বড় খবর


‘যদি তোমার থাকে, তবে দেখাও’, সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘সোজাসাপটা’ স্বস্তিকা

ট্রোলিং, সাইবার বুলিং নিয়ে ‘ডোন্ট কেয়ার’ টলিউড অভিনেত্রী।

swastika

সোশ্যাল মিডিয়ায় মেয়েদের প্রায়ই কটাক্ষের মুখে পড়তে হয়। বিষয়টা খানিক যেন জলভাতের মতোই হয়ে দাঁড়িয়েছে! স্কার্টের ঝুল মাপা, ব্লাউজের গভীরতা মাপা থেকে শুরু করে শাড়ি আঁচল সরে গিয়ে কেন নাভির অংশ বেরলো?… বক্ষ বিভাজিকা উঁকি দিল?… নেটজনতাদের আতস কাচ যেন তৈরিই থাকে সবসময়ে! আর তার প্রভাবও স্পষ্ট পরিলক্ষিত হয় ছবির কমেন্ট বক্সে। একের পর এক অশালীন, কদর্য মন্তব্য উপচে পড়ে! তারকাদের ক্ষেত্রেও তার অন্যথা হয় না। তবে এসব বিষয়ে স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় (Swastika Mukherjee) বরাবরই সাহসী। স্পষ্টভাষীও বটে! কে কী বলল একেবারে ‘ডোন্ট কেয়ার’! নিজের মতো চলতেই পছন্দ করেন। পোশাক নিয়ে তাঁকে একাধিকবার ট্রোলের সম্মুখীন হলেও জোর কণ্ঠে তার প্রতিবাদ জানিয়েছেন। এবারও সোশ্যাল মিডিয়ায় সাহসীনী অবতারে ধরা দিলেন অভিনেত্রী। বললেন, “যদি তোমার থাকে, তবে দেখাও।”

স্বস্তিকার সাফ কথা, কিছু প্রকাশ করার থাকলে তা মন খুলে করাই ভাল। তা সে বিভাজিকা প্রদর্শনই হোক কিংবা শরীরী খাঁজ। রাখঢাক বিষয়টা তাঁর বরাবরই না-পসন্দ। এক্ষেত্রেও তার অন্যথা হল না। অভিনেত্রীর সাম্প্রতিক পোস্টেও তেমনটাই বার্তা দেওয়া। যা কিনা ইতিমধ্যেই ঝড় তুলে দিয়েছে নেটদুনিয়ায়। ধূসর রঙের শাড়ি-গাউন পরা একটি ছবি সদ্য পোস্ট করেছেন অভিনেত্রী। সেখানেই ক্যামেরার সামনে ভিন্ন পোজে ধরা দিলেন অভিনেত্রী। কখনও বা পাণীয়র গ্লাস হাতে দাঁড়িয়েছেন। আবার কখনও বা উরুর সিংহভাগ উন্মুক্ত। চোখেমুখে সাহসীকতা সুস্পষ্ট। ছোট করে ছাঁটা চুল। তাতেও একদিকে স্টাইল করা। নারী মানেই দীর্ঘকেশি, প্রচলিত এই ধারণাকে যেন ধূলিস্যাৎ করে দিয়েছেন একেবারে।

সংশ্লিষ্ট পোস্টেই স্বস্তিকার বার্তা, “যদি তোমার থাকে, তবে দেখাও। সোজা ব্যপার।” স্বস্তিকার এই সাহসী বার্তায় কিন্তু সমর্থন জানিয়েছেন তাঁর ‘ব্ল্যাক উইডো’ সহ-অভিনেত্রী শমিতা শেট্টিও। নিজের রুচিমাফিক পোশাক পরা কিংবা শরীরী খাঁজ প্রদর্শন করা যে আর পাঁচটা বিষয়ের মতোই জলভাত ব্যাপার, তা আবারও এই পোস্টের মাধ্যমেই বুঝিয়ে দিলেন অভিনেত্রী।

Web Title: Swastika mukherjees bold post goes viral over social media

Next Story
কেস ডায়েরি জমা দেয়নি পুলিশ, ফের পিছোল কমেডিয়ান মুনাওয়ার ফারুকির জামিনmunawar-faruqui
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com