বড় খবর


শীত পড়তেই স্ত্রী মিথিলা ও মেয়ে আইরাকে নিয়ে চিড়িয়াখানায়, নস্ট্যালজিক সৃজিত

ছবি শেয়ার করে শৈশবের স্মৃতি রোমন্থন পরিচালকের।

srijit

শীত পড়লেই বাঙালির খানা-পিনা, দেদার আড্ডা আর চিড়িয়াখানা ভ্রমণ মাস্ট! হিমেল হাওয়া গায়ে মেখে নরম রোদে চিড়িয়াখানায় আড্ডা দেওয়া আর শৈশবের নস্ট্যালজিয়ায় গা ভাসানোর অভিজ্ঞতা বোধহয় অল্প-বিস্তর সবারই রয়েছে। পরিচালক সৃজিতের ক্ষেত্রেও তার অন্যথা হয়নি বইকী! তাই বোধহয় শহরে শীত পড়তেই স্ত্রী রফিয়াৎ মিথিলা রশিদ ও মেয়ে আইরাকে নিয়ে আলিপুর চিড়িয়াখানায় ঘুরে এলেন পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায় (Srijit Mukherjee)। আর সেই মুহূর্তগুলোই ক্যামেরাবন্দি করে শৈশবের নস্ট্যালজিয়ায় ভেসেছেন পরিচালক।

ছোটবেলায় বারো বছর বয়স অবধি প্রত্যেকবার শীতকালে বাবা-মার সঙ্গে চিড়িয়াখানায় ঘুরতে যেতেন সৃজিত। কালের নিয়মে সেই রীতিতে ছেদ পড়লেও জীবনে সবকিছুই যে আবার ঘুরে-ফিরে আসে মেয়ে আইরার সঙ্গে ছবি শেয়ার করে তা মনে করিয়ে দিয়েছেন ‘মুখুজ্জেমশাই’। একটা সময়ে নিজে বাবা-মায়ের সঙ্গে চিড়িয়াখানা ঘুরতে যেতেন, আর এবার নিজের শৈশবের সেই অভিজ্ঞতাতেই মেয়ে আইরাকে শামিল করাতে তাকেও নিয়ে গেলেন চিড়িয়াখানায়। ফেসবুক পোস্টে সেকথাই লিখেছেন পরিচালক যে, “কোনও কিছুই বদলায় না। সবকিছুই জীবনে ঘুরে-ফিরে আসে। তবে অন্যভাবে।”

শৈশবে যখন চিড়িয়াখানা যেতেন, তখন বাবা নানারকম পশু-পাশির গল্প শোনাতেন সৃজিতকে। বাবা হিসেবে মেয়ে আইরাকেও সেই একই অভিজ্ঞতার শামিল করতে চেয়েছেন। কোলে করে চিড়িয়াখানায় ঘুরিয়ে নানা জীব-জন্তুর গল্প শুনিয়েছেন। পরিচালকের সেই ছবি দেখে নেটিজেনরাও শৈশবের নস্ট্যালজিয়ায় ভেসেছে।

এদিন চিড়িয়াখানায় ঘুরতে যাওয়ার বেশ কয়েকটি ছবি শেয়ার করেছেন সৃজিত। যেখানে মেয়ে আইরার সঙ্গে তাঁকেও দেখা গেল সেই শৈশবের আমেজে ভেসে যেতে। কখনও হাতির সামনে দাঁড়িয়ে মজাচ্ছলে ক্যামেরার সামনে পোজ দিয়েছেন, তো আবার কখনও বা মেয়েকে কোলে নিয়ে ঝুঁকে চিতাবাঘ দেখছেন। ছোট্ট আইরাও যে এই সময়টা বাবা-মায়ের হাত ধরে চিড়িয়াখানায় বেশ উপভোগ করেছে, সৃজিতের শেয়ার করা ছবিগুলোতেই রয়েছে তার সুস্পষ্ট ইঙ্গিত। মিথিলাও এদিনের ছবি শেয়ার করেছেন ইনস্টাগ্রামে।

Web Title: Srijit mukherjee visits alipur zoo along with wife mithila and daughter

Next Story
বড়দিনের মিষ্টি উপহার, মা-মায়ের সম্পর্কের গল্প বলতে আসছে ‘চিনি’chini
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com