বড় খবর


‘বিশেষ বন্ধু’, তবে ভিন্ন দলে! নুসরত প্রসঙ্গে যশের উত্তর ‘অক্ষয়-টুইঙ্কল বিবাহিত, আমরা নই’

কীসের ইঙ্গিত দিতে চাইলেন সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া অভিনেতা?

Yash

“অক্ষয়-টুইঙ্কেল বিবাহিত, আমরা নই”, রাজনীতির ময়দানে নেমে কীসের ‘ইঙ্গিত’ দিলেন যশ দাশগুপ্ত (Yash Dasgupta)? অক্ষয় কুমার (Akshay Kumar) গেরুয়া শিবির ঘনিষ্ঠ অভিনেতা হিসেবেই পরিচিত। কিন্তু তাঁর স্ত্রী অভিনেত্রী-লেখিকা টুইঙ্কেল খান্না (Twinkle Khanna) সদা ব্যস্ত মোদী সরকারের সমালোচনা করতে। যশ-নুসরতের ক্ষেত্রেও সেই ‘সহাবস্থান সমীকরণ’ খাটবে? তেমনটাই কি ইঙ্গিত দিতে চাইলেন সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া অভিনেতা?

উল্লেখ্য, মঙ্গলবারই কৈলাস-মুকুলদের হাত ধরে গেরুয়া মন্ত্রে দীক্ষিত হয়েছেন যশ দাশগুপ্ত (Yash Dasgupta)। তৃণমূল সাংসদ নুসরত জাহানের (Nusrat Jahan) ‘বিশেষ বন্ধু’ তিনি। অতঃপর অনেকেই প্রশ্ন তুলেছিলেন যে, বিরোধী রাজনৈতিক দলের সদস্য হওয়ায় কি ‘যশরত’-এর বন্ধুত্বের সমীকরণ এবার বদলাতে চলেছে? বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পরই অবশ্য অভিনেতাকে এমন প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়েছে। তখন অবশ্য তিনি বলেছিলেন যে, বন্ধুত্বটা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি থেকে যখন শুরু হয়েছে, তখন ভিন্ন রাজনৈতিক মতাদর্শের জন্য তাতে প্রভাব পড়বে না! তবে এবার আরও একধাপ এগিয়ে নুসরতের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ককে অক্ষয়-টুইঙ্কেলের সঙ্গে তুলনা করলেন যশ।

কারণ, যশ-নুসরতের সম্পর্কের গুঞ্জনে এদিকে সরগরম টলিপাড়া, আবার সেই যশেরই যোগদান বিজেপির কাছে ‘চমক’। যশের বিরোধী শিবিরে নাম লেখানো নিয়ে যদিও এখনও পর্যন্ত সরাসরি কোনও প্রতিক্রিয়া দেননি নুসরত, তবে সোশ্যাল মিডিয়ায় হাবেভাবে বুঝিয়ে দিয়েছেন যে, তিনি দিদির পাশেই রয়েছেন। তবে সম্প্রতি এক সংবাদমাধ্যমে যশকে এই নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, “একই পরিবারের সদস্যদের কি ভিন্ন রাজনৈতিক মতাদর্শ হতে পারে না?” যশ এই প্রসঙ্গে বুঝিয়ে দেন যে, রাজনীতি এবং হৃদয় কিন্তু সরলরেখা ধরে হাঁটে না।

তাহলে কি অক্ষয় কুমার এবং টুইঙ্কেল খান্নার মতোই ভিন্ন রাজনৈতিক মতাদর্শ নিয়ে শান্তিপূর্ণ সহবস্থান বজায় রাখবেন যশ-নুসরত? প্রশ্ন ছোঁড়া হলে, অভিনেতার স্পষ্ট উত্তর, “এ ক্ষেত্রে সে কথা বলা ঠিক হবে না। কারণ, অক্ষয় কুমার এবং টুইঙ্কেল খান্না বিবাহিত। আমি এবং নুসরত তা নই।” তবে বিবাহিত না হলেও সম্পর্কের জল্পনা কিন্তু পুরোপুরি তিনি উড়িয়ে দেননি তাঁর উত্তরে।

অন্যদিকে তৃণমূল সূত্রে খবর, নুসরতের পাশাপাশি তিনিও রাজ্যের শাসক দলেই যোগ দিতে চেয়েছিলেন। এবং তার জন্য মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎও সারেন। কিন্তু কোনও এক কারণে নিরাশ হয়ে ফিরতে হয়ে তাঁকে। তবে তাঁর জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতি তাঁর সম্মান বিন্দুমাত্র কমেনি যশ দাশগুপ্তর। বরং, বিজেপিতে যোগদানের আগে ‘দিদি’র কাছ থেকে আশীর্বাদও নিয়েছেন তিনি। অভিনেতার লক্ষ্য, দোষারোপ কিংবা বিরোধী পক্ষকে কাদা ছোঁড়োছুড়ি নয়, বরং বাংলার যুবসমাজের উন্নতির লক্ষ্যেই তিনি পদ্ম শিবিরে যোগ দিয়েছেন।

Web Title: Yash dasgupta opens up on his friendship with tmc mp nusrat jahan

Next Story
বিগ বি-অক্ষয়ের শ্যুটিং বন্ধের হুমকি! ‘আপনারা পক্ষপাতদুষ্ট, জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধিতে মুখ খুলুন’, কেন এই নিদান?
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com