scorecardresearch

বড় খবর

‘নারীকেন্দ্রিক ছবি বলে বাদ!’, ‘শ্রীমতি’র জন্য হল না পেয়ে SVF-কে চরম কটাক্ষ স্বস্তিকার

‘শ্রীমতি’র হয়ে যুদ্ধে নেমেছেন স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়।

‘নারীকেন্দ্রিক ছবি বলে বাদ!’, ‘শ্রীমতি’র জন্য হল না পেয়ে SVF-কে চরম কটাক্ষ স্বস্তিকার
'শ্রীমতি'র শো টাইমিং নিয়ে SVF-এর সঙ্গে যুদ্ধ স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়ের

সদ্য মুক্তি পেয়েছে স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়ের সিনেমা ‘শ্রীমতি’। পয়লা সপ্তাহেই দর্শক থেকে সমালোচকরা দলে দলে হলে গিয়ে প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়েছেন অভিনেত্রীকে। কিন্তু সপ্তাহ ঘুরতেই এ কী হাল! যথাযথ শো টাইম-ই পেল না স্বস্তিকার সিনেমা। স্বভাবচিতভাবে নায়িকাও দমে যাওয়ার পাত্রী নন। হল ডিস্ট্রিবিউশনের দায়িত্বে থাকা টলিউডের সবথেকে বড় ও জনপ্রিয় ব্যানার SVF-কে একেবারে তুলোধনা করে ছাড়লেন স্বস্তিকা।

প্রথম সপ্তাহে ১৭টা হল পেলেও দ্বিতীয় সপ্তাহে অর্জুন দত্ত পরিচালিত ‘শ্রীমতি’র স্লট কমিয়ে দিয়ে তা একেবারে এক-তৃতীয়াংশ করে দেওয়া হয়েছে। এমনকী শোয়ের টাইমিং নিয়েও আপত্তি তুলেছেন স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। দ্বিতীয় সপ্তাহে মাত্র ৪টে হল। আর শোয়ের টাইমিং দেওয়া হয়েছে দুপুর ১২-১টা নাগাদ। সেই প্রেক্ষিতের নায়িকা প্রশ্ন ছুঁড়েছেন- কে যাবেন ভরদুপুরে স্কুল-অফিস কামাই করে, বাড়ির কাজকর্ম ফেলে রেখে সিনেমা দেখতে?

‘শ্রীমতি’র স্লট কেন কমিয়ে দেওয়া হল? সেই ফান্ডাটাই বাতলেছেন স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। বললেন, “আমাদের ডিস্ট্রিবিউটার SVF। তাদের নিজেদের প্রযোজিত ছবি ‘কুলের আচার’ রিলিজ করেছে শুক্রবার। তাই সব ভাল শো তাদের। এটাই তো হয়ে এসেছে, এটাই হবে।” টলিপাড়ার নামজাদা প্রযোজনা সংস্থাকে বিঁধে নায়িকার এমন মন্তব্যে শোরগোল পড়ে গিয়েছে।

প্রসঙ্গত, মাসখানেক ধরেই ‘বাংলা ছবি দেখুন, বাংলা ছবির পাশে দাঁড়ান’ আন্দোলন চলছে। নেটদুনিয়াতেও কম লেখালেখি হয়নি এই নিয়ে। সম্প্রতি অনীক দত্ত পরিচালিত ও জিতু কামাল অভিনীত ‘অপরাজিত’র হল না পাওয়া নিয়েও তুলকালাম বেঁধেছিল। এবার ‘শ্রীমতি’র জন্য রণক্ষেত্রে নামলেন খোদ স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়।

ফেসবুক পোস্টে নায়িকার মন্তব্য, “বাংলা ছবি দেখুন, বাংলা ছবি সাপোর্ট করুন কিন্তু কে কীভাবে করবে? ডিসট্রিবিউটার যে ছবি চালাতে চাইবে সেই ছবি চলবে। নতুন প্রযোজক হলে তাকে কোনরকম জায়গা দেওয়া হবে না। উঠতি পরিচালক হলে তাকে পাত্তা দেওয়ার দরকার নেই। আর নারীকেন্দ্রীক ছবি হলে তো প্রথম থেকেই বাদ এর খাতায়। ভাল চললেও, মানুষ উচ্ছসিত হয়ে প্রশংসা করলেও, রিভিউ/ফিডব্যাক সব দারুণ হলেও তাতে কি? হল দেওয়া হবে না। আর দেওয়া হলেও এমন শো টাইম দেওয়া হবে যাতে কেউ না যেতে পারে। সিনেমার বাজার তলানিতে ঠ্যাকে এবং তৃতীয় সপ্তাহে ছবি উঠিয়ে দেওয়া যায়। ‘শ্রীমতি’র কপালেও এটাই হল। কোটি টাকা খরচ করে ছবি বানানো হয় কিন্তু তাকে দুটো সপ্তাহ সময় দেওয়া হবেনা।”

[আরও পড়ুন: লোকে আমাকে মোটা, শ্রী-হীন, থলথলে অনেক কিছুই বলে: স্বস্তিকা]

এখানেই অবশ্য থামেননি স্বস্তিকা। দর্শকদের হয়েও সুর চড়িয়েছেন তিনি। অভিনেত্রী কড়াভাবেই বললেন, “আপনারা অফিস কামাই করে, আর মা-মাসি-দিদারা সব কাজ ফেলে রেখে দুপুরবেলা ‘শ্রীমতি’ দেখতে যাবেন না। পরের সপ্তাহে এমনিও উঠিয়ে দেবে। ব্যস, বাংলা ছবিকে এইভাবেই বাংলা ছবির ডিসট্রিবিউটাররা সাপোর্ট করবে। শুধু মন দিয়ে অভিনয় করলে হবে? ছবি চলতে দেবেনা তাই নিয়েও যুদ্ধ করতে হবে। করেও কিছু হবে না।”

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Swastika mukherjee slams svf as shrimati doesnt get cinema hall