বড় খবর

‘সিরাজ তোমার জন্য গর্ব হয়’, বাবার সমাধিস্থলে কান্নায় ভেঙে পড়া ক্রিকেটারের পাশে ধর্মেন্দ্র

অজি সফরের মাঝেই বাবাকে হারিয়েছেন। সেই সিরাজের জন্য আবেগঘন বার্তা পোস্ট প্রবীণ বলিউড অভিনেতা ধর্মেন্দ্রর।

dharmendra

‘…দ্য শো মাস্ট গো অন!’ কথাতেই আছে। ভারতীয় ক্রিয়েটার মহম্মদ সিরাজ (Mohammed Siraj) তাঁর বাস্তব জীবনে আদতেই তা করে দেখালেন। বাবাকে শেষবার চোখের দেখা দেখতে পারেননি। অস্ট্রেলিয়া সফরের মাঝেই দুঃসংবাদটা পেয়েছিলেন যে, বাবা আর ইহজগতে নেই। কিন্তু মাঝপথে খেলা ছেড়ে দেশে ফিরে আসেননি। বাবার শেষকৃত্যে অংশ নেওয়ার জন্য বোর্ডের সবুজ সংকেত থাকলেও তাতে মন সায় দেয়নি সিরাজের। অতঃপর, অজি সফর সেরে সদ্য দেশে ফিরেই বাবার সমাধিস্থলে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন ভারতীয় ক্রিকেটার। আর সেই ছবি নেটদুনিয়ায় ভাইরাল হতেই সিরাজের পাশে দাঁড়িয়ে এক আবেগঘন বার্তা পোস্ট করেন বলিউডের প্রবীণ অভিনেতা ধর্মেন্দ্র (Dharmendra)।

উল্লেখ্য, এবারের অজি সফরের অন্যতম বড় আবিষ্কার মহম্মদ সিরাজ। বল হাতে দুরন্ত পারফরম্যান্স মেলে ধরেছেন তিনি। বাবার মৃত্যুসংবাদে মন থেকে বিচলিত হলেও ময়দানে পারফরম্যান্সে কোনও ঘাটতি রাখেননি তিনি। আসলে বাবা মহম্মদ ঘাউসের স্বপ্ন ছিল তাঁকে টেস্ট ম্যাচ খেলতে দেখা। বুকে কষ্ট চেপে রেখে সেটাই করেছেন সিরাজ। পিতৃহারা এক ছেলের সেই ব্যথা উপলব্ধি করেই ধর্মেন্দ্রর আবেগঘন বার্তা, “গতকাল তোমার বাবার সমাধিস্থলে তোমাকে কান্নায় ভেঙে পড়তে দেখে, আমার মনটা ভারাক্রান্ত হয়ে গেল।”

“সিরাজ তোমার জন্য গর্ববোধ করি। বাবার মৃত্যুসংবাদ বুকে চেপে রেখে দেশের সম্মানের জন্য খেলেছো তুমি। আর বিদেশ থেকে ফেরার আগে দেশকে জিতিয়েই ফিরেছো। তাই যখন গতকাল তোমার বাবার সমাধিস্থলে তোমাকে কান্নায় ভেঙে পড়তে দেখলাম, আমার মনটা কেমন একটা ভারাক্রান্ত হয়ে গেল। কামনা করি, ওঁর জন্নতে স্থান হোক”, ভারতীয় ক্রিকেটার সিরাজের উদ্দেশে লিখলেন ধর্মেন্দ্র।

প্রবীণ বলিউড অভিনেতার এমন টুইটে মহম্মদ সিরাজের প্রতি সহমর্মিতা জানিয়েছেন তাঁর অনুরাগীরাও। এই কঠিন মুহূর্তে তাঁর পরিবার-পরিজন যেন সামলে ওঠেন, সেই কামনাই করেছেন ধর্মেন্দ্র-অনুরাগীরা।

Web Title: Veteran bollywood actor dharmendras emotional note for mohammed siraj

Next Story
সুশান্তকে অভিনব শ্রদ্ধার্ঘ্য, দক্ষিণ দিল্লির রাস্তার নামকরণ প্রয়াত অভিনেতার নামেSushant
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com