে’র রহসমৃত্যু নিয়ে একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ্যে। ক্রমশই ঘনীভূত হচ্ছে টেলিপাড়ার অভিনেত্রীর মৃত্যরহস্য। একদিকে যখন পল্লবীর পরিবার সাগ্নিক চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ তুলে এফআইআর দায়ের করেছেন গড়ফা থানায়। এমনকী, মেয়ের লক্ষ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ তুলেছেন তাঁর সহবাস সঙ্গীর বিরুদ্ধে। সোমবার রাতে পল্লবী মৃত্যু-কাণ্ডে পুলিশ দফায় দফায় জেরা করেছে অভিযুক্ত সঙ্গীকে। এসবের মাঝেই সংবাদমাধ্যমের কাছে বোমা ফাটালেন সাগ্নিক চক্রবর্তীর প্রাক্তন স্ত্রী সুকন্যা (Pallavi Dey Live-in Partner Sagnik’s Ex Wife)। তাঁর সাফ প্রশ্ন, “জেনেশুনেও কেন বিবাহিত পুরুষের সঙ্গে সম্পর্কে গিয়েছিলেন পল্লবী দে?” এমনকী তিনি এও দাবি করেছেন যে, “পল্লবী যে খুব ভাল মেয়ে ছিল, এমনটাও নয়। “

এবার প্রশ্ন কীসের ভিত্তিতে মৃত অভিনেত্রী পল্লবীর বিরুদ্ধে এমন বিষোদগার করলেন সাগ্নিক চক্রবর্তীর প্রাক্তন স্ত্রী? সুকন্যার কথায়, তিনি অনেক আগে থেকেই পল্লবী দে-কে চিনতেন। এমনকী, তিনিই সাগ্নিকের সঙ্গে বান্ধবী পল্লবীর আলাপ করিয়ে দেন। তখন অভিনেত্রী হিসেবে তাঁর অত নামডাকও হয়নি। কিছুদিন পর থেকেই বুঝতে পারেন, তাঁকে লুকিয়ে সাগ্নিকের সঙ্গে মেলামেশা করছেন পল্লবী। তবে জিজ্ঞেস করলেও তা নিজের বান্ধবীর কাছে অস্বীকার করে যান অভিনেত্রী।

[আরও পড়ুন: পল্লবী না থাকলেই ফাঁকা ফ্ল্যাটে মেয়ে নিয়ে আসত সাগ্নিক! চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ্যে]

সুকন্যার মন্তব্য, “আমি সাধারণ মেয়ে। ঝামেলা পছন্দ নয়। তাই সাগ্নিক-পল্লবীকে যখন একে-অপরের প্রতি মিশে যেতে দেখলাম, তখনই সেই সম্পর্ক থেকে সরে আসি। পল্লবী জানত যে, আমার সঙ্গে সাগ্নিকের রেজিস্ট্রি হয়ে গিয়েছে। ও ভাল চাকরি করে। প্রচুর টাকা-পয়সা সাগ্নিকের বাবার। আমাদের রেজিস্ট্রি বিয়ের কথা জেনেও সেটা দেখেই পল্লবী ওর প্রতি আকৃষ্ট হয়েছিল। দেখলাম, পল্লবী ধীরে ধীরে আমার সঙ্গে যোগাযোগ কমিয়ে দিল। দুজনকে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়তে দেখে সরে এসেছিলাম। গত দু বছর ধরে ওদের সঙ্গে কোনও যোগাযোগও নেই আমার।”

এখানেই শেষ নয়। অভিনেত্রীর সহবাস-সঙ্গীর প্রাক্তন স্ত্রী এও উল্লেখ করেন যে, তিনি ৭ বছর থেকে সাগ্নিককে চেনেন। এবং তিনি খুন করার মতো মানুষ নন। তাঁর দাবি, ” পল্লবীকেও ভাল মেয়ে বলা যায় না। যে মেয়ে বিবাহিত জেনেও কোনও পুরুষের সঙ্গে সম্পর্কে জড়ায়। এবং তাঁর বাড়ির লোক সেটায় সায় দেন, তাকে ভাল কী করে বলি?” সুকন্যা জানান, তিনি পল্লবীর মাকেও ফোন করে জানিয়েছিলেন যে সাগ্নিকের সঙ্গে তাঁর রেজিস্ট্রি বিয়ের কথা। পাল্টা অভিনেত্রীর মা তখন জবাব দেন, “মেয়ে যা করছে, সেটায় আমরা কিছু বলতে পারব না।”

[আরও পড়ুন: সম্পত্তি কেনা নিয়ে বিবাদেই পল্লবীর রহস্যমৃত্যু? সাগ্নিককে লাগাতার জেরা পুলিশের]

অন্যদিকে পল্লবীর বাবা অভিযোগ তুলেছেন, সাগ্নিক তাঁর মেয়ের টাকায় ফ্ল্যাট-গাড়ি এসব কিনেছেন। সেই প্রসঙ্গে তাঁর প্রাক্তন স্ত্রীর মন্তব্য, “সাগ্নিকের আগেও গাড়ি ছিল, তবে অডি নয়। সেটা ওর বাবার টাকায় কেনা। শুনেছি, পল্লবী নাকি ওকে লক্ষ লক্ষ টাকা দিয়েছে। কিন্তু পল্লবীর বাবার স্টেশনের পাশে ঝালমুড়ির দোকান, ওর মা-ভাইও কিছু করেন না। করোনার সময়ে পল্লবীর তো ২ বছর কোনও কাজও ছিল না। সাগ্নিকের টাকাতেই চলত ওদের সংসার। হয়তো ওদের মধ্যে সমস্যা ছিল, কিন্তু সেটা আর্থিক নয়।”

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Pallavi dey death live in partner sagniks ex wife opens up