বলিউড Vs দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রির ঝগড়া! একবাক্যে ‘চুপ করালেন’ মাধবন

কী এমন বললেন মাধবন, যা নিয়ে তোলপাড় বিনোদুনিয়ায়?

Madhavan trolled, Madhavan's reaction on trolled, মাধবন, ট্রোলড মাধবন, টুইটার নিয়ে বেঁফাস মন্তব্য মাধবনের, bengali news today
ট্রোলারকে মোক্ষম জবাব মাধবনের

“RRR, KGF-এর মতো দক্ষিণী ছবিগুলো ভাল চলেছে বলে এটা মনে করার কোনও কারণ নেই যে হিন্দি সিনেমা ব্যবসা করতে পারছে না! তাহলে ‘গাঙ্গুবাঈ কাঠিয়াওয়াড়ি’, ‘ভুলভুলাইয়া ২’-এর মতো সিনেমাগুলোর বিষয়ে কী বলবেন?”, বলিউড বনাম দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রির ঝগড়া একেবারে একবাক্যেই চুপ করালেন মাধবন।

প্রসঙ্গত, অতিমারীর পর বক্স অফিসে বলিউড সিনেমার তুলনায় ব্যবসার নিরীখে দক্ষিণী ছবিগুলোর মার্কসিট বেজায় ঝকঝকে। সে ‘পুষ্পা: দ্য রাইস’-ই হোক, কিংবা RRR, ‘কেজিএফ চ্যাপ্টার ২’, ‘বিক্রম’। সেই তুলনায় বলিউডি ছবির আয় অনেকটাই কম হয়েছে। সেই তালিকায় ‘রানওয়ে ৩৪’, ‘সম্রাট পৃথ্বীরাজ’, ‘ধাকড়’, ‘জয়েশভাই জোরদার’-এর মতো একাধিক ছবি রয়েছে। যা কিনা ইতিমধ্যেই বি-টাউনের প্রযোজক-পরিচালকদের যথেষ্ট মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। মাসখানেক ধরেই এটা নিদারুণ চর্চার বিষয় হয়ে উঠেছে বিনোদুনিয়ায়।

[আরও পড়ুন: Mamata-Prosenjit: হঠাৎ নবান্নে প্রসেনজিৎ! ভালবেসে বুম্বাকে আম খাওয়ালেন ‘দিদি’]

উপরন্তু সেই বিতর্কের আগুনে ঘিয়ের মতো কাজ কিচ্চা সুদীপের সঙ্গে অজয় দেবগণ দ্বন্দ্ব। বলিউড তারকারাও বর্তমানে দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করছেন, তবে সেখানকার সুপারস্টার মহেশ বাবুর একেবারে অকপট মন্তব্য, “বলিউডের ক্ষমতা নেই আমাকে কাস্ট করার মতো।” সেই বিতর্কের জল অনেকটাই গড়িয়েছে। এবার সেই বিষয়েই মুখ খুললেন আর মাধবন।

‘রকেট্রি: দ্য নাম্বি এফেক্ট’ ছবির পরিচালক তথা অভিনেতার সাফ মন্তব্য, “দক্ষিণী সিনেমার জনপ্রিয়তা বেড়েছে বলে হিন্দি সিনেমা বক্সঅফিসে ভাল ব্যবসা করতে পারছে না, এরকম নয়। বাহুবলির ২টো ছবি, RRR, KGF-এর সিক্যুয়েল, পুষ্পার মতো সিনেমাগুলো হিন্দি ছবির থেকেও বেশি ব্যবসা করতে পেরেছে, কারণ এদের গোটা দেশেই একটা জনপ্রিয়তা রয়েছে। একটা বড়সংখ্যক ভক্ত রয়েছে। তার মানে এই নয় যে, হিন্দি ছবি ব্যবসা করতে পারছে না। ‘গাঙ্গুবাঈ কাঠিয়াওয়াড়ি’, ‘ভুলভুলাইয়া ২’, ‘কাশ্মীর ফাইলস’ এগুলো তো বড়সড় হিট সিনেমা।”

মাধবন এও বলেন যে, “বলিউডের সঙ্গে দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রির তুলনা টানা একেবারে অহেতুক! ব্যবসা করার জন্য এখানে কোনও নিয়মাবলী নেই। প্রতিদিন ছবি বদলাচ্ছে। আমার মনে হয়, যত দিন, যত বছর যাবে, আরও সিনেমা হবে। সিনেমার ধরণ বদলাবে। সেখানে দর্শকরা কীভাবে নেবেন, সেটার ভবিষ্যদ্বাণী করার কোনও মানেই হয় না।”

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: R madhavan shuts down north south debate

Next Story
Charlie Puth-Jungkook: ‘লেফট অ্যান্ড রাইটে’র সাফল্যে ভয়ঙ্কর অবস্থা ইউটিউবে! হতভম্ব চার্লি পুথ