scorecardresearch

বড় খবর

‘তারকা মানেই যেন যৌনতা আর ড্রাগস’, সরব হার্ড কাউর

Karan Johar Party issue: একদিকে দীপিকা, রণবীর, শাহিদ-সহ একাধিক তারকার বিরুদ্ধে এফআইরের দাবি আর অন্যদিকে প্রশ্ন উঠছে বেশিরভাগ তারকাদের নিয়মিত ড্রাগসেবনের অভ্যাস নিয়ে।

‘তারকা মানেই যেন যৌনতা আর ড্রাগস’, সরব হার্ড কাউর
বাঁদিকে হার্ড কাউর, ডানদিকে করণ জোহরের পার্টির ভিডিও স্ক্রিনশট ফেসবুক থেকে সংগৃহীত।

FiR request against Deepika Ranbir Shahid: দীপিকা, রণবীর, শাহিদ-সহ একাধিক তারকার বিরুদ্ধে এফআইআর-এর দাবি জানিয়েছেন রাজনীতিবিদ মনজিন্দর সিং সিরসা। করণ জোহরের পার্টিতে তারকাদের ড্রাগ সেবন প্রসঙ্গে যে বিতর্ক উঠেছে, সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই মুম্বই পুলিশকে আবেদন জানিয়েছেন তিনি। তার পরেই বলিউডের ড্রাগসেবন নিয়ে উল্লেখযোগ্য মন্তব্য করেছেন গায়িকা হার্ড কাউর।

সম্প্রতি করণ জোহরের বাড়ির পার্টিতে আমন্ত্রিত ছিলেন দীপিকা পাডুকোন, শাহিদ কাপুর, রণবীর সিং, ভিকি কৌশল-সহ বলিউডের বহু তারকা। ওই পার্টিতে অ্যালকোহলের পাশাপাশি কোকেন অথবা হেরোইন জাতীয় ড্রাগ সার্ভ করা হয় তারকাদের, এমন অভিযোগ উঠেছে। ওই পার্টির একটি ভিডিও সোশাল মিডিয়াতে ছড়াতেই শুরু হয়ে যায় তুমুল বিতর্ক। সেই ভিডিওতে সাদা পাউডারের মতো কিছু নজরে পড়ে নেটিজেনদের। তার পরেই সন্দেহ ছড়াতে থাকে যে ওই পার্টিটা সম্ভবত ছিল কোনও রেভ পার্টি যেখানে বিভিন্ন ধরনে ড্রাগস আনা হয়।

আরও পড়ুন: তেরো বছর পর বলিউডে ফিরছেন শিল্পা শেট্টি

গত দুদিন ধরেই করণ জোহরের ওই পার্টির বিতর্ক ক্রমশ ঘনীভূত হচ্ছে। সেই বিতর্কতে আরও একটু ইন্ধন জোগালেন হার্ড কাউর। বলিউডে এই ধরনের ড্রাগ সেবন নিয়ে এই ইস্যুটিকে কেন্দ্র করে একটি সংবাদ সংস্থাকে বলেন, ”ব্যাপারটা গাঁজা পর্যন্ত ঠিক ছিল কিন্তু এখন যা দাঁড়িয়েছে তা হল, যদি কেউ কোকেন না নেয়, তবে সে খুব একটা কুল নয়। এখানে ড্রাগস নেওয়া এক ধরনের দেখানেপনাতে পরিণত হয়েছে। কোকেন তো খুব দামি একটা নেশার জিনিস। এখানে হাবভাবটা এমন যে আমি স্টার তাই আমি যা খুশি করতে পারি। যেন তারকা মানেই সেক্স-ড্রাগস-রক এন রোল ধাঁচের জীবনযাপন করতে হবে। বলছি না আমি নিজে একজন আদর্শ মানুষ। আমাকেও মানুষ দেখেছেন অ্যালকোহলে আসক্ত হতে। কিন্তু সারাক্ষণ মডেল ও অভিনেতাদের দেখে চলেছি এই ধরনের নেশাকে প্রশ্রয় দিয়ে চলেছে। সবাই তাই করছে।”

আরও পড়ুন: সুস্মিতার বিয়ের তারিখ নিয়ে গুঞ্জন বলিউডে

তবে এমটিভি ভিজে নিখিল চোপড়ার বক্তব্য, এই সমস্যাটা শুধু ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির নয়। এটি একটি সামাজিক সমস্যা। শুধু মিউজিক অথবা সিনেমা জগৎ নয়, খেলাধূলার জগতেও এই সমস্যা রয়েছে। নিখিল বলেন, ”বরং খেলাধূলার জগতে এই সমস্যা অনেক বেশি। আর আমি যতটুকু পড়েছি বা জানি, বেআইনি ড্রাগের চেয়ে চিকিৎসাক্ষেত্রে ব্যবহৃত ওষুধের নেশা অনেক বেশি ভয়ঙ্কর। মানুষ পেনকিলার আর কাফ সিরাপের নেশা করেন। এটা অনেক বড় ইস্যু এবং এই নিয়ে কথা বলা উচিত। যারা ড্রাগের নেশা করে, তারা কোনও বিশেষ স্তর থেকে আসে না।”

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Rapper hard kaur comments on drugs in bollywood post karan johar party