বড় খবর

ধাবা-ভোজন শিকেয়! মমতার খাসতালুকে ‘বিপাকে’ বাবুল, রিপোর্ট তলব নির্বাচন কমিশনের

বিক্ষোভকারীদের নেতৃত্ব দেওয়ার অভিযোগ ওঠে যুব তৃণমূলের সম্পাদক ওয়াসিম আহমেদের বিরুদ্ধে।

Babul

বৃহস্পতিবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) খাসতালুক ভবানীপুরে (Bhawanipur) গিয়ে বিক্ষোভের মুখে পড়েছিলেন বাবুল সুপ্রিয় (Babul Supriyo)। রাতে মুখ্যমন্ত্রীর পাড়ার এক ধাবায় খেতে গিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা আসানসোলের বিজেপি সাংসদ। এরপরই ঘটে বিপত্তি! সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রের পদ্ম-প্রার্থী না হয়েও মহাবিপাকে পড়তে হয় তাঁকে। বাবুলকে দেখেই এলাকার তৃণমূল কর্মী-সমর্থকরা ‘খেলা হবে’ স্লোগান তুলে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। অভিযোগের তীর সোজাসুজি উত্তর কলকাতার যুব তৃণমূল (TMC) সেক্রেটারি ওয়াসিম আহমেদের দিকে। এবার সেই প্রেক্ষিতেই রিপোর্ট তলব করল নির্বাচন কমিশন (Election Commission)।

ঠিক কী ঘটেছিল সেদিন রাতে? টালিগঞ্জ (Tollygunge) কেন্দ্র থেকে বিজেপি প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দিতা করছেন বাবুল সুপ্রিয়। শিয়রেই ভোট। দ্বিতীয় ও চতুর্থ দফার প্রার্থী ঘোষণার পর থেকেই রাতারাতি সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রে তাঁর নামে দেওয়াল লিখন সেরে ফেলেছে গেরুয়া শিবিরের কর্মী-সমর্থকরা। হাতে সময়ও কম। তাই ইতিমধ্যেই টালিগঞ্জে প্রচার শুরু করে দিয়েছেন বাবুল সুপ্রিয়। কারণ, তাঁর প্রতিপক্ষ তৃণমূলের পোড় খাওয়া নেতা তথা মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস (Arup Biswas)। কাজেই আসানসোলে দাপট হলেও টালিগঞ্জের আসন দখল বাবুলের জন্য যথেষ্ট চ্যালেঞ্জিং। ইতিমধ্যেই কোমর বেঁধে প্রচার শুরু করে দিয়েছেন বিজেপির হেভিওয়েট প্রার্থী। বৃহস্পতিবারও প্রচার করতে গিয়েছিলেন নিজস্ব কেন্দ্রে। এরপরই ভোটপ্রচার সেরে রাতে ভবানীপুরের হরিশ মুখার্জি রোডের
বলওয়ান্ত সিং ধাবায় খেতে যান তিনি। আর সেখানেই গিয়েই বিক্ষোভের মুখে পড়েন।

টালিগঞ্জের বিজেপি প্রার্থীকে দেখে তৃণমূলের কর্মী-সমর্থকরা বিক্ষোভ শুরু করেন। শুধু তাই নয়, হুঁশিয়ারি দেগে ‘খেলা হবে’ স্লোগানও তুলতে দেখা যায় তাঁদের। কথা বলে, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করলেও হালে পানি পাননি কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা বিজেপি (BJP) সাংসদ। পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছয় যে, খাবার খাওয়া শিঁকেয় তুলে তখনই নিরাপত্তীরক্ষীদের নিয়ে ধাবা ছেড়ে বেরতে বাধ্য হন বাবুল সুপ্রিয়। আর এই গোটা ঘটনায় নেতৃত্ব দেওয়ার অভিযোগ ওঠে যুব তৃণমূলের সম্পাদক ওয়াসিম আহমেদের বিরুদ্ধে।

ভবানীপুরে বিক্ষোভের মুখে পড়েই রাজ্যের শাসকদলকে বিঁধতে ময়দানে নামেন বাবুল সুপ্রিয়। তাঁর মন্তব্য, “প্রচারের পর বলবন্ত সিং ধাবায় গভীর রাতে চা খেতে গিয়েছিলাম। কিন্তু গাড়ি থেকে নামতেও পারিনি। তার আগেই উত্তর কলকাতার যুব তৃণমূল (TMC) সেক্রেটারি ওয়াসিম আহমেদ এবং আরও কয়েকজন এসে স্লোগান দিতে শুরু করে। এটাই প্রমাণ যে গুন্ডামি আর গন্ডগোল পাকানোই #TMChhi-র আসল চরিত্র। এই ঘটনা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘Below the Belt’ রাজনৈতিক আচরণেরই ইঙ্গিত দেয়।” এরপর তৃণমূলকে পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে এও বলেন যে, “এই সব কিছুর শেষ হবে ২মে। খেলা নয়, নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে এবার উন্নয়ন হবে।” আর এমন ঘটনার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই কমিশনের তরফে রিপোর্ট তলব করা হয়।

Get the latest Bengali news and Entertainment news here. You can also read all the Entertainment news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Tmc workers agitating against tollygunge bjp candidate babul supriyo

Next Story
পদ্ম আঁকা, চা-ফুচকার আড্ডা, ‘স্বাধীনতা সংগ্রামীর নাতনি’ পদ্ম-প্রার্থী শ্রাবন্তীর প্রচারে চমকsrabanti
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com