scorecardresearch

ভারতের সম্মান বাঁচাতে সারা রাত জাগতে হয় প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে

দেশের জন্য কী করেছিলেন ‘দেশি গার্ল’? জানুন সেই অজানা কথা।

Priyanka Chopra, Priyanka Chopra birthday, Priyanka Chopra faces racism, Nick-Priyanka, Priyanka Chopra lesser known facts, Hollywood, Bollywood, প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার জন্মদিন, নিক-প্রিয়াঙ্কা, প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার সম্পর্কে অজানা তথ্য, Indian Express Entertainment Story, bengali news today
ভারতের সম্মান রক্ষার্থে গোটা রাত জেগেছিলেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া

গায়ের চামড়ার রং নিয়ে বিদেশীদের কটাক্ষের শিকার হয়েছিলেন। সেই প্রিয়াঙ্কা চোপড়াই (Priyanka Chopra) এখন পশ্চিমী বিনোদুনিয়ায় দাপটের সঙ্গে কাজ করছেন। বিদেশের মাটিতে একের পর এক মাইলফলক ছুঁয়ে দেশকে গর্বিত করে চলেছেন প্রতিনিয়ত। প্রিয়াঙ্কার জনপ্রিয়তা এতটাই তুঙ্গে যে আন্তর্জাতিক ময়দানে তাঁকে ভারতের দূত বললেও অত্যুক্তি হয় না। এমনকী, দেশি গার্ল নিজেও একাধিকবার বলেছেন যে, “আমি নিজেকে ভারতের অ্যাম্বাসাডর হিসেবেই মনে করি।” বর্ণবিদ্বেষের শিকার হয়েও দমে যাননি বরং দেশের হয়ে সর্বদা সুর চড়িয়েছেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। এমনকী, বিদেশে ভারতের সম্মান রক্ষার্থে একবার তো অভিনেত্রী গোটা রাত জেগেছিলেন। ‘দেশি গার্ল’-এর জন্মদিনে জানুন সেই অজানা কাহিনী (Priyanka Chopra Birthday)।

প্রিয়াঙ্কার শৈশবের ঘটনা। বিদেশেই পড়াশোনা করেছেন অভিনেত্রী। সেই সময় থেকেই বর্ণবিদ্বেষের শিকার হয়েছিলেন তিনি। ছোট্ট মিমিকে প্রায়ই বন্ধুদের বাড়িতে যেতে হত প্রজেক্টের জন্য। তখন তিনি মার্কিন মুলুকের আইওয়াতে থাকতেন। নবম শ্রেণীর ছাত্রী। ভারত সম্পর্কে আজগুবি সব প্রশ্ন করত দেশি গার্লের বন্ধুরা। একবার তো একজন এসে প্রিয়াঙ্কাকে জিজ্ঞেস করে ফেলল- “ভারতে কি হাতি-ঘোড়া চড়ে স্কুলে যায় সবাই?” বেজায় চটেছিলেন অভিনেত্রী। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে এই প্রসঙ্গে তিনি জানান, ওরা বিশ্বাস-ই করতে পারত না যে ভারতীয়দের গাড়ি কেনার সামর্থ্যও রয়েছে! তবে বন্ধুদের এহেন আজগুবি প্রশ্নের সম্মুখীন হয়ে কিন্তু দমে যাননি তিনি। বরং স্কুলের সবার কাছে আসল ভারতকে তুলে ধরতে চেয়েছিলেন। চেয়েছিলেন দেশের সম্মান রক্ষা করতে।

[আরও পড়ুন: আদালতে স্বস্তি পরিমণির, মাদক কাণ্ডে এক মাসের মাথায় জামিন অভিনেত্রীর]

সেইসময়ে তাদের কটু কথা এবং এই ধরনের আচরণ বেশ অবাক করত প্রিয়াঙ্কাকে। ভারতীয় মানেই তাদের কাছে ছিল নোংরা এবং গরীব মানুষজন। এই চিন্তা ভাবনায় বদল আনার প্রয়োজন অনুভব করেছিলেন তিনি। অতঃপর নবম শ্রেণিতে পড়াকালীন ভারতের ভাবমূর্তি নিয়ে বানিয়ে ফেললেন এক স্কুল প্রজেক্ট। আধুনিক ভারত বলতে যা যা বোঝায় মুম্বই, দেশের তথ্য-প্রযুক্তি- গোটা রাত জেগে সেসব ছবি নেট ঘেঁটে বের করেছিলেন। আর সেই প্রজেক্টে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন সবাইকে। গ্রেডও পেয়েছিলেন A। শিক্ষকরাও বেজায় প্রশংসা করেছিলেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার।

প্রসঙ্গত, এইমুহূর্তে ‘সিটাডেল’ ওয়েব সিরিজের শুটে ব্যস্ত প্রিয়াঙ্কা। দিন কয়েক বাদেই শুরু করবেন ‘ম্যাট্রিক্স ফোর’-এর কাজ। এরপর তাঁর ঝুলিতে রয়েছে ফারহান আখতারের ‘জি লে জারা’। যেখানে তাঁর সঙ্গে অভিনয় করবেন ক্যাটরিনা কাইফ, আলিয়া ভাটও।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Priyanka chopra stayed up all night to defend indias honor