প্রথম চারদিন সিনেমা হল ভরানোর আর্জি ‘রাজলক্ষ্মী ও শ্রীকান্ত’-র 

রিলিজ পিছিয়ে তো দিয়েছেন, সিনেমাহলও পেয়েছেন। তবে আরও এক বিড়ম্বনা যুক্ত হয়েছে। প্রথম চারদিন হলে পর্যাপ্ত পরিমাণে দর্শক না হলে 'রাজলক্ষ্মী ও শ্রীকান্ত'-কে হলে টিকিয়ে রাখা মুশকিল।

By: Kolkata  Updated: September 24, 2019, 12:35:57 PM

মহালয়ার দিন মুক্তি পেতে চলেছে প্রদীপ্ত ভট্টাচার্যর ছবি ‘রাজলক্ষ্মী ও শ্রীকান্ত’। যদিও এক সপ্তাহ আগেই মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল ঋত্বিক-জ্যোতিকা অভিনীত এই ছবি। কিন্তু সিনেমা হল না পাওয়ার কারণে থিয়েটার রিলিজের দিনটাই পিছিয়ে দিয়েছিল নির্মাতারা। কিন্তু রিলিজ পিছিয়ে তো দিয়েছেন, সিনেমাহলও পেয়েছেন। তবে আরও এক বিড়ম্বনা যুক্ত হয়েছে।

আসলে প্রথম চারদিন হলে পর্যাপ্ত পরিমাণে দর্শক না হলে ‘রাজলক্ষ্মী ও শ্রীকান্ত’-কে হলে টিকিয়ে রাখা মুশকিল। মাল্টিপ্লক্সের মালিকরা সরাসরি পরিচালককে জানিয়েছেন, ”প্রথম চার দিনের মধ্যে যদি প্রতিটা শোতে ৫০ শতাংশর বেশি ভিড় না হয় তাহলে পাঁচ দিনের মধ্যেই, পুজোর সপ্তাহে ছবি হল থেকে উঠে যাবে কারণ ঐ সময় একটি বিরাট হিন্দি ছবি আসছে এবং আরও বিভিন্ন বাংলা ছবির রিলিজ আগে থেকেই ঠিক করা আছে।”

আরও পড়ুন, বিদেশে প্রযোজিত বাংলা ছবি নিয়ে বিতর্কের ঝড় সোশাল মিডিয়ায়

২০ সেপ্টেম্বর মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল প্রদীপ্ত ভট্টাচার্যের ছবি ‘রাজলক্ষ্মী ও শ্রীকান্ত’-র। কিন্তু শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত কলকাতায় হল না পাওয়ার কারণে পিছিয়ে গিয়েছে সিনেমার মুক্তির তারিখ। নির্মাতাদের কাছে আসা হলের তালিকা দেখে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছিল সোশাল মিডিয়ায়। ওই তালিকায় দেখা যায় রয়েছে আসানসোল, শিলিগুড়ি, ত্রিপুরার হলের নাম। কলকাতার কাছের হল বলতে বারুইপুর ও সোদপুর।

প্রদীপ্ত ভট্টাচার্য একজন জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত পরিচালক। তাঁর প্রথম ছবি বাকিটা ব্যক্তিগত দেশীয় ও আন্তর্জাতিক স্তরে প্রশংসিত। তাই তাঁর ছবি যদি কলকাতার কোনও হলে একটি করেও শো না পায়, তবে সেটা বাংলা চলচ্চিত্র জগতের কাছে লজ্জার বিষয়, এমনটাই বক্তব্য ছিল টলিপাড়ার অনেকের।

Get all the Latest Bengali News and West Bengal News at Indian Express Bangla. You can also catch all the Entertainment News in Bangla by following us on Twitter and Facebook

Web Title:

Rajlakshmi o srikanta team requesting audience to go to cinemahall first four days to watch the film

The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com.
Advertisement