বড় খবর


গণধর্ষণের হুমকি! মার্কিন মুলুকে ‘ব্রাউন টেররিস্ট’ বলে কটাক্ষ ‘দেশি গার্ল’ প্রিয়াঙ্কাকে

তিক্ত অভিজ্ঞতা! হলিউডে দাপিয়ে কাজ করে বেড়ালেও বর্ণবৈষম্যের শিকার অভিনেত্রী।

Priyanka Chopra

মার্কিন মুলুকে ভারতীয় অভিনেতা-অভিনেত্রীদের বর্ণবৈষম্যের শিকার হওয়ার খবর অবশ্য নতুন নয়। এর আগেও শিল্পা শেট্টি-সহ একাধিক তারকাকে গায়ের চামড়ার রং নিয়ে কটাক্ষ শুনতে হয়েছিল ওদেশে। এই মুহূর্তে হলিউডে দাপিয়ে কাজ করে বেড়ালেও প্রিয়াঙ্কা চোপড়াও (Priyanka Chopra) সেই তালিকা থেকে বাদ যাননি। সদ্য নিজের লেখা বই ‘আনফিনিশড’ লঞ্চের অনুষ্ঠানে এসে সেই তিক্ত অভিজ্ঞতাই শেয়ার করেছেন ‘দেশি গার্ল’। যাঁকে কিনা মার্কিন মুলুকে গণধর্ষণের হুমকি দিয়ে ‘ব্রাউন টেররিস্ট’ বলেও কটাক্ষ করা হয়েছিল।

মার্কিন পপ তারকা নিক জোনাসের (Nick Jonas) ঘরণী তিনি। বিয়ের পর থেকে এদেশ-ওদেশ উড়ান সফর করলেও অতিমারী আবহে মাসখানেক ধরে লস এঞ্জেলসেই থাকছেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। মার্কিন মুলুকেও দিব্যি একের পর এক কাজ করে চলেছেন। সর্বদাই ব্যস্ত। সম্প্রতি নিজের বই ‘আনফিনিশড’ প্রকাশ করেছেন তিনি। রোজ রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে অবধি একেক দিনে সাতশ-আটশটা করে বইয়ে স্বাক্ষর করে রাখছেন। সম্প্রতি সেই বইয়ের প্রচারের জন্যই এক মার্কিন টেলিভিশন চ্যানেলে প্রিয়াঙ্কাকে সাক্ষাৎকার দিতে দেখা গিয়েছে। সেখানেই অতীতের এমন তিক্ত অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরেন অভিনেত্রী।

প্রিয়াঙ্কা জানিয়েছেন, ২০১২ সালে তাঁর সিঙ্গলস ‘ইন মাই সিটি’ মুক্তির সময় মার্কিন মুলুকে বর্ণ বিদ্বেষের ষশিকার হন তিনি। ওই সময় প্রিয়াঙ্কাকে ‘ব্রাউন টেররিস্ট’ বলে কটাক্ষ করা হয়। শুধু তাই নয়, প্রিয়াঙ্কার মতো একজন বাদামি রঙের মানুষ মার্কিন মুলুকে কী করছেন? বলেও প্রশ্ন তোলা হয়। পাশাপাশি ভারতে ফিরে গিয়ে বোরখা পরার মতো উপদেশও দেওয়া হয় তাঁকে। এর মাঝেই তাঁকে নিজের রঙের জন্য গণধর্ষণের হুমকিও খেতে হয়েছে, বলে ওই সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন অভিনেত্রী।

Web Title: Priyanka chopra shares her experience when she was called brown terrorist

Next Story
‘রেঞ্জ মাপার যন্ত্র নেই, উপরন্তু আঞ্চলিক অভিনেত্রী!’ কঙ্গনাকে ‘কটাক্ষ’ স্বস্তিকারswastika
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com