scorecardresearch

বড় খবর

প্রতিবাদ চলছেই, পরবর্তী পদক্ষেপের প্রস্তুতিতে টিম ‘ভবিষ্যতের ভূত’

”কলকাতা পুলিশকে চিঠি পাঠানো হয়েছিল প্রযোজকদের তরফে। এমনকী কলকাতার পুলিশ কমিশনারকে চিঠি দিয়ে জানতে চেয়েছিলাম ছবিটা হল থেকে তুলে নেওয়ার কারণ। উত্তর আসেনি। এবার আমরা আদালতে যাব।”

এক্সপ্রেস ফটো- শশী ঘোষ

বাইরের আবহাওয়া যতটা না বিরূপ, তার থেকেও বেশি বিরূপ ‘ভবিষ্যতের ভূতে’-র ভবিষ্যৎ। মাস শেষ হলো, সুরাহা মিলল না বিতর্কের। বরং প্রতিকূলতা বেড়েছে। এবার আদালতের পথে পা বাড়াতে চলেছেন ছবির প্রযোজক ও পরিচালক। সামনের মাসেই কলকাতা হাইকোর্টে আপিল করতে পারে অনীক দত্তের টিম। ছবির অন্যতম প্রযোজক ইন্দিরা উন্নিয়ার বললেন, ”কলকাতা পুলিশকে চিঠি পাঠানো হয়েছিল প্রযোজকদের তরফে। এমনকী কলকাতার পুলিশ কমিশনারকে চিঠি দিয়ে জানতে চেয়েছিলাম ছবিটা হল থেকে তুলে নেওয়ার কারণ। উত্তর আসেনি। এবার আমরা আদালতে যাব।”

তিনি আরও জানান, ”মার্চের প্রথম সপ্তাহেই কলকাতা হাইকোর্টে যাওয়ার চেষ্টা করছি। বিষয়টা নিয়ে কাজ করছি। এর বেশি এখনই কিছু বলা সম্ভব নয়।” তবে আইনি লড়াইয়ের পাশাপাশি জমায়েত ও বিক্ষোভ চালিয়ে যাচ্ছেন ছবির কলাকুশলী ও পরিচালক। শুক্রবার রবীন্দ্র সদন চত্বরের গাছতলাতেই একজোট হবেন তাঁরা। প্রসঙ্গত, এর আগেও অ্যাকাডেমির সামনে বিক্ষোভ দেখানোর পর উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে সেখানে জমায়েত নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন, ‘ভবিষ্যতের ভূত’ দেখতে চেয়ে আগেই অনীক দত্তকে ই-মেল করেছিলেন রাজ্য গোয়েন্দা আধিকারিক

এদিকে হল মালিকরা সিনেমা চালাতে অস্বীকার করেছেন, একথা জানিয়ে অনীকবাবু ইমেল করেছিলেন ইস্টার্ন ইণ্ডিয়া মোশন পিকচার্স অ্যাসোসিয়েশন বা ইম্পাতে। ইম্পার সম্পাদক পিয়া সেনগুপ্ত জানালেন, ”এখনও পর্যন্ত এই বিষয়ে কোনও পদক্ষেপ নিতে পারিনি। আমাদের চেয়ারম্যান গতকাল আগরতলা থেকে ফিরেছেন। ওঁঁকে বলা হয়েছে প্রত্যেক এক্সিবিটরের কাছ থেকে খবর নিতে, যে কোন কারণে তাঁরা হল থেকে ছবিটা সরালেন। এরপরেই আমরা কোনও সিদ্ধান্ত নিতে পারব।”

অনীক দত্তের কথায়, ”মুখ্যমন্ত্রীর কাছে কোনও সুবিধে চাইছি না। ঘটনাচক্রে উনি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীও, সেজন্যই দাবী করছি যাতে ঘটনার কারণটা পরিষ্কার হয়। পুলিশ এক্তিয়ার বর্হিভূত একটি চিঠি পাঠিয়েছে, কেন পাঠিয়েছে সেটারই উত্তর চাই।” তাঁর এই বক্তব্যের নেপথ্যে রয়েছে ছবিটি মুক্তি পাওয়ার চারদিন আগে রাজ্য গোয়েন্দা দফতরের এক আধিকারিকের মেইল, যাতে তিনি জানিয়েছিলেন, “ছবিটির বিষয়বস্তু জনসাধারণের ভাবাবেগকে আঘাত করতে পারে, যাতে রাজনৈতিক পরিস্থিতি অশান্ত হওয়ার আশঙ্কা থাকছে। সে কারণেই মুক্তির আগে ছবিটি উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা দেখতে চান।” প্রযোজক তার উত্তরে লেখেন, “যেহেতু সেন্সর বোর্ড ছবিটিকে ছাড়পত্র দিয়ে দিয়েছে, আর আলাদা করে স্ত্রিনিং করা সম্ভব নয়।”

আরও পড়ুন, ভবিষ্যত অনিশ্চিত, ‘ভূতের’ হানার মুখে অনীক দত্তের সিনেমা

প্রসঙ্গত, মুক্তি পাওয়ার এক দিন পরেই শহরের সমস্ত সিনেমা হল থেকে তুলে নেওয়া হয়েছে পরিচালক অনীক দত্তর ছবি ‘ভবিষ্যতের ভূত’। রাজ্যের সমস্ত মাল্টিপ্লেক্স ও সিঙ্গেল স্ক্রিন থেকে উধাও হয়ে যায় ছবিটি। দর্শকরা ছবি দেখতে এলে হয় বলা হয়, “ছবি উঠে গেছে”, কোথাও আবার টিকিট কাটা থাকলে মূল্য ফেরৎ দিয়ে দেওয়ার কথাও শোনা যায়। কার নির্দেশে কেন ছবি হল থেকে সরিয়ে নেওয়া হলো, সেই ধোঁয়াশা এখনও কাটেনি।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Producers of bhobishyoter bhoot now going to court78950