বড় খবর


যুদ্ধক্ষেত্রে এসে ফেরার উপায় নেই, লড়তেই হবে: সঞ্চারী

Sanchaari Das: সান বাংলা-র ‘সর্বমঙ্গলা’ ধারাবাহিক দিয়ে ফিরলেন সঞ্চারী দাস। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা-কে জানালেন কতটা কঠিন ছিল দুবছরের বিরতির সময়টুকু।

Sanchaari Das shares her struggle before bagging lead role in Sun Bangla Sarbamangala
সঞ্চারী দাস। ছবি সৌজন্য: সান বাংলা

টেলিপর্দা থেকে দূরে ছিলেন বেশ অনেকদিন। সান বাংলা-র ‘সর্বমঙ্গলা’ ধারাবাহিকের নায়িকার চরিত্র নিয়ে ফিরছেন সঞ্চারী দাস। ধারাবাহিকের লিড চরিত্রে এই প্রথম কাজ। এর আগে জি বাংলা-র ‘আমার দুর্গা’ ধারাবাহিকে একটি প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন সঞ্চারী। এছাড়া বেশ কয়েকটি জি বাংলা অরিজিনালস রয়েছে তাঁর ঝুলিতে। কিন্তু ধারাবাহিকে ফিরলেন প্রায় দুবছর পরে। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা-কে অভিনেত্রী জানালেন এই বিরতি পুরোপুরিভাবে স্বেচ্ছা বিরতি ছিল না।

ডেইলি সোপে সব অভিনেতা-অভিনেত্রীদেরই কঠিন পরিশ্রমের মধ্যে দিয়ে যেতে হয়। যেহেতু চরিত্রগুলি অনেকদিন ধরে পর্দায় আসে, তাই এক একটি চরিত্রের মধ্যে অনেকটা একাত্ম হয়ে যান অভিনেতা-অভিনেত্রীরা। তাই একটি ধারাবাহিক শেষ হওয়ার পরে তাঁরা বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই বিরতি নিয়ে থাকেন, পরবর্তী ধারাবাহিক শুরুর আগে। সঞ্চারী জানালেন, তিনিও সেই বিরতি চেয়েছিলেন ঠিকই কিন্তু পরের দিকে সমস্যাটা দাঁড়িয়েছিল অন্য।

আরও পড়ুন: আমার মনে হয় ছবি করা হবে না: শ্বেতা ভট্টাচার্য

”একেবারেই বলব না যে পুরোটাই স্বেচ্ছার বিরতি। প্রথমদিকটা যেমন হয় যে পুরনো চরিত্র থেকে বেরিয়ে আসা, একটা রিফ্রেশমেন্টের প্রয়োজনীয়তা, সেগুলো তো ছিলই। পরের দিকে চরিত্র পছন্দ হচ্ছিল না বা যে চরিত্রগুলো আসছিল, তার জন্য কনফিডেন্ট ফিল করছিলাম না। কারণ আমার জীবনে এমন কোনও লক্ষ্য নেই যে আমাকে অভিনেত্রী হিসেবে কোনও বিশেষ জায়গায় পৌঁছতেই হবে বা ওটাই করতে হবে। আমার কারও সঙ্গে কোনও প্রতিযোগিতাও নেই। আমার লক্ষ্য, বর্তমান কাজটা যেন আগের কাজটাকে ছাপিয়ে যেতে পারে। আমি সেই ধরনের চরিত্রের জন্যই অপেক্ষা করছিলাম”, বলেন সঞ্চারী।

Sanchaari Das in Sarbamangala
‘সর্বমঙ্গলা’ রূপে সঞ্চারী।

সঞ্চারী এর আগে জানিয়েছিলেন যে ‘আমার দুর্গা’-তে সহ-নায়িকা বা পার্শ্বনায়িকার ভূমিকায় অভিনয়ের পরে তিনি এমন একটি চরিত্রের অপেক্ষায় রয়েছেন যেটি আগের চরিত্রের তুলনায় গুরুত্বে বড়। কিন্তু একটা সময় পর্যন্ত তেমন সুযোগ আসেনি। তাই একটা সময় পরে এই পেশা নিয়েই অনিশ্চয়তা শুরু হয়। সেই কঠিন সময়ের মধ্যেই, প্রায় ৭-৮ মাস আগে, প্রযোজক সুশান্ত দাসের সঙ্গে যোগাযোগ করেন তিনি।

আরও পড়ুন: মৎস্যকন্যার স্বপ্নে বিভোর, আশা জাগাল ‘ভটভটি’-র টিজার

”আমি তো কলেজে পড়তে পড়তে অভিনয় করা শুরু করেছি, মনে হচ্ছিল যে আমি যদি একাডেমিক কেরিয়ারের কথা ভাবি, তাহলে বোধহয় অনেক বেটার কিছু করতে পারব। কারণ আমি পড়াশোনায় খুব ভাল ছিলাম। কিন্তু আবার মনে অভিনয়েরও অনেক ইচ্ছা”, বলেন সঞ্চারী, ”ওই মুহূর্তে দাঁড়িয়েই আমি একজন সিনিয়রের সঙ্গে বিষয়টা শেয়ার করেছিলাম। উনি আমাকে বলেন, তুই এই ব্যাপারটা নিয়ে সুশান্তর সঙ্গে কথা বল। আমি খুব ভয়ে ভয়ে সুশান্তদাকে ফোন করেছিলাম। কারণ আমার মনে হয়েছিল, ইনিও যদি ফিরিয়ে দেন, তাহলে কী হবে?”

কিন্তু আশাভঙ্গ হয়নি, বরং আশাপূরণ হয়েছে। সান বাংলা-র ‘সর্বমঙ্গলা’ ধারাবাহিকের প্রথম টিজার এসেছিল মাস কয়েক আগে। আশা করা গিয়েছিল ধারাবাহিকটি হয়তো ২০১৯-এর শেষের দিকেই শুরু হবে। কিন্তু কিছু কারণবশত তা হয়নি। আগামী ২০ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে সম্প্রচার, সোম থেকে শনি রাত নটার স্লটে। নায়কের ভূমিকায় রয়েছেন ঋতজিৎ চট্টোপাধ্যায়। সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে ধারাবাহিকের প্রোমো যা দেখে নিতে পারেন নীচের লিঙ্কে–

 

”সেদিন সুশান্তদা যা বলেছিলেন, সেটা আমি সারাজীবন মনে রাখব”, বলেন সঞ্চারী, ”উনি বলেছিলেন যে, ইউ কান্ট স্টেপ ব্যাক, ওয়ানস ইউ হ্যাভ এন্টারড দ্য ব্যাটল ফিল্ড। যুদ্ধক্ষেত্রে একবার পা রাখলে সেখান থেকে ফিরে যাওয়ার কোনও মানে হয় না। তোকে লড়াই করতে হবে। আমিও মেয়ের বাবা। আমার মেয়েকেও বড় হলে আমি একই কথা বলব, যেটা তোকে বলছি। ইউ কান্ট স্টে অ্যাওয়ে ফ্রম ইওর ওয়র্ক। কারও প্রতি কোনও অভিমান বা রাগ ছাড়াই বলছি, সুশান্তদা বা টেন্ট সিনেমা যে নিঃস্বার্থ সহযোগিতা করেছে এবং এদের কাছ থেকে আমরা যা সাপোর্ট পেয়েছি, তার জন্য আমি আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞ। আজকে দাঁড়িয়ে আমার জীবনের প্রতিটা মুহূর্ত ‘সর্বমঙ্গলা’ হয়ে ওঠার প্রচেষ্টা।”

Web Title: Sanchaari das shares her struggle before bagging lead role in sun bangla sarbamangala

Next Story
কাশ্মীরি পণ্ডিতদের না বলা কাহিনি বলবেন বিধু বিনোদ চোপড়াshikara
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com