scorecardresearch

বড় খবর

হিন্দুদের উৎসব নিয়ে এত অপপ্রচার! ইদ-ক্রিসমাসে চুপ থাকেন কেন? রীতেশকে প্রশ্ন নেটিজেনদের

ধর্ম নিয়ে কটাক্ষ বলিউড অভিনেতাকে।

Riteish Deshmukh, netizens trolled Riteish Deshmukh, Hindu festivals, রীতেশ দেশমুখ, কটাক্ষের শিকার রীতেশ দেশমুখ, হিন্দুধর্ম নিয়ে অপপ্রচারের অভিযোগ রীতেশের বিরুদ্ধে, bengali news today
রীতেশের টুইটে শোরগোল নেটদুনিয়ায়

ভিন্ন জাতির বাস যে দেশে, সে দেশে আর যাই হোক, বারো মাসে তেরো পার্বণের জায়গায় চোদ্দ পার্বণ যে অনুষ্ঠিত হবে, সেটা বলাই বাহুল্য। বাংলা, মহারাষ্ট্র, ওড়িষ্যা, রাজস্থান থেকে দক্ষিণী রাজ্যগুলো, প্রতিমাসেই কোনও না কোনও রাজ্যে উৎসব লেগে রয়েছে। আর আমাদের দেশে ধর্ম যার যার হলেও উৎসব সবার। কাজেই খাওয়া-দাওয়া, আড্ডা লেগেই থাকে। তবে প্রতিটা উৎসবেই মিষ্টি মাস্ট! সে বাঙালিদের উৎসব হোক কি দক্ষিণীদের পরব! সেই প্রেক্ষিতেই একটা টুইট করেছিলেন রীতেশ দেশমুখ (Riteish Deshmukh)। যা নিয়ে আপাতত শোরগোল টুইটারে।

উৎসবের দিনগুলোতে সাধারণত যেসব মিষ্টিগুলো খাওয়া হয় লাড্ডু, জিলিপি, কাজু বরফি থেকে চকোলেট.. এহেন নানা মিষ্টির একটি তালিকা দিয়ে কোনটার দাম কত এবং খেলে কতটা ওজন বাড়তে পারে, তার একটা হিসেব দিয়েছিলেন। আর ক্যাপশনে লিখেছিলেন, “বুদ্ধি করে বাছুন- মিষ্টি খাবেন না ওজন বাড়াবেন?” নিছক রসিকতার ছলেই। কিন্তু তাতেই ঘটে বিপত্তি! মোটেই ভাল মনে নেননি নেটিজেনরা। রে-রে করে ওঠেন অভিনেতার বিরুদ্ধে।

[আরও পড়ুন: টানা ৪ ঘণ্টা ম্যারাথন জেরা! ফের সোমবার অনন্যা পাণ্ডেকে তলব NCB’র]

অতঃপর রীতেশকে খোঁচা দিতেও ছাড়েননি কেউ কেউ। প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়েছেন অভিনেতার উদ্দেশে যে, “হিন্দুদের উৎসব নিয়ে এত অপপ্রচার করছেন কেন?” আবার কারও প্রশ্ন, “আপনারা শুধু হিন্দুদের উৎসব নিয়েই এত আপত্তি জানান, কোথায় ইদ কিংবা নিউ ইয়ার, ক্রিসমাসে কি নিজেদের মুখে কুলুপ আঁটেন?”

এত বিতর্ক-সমালোচনা নজর এড়ায়নি রীতেশ দেশমুখের। অতঃপর তিনিও পাল্টা জবাব দেন। তবে কোনওরকম খারাপ শব্দ প্রয়োগ করে নয়। বুদ্ধিমত্তার সঙ্গে বলেন, “আমি তো আপনাদের সাবধান করার জন্য টুইট করেছিলাম।”

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Riteish deshmukh accused of being biased against hindu festivals