বড় খবর

নিষিদ্ধ চিনা অ্যাপ- ভারতে জনপ্রিয়তম কয়েকটির হিসেব নিকেশ

বাইটড্যান্সের ওয়েবসাইটের তথ্য অনুসারে এর পেরেন্ট সংস্থা বাইটড্যান্স লিমিটেড কেম্যান আইল্যান্ডে নথিভুক্ত। এই সংস্থার অধীনস্থ পাঁচটি সংস্থার একটি টিকটক লিমিটেড। এটিও কেম্যান্স আইল্যান্ডে নথিভুক্ত। 

Chinese App Banned
এ দেশে এসব অ্যাপের সম্মিলিত ব্যবহারকারীর সংখ্যা কয়েক কোটি

সোমবার কেন্দ্র চিনের সঙ্গে যুক্ত ৫৯টি অ্যাপ অন্তর্বর্তীকালীন নিষিদ্ধ বলে ঘোষণা করেছে। কারণ হিসেবে দেশের সার্বভৌমত্ব ও জাতীয় সুরক্ষার ঝুঁকির কথা বলা হয়েছে। যেসব অ্যাপ নিষিদ্ধ হয়েছে তার মধ্যে রয়েছে টিকটক, ক্যামস্ক্যানার ও ইউসি ব্রাউজার। এ দেশে এসব অ্যাপের সম্মিলিত ব্যবহারকারীর সংখ্যা কয়েক কোটি। ভারতে টিকটক, ইউসি ব্রাউজার ও শেয়ারইটের আয়ের হিসেবে এবং তাদের বেতনভুক কর্মীর হিসেবে অবস্থান গুরুত্বপূর্ণ।

৫৯টি নিষিদ্ধ অ্যাপের মধ্যে অধিক ব্যবহৃত কয়েকটি অ্যাপের দিকে নজর দেওয়া যাক।

টিকটক ও হেলো

বাইটড্যান্স (ইন্ডিয়া) টেকনোলজি প্রাইভেট লিমিটেড সংস্থার দুটি সোশাল মিডিয়া অ্যাপের মোট ব্যবহারকারীর সংখ্য়া সারা দেশে সক্রিয় ব্যবহারকারীর সংখ্যা ১৭০ মিলিয়নের বেশি। ভারতে টিকটকের বাজার সবচেয়ে বড়, এখানে টিকটক ডাউনলোড হয়েছে ৬১১ মিলিয়ন, মোট ডাউনলোডের এক তৃতীয়াংশ। এর পরেই রয়েছে চিন ও আমেরিকা।

আরও পড়ুন, অ্যাপ ব্যানের নির্দেশ: ভারতের যুবসমাজের কাছে চিনের পথ বন্ধ

তবে অ্যাপ থেকে আয়ের হিসেবে ভারত এগিয়ে নেই। ২০১৮-১৯ সালে, সংস্থার ভারতে ব্যবসায়ের প্রথম বছরে বাইটড্যান্সের আয় হয়েছিল ৪৩.৬ কোটি, পরের বছরে তাদের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১০০ কোটি। আমমেরিকায় এই অ্যাপ ডাউনলোড করা হয়েছে ১৬৫ মিলিয়ন বার, ২০১৯ সালে সেখানে আয়ের পরিমাণ ভারতীয় মুদ্রায় ৬৫০ কোটি টাকার উপরে। চিনে ১৯৭ মিলিয়ন ইউজার ওই একই বছরে কোম্পানিকে দিয়েছিলেন ভারতীয় মুদ্রায় ২৫০০ কোটি টাকা।

ভারতের আটটি শহরে সংস্থার প্রশাসনিক উপস্থিতি রয়েছে এবং এখানে কাজ করেন ১০০০ জনেরও বেশি। বাইটড্যান্স ইন্ডিয়া কিন্তু চিনের সংস্থার মালিকানাধীন নয়। বাইটড্যান্সের ওয়েবসাইটের তথ্য অনুসারে এর পেরেন্ট সংস্থা বাইটড্যান্স লিমিটেড কেম্যান আইল্যান্ডে নথিভুক্ত। এই সংস্থার অধীনস্থ পাঁচটি সংস্থার একটি টিকটক লিমিটেড। এটিও কেম্যান্স আইল্যান্ডে নথিভুক্ত।  টিকটক লিমিটেডের অধীন সিঙ্গাপুরে নথিভুক্ত টিকটক পিটিই লিমিটেড,তার অধীনে কর্মরত বিভিন্ন সংস্থা ভারত ও দক্ষিণ এশিয়ায় নথিভুক্ত।

গত বছর বাইটড্যান্স আগামী তিন বছরে ভারতীয় বাজারে ১ বিলিয়ন ডলার লগ্নির কথা ঘোষণা করেছিল।

ইউসি ব্রাউজার ও ইউসি নিউজ

আলিবাবা গোষ্ঠীর এই প্ল্যাটফর্ম চালায় ইউসিওয়েব মোবাইলল প্রাইভেট লিমিটেড নামের এক সংস্থা, এদের সক্রিয় ব্যবহারকারীর সংখ্যা ১৩০ মিলিয়ন। দেশে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত মোবাইল ব্রাউজার গুগল ক্রোমের ঠিক পরেই রয়েছে এই ব্রাউজার। গুগল ক্রোমের মার্কেট শেয়ার ৭০ শতাংশ, ইউসি ব্রাউজারের ২২ শতাংশ। ইউসি ওয়েব মোবাইল সংস্থার এদেশে কর্মীর সংখ্যা ১০০-র কম, ২০১৮-১৯ সালে তাদের আয় ২২৬.৬৮ কোটি টাকা। এ অর্থের বেশিরভাগই এসেছে বিজ্ঞাপন থেকে।

রেজিস্ট্রার অফ কোম্পানিজের তথ্য অনুসারে ভারতের ইউসিওয়েব মোবাইল প্রাইভেট লিমিটেড-এর ৯৯ শাতংশই রয়েছে ইউসি মোবাইল নিউ ওয়ার্ল্ড সংস্থার হাতে, যা ব্রিটিশ ভার্জিনিয়া আইল্যান্ডের সংস্থা। তবে সরকারি তথ্য বলেছে এই সংস্থার লগ্নি এসেছে সরাসরি বিদেশি লগ্নির আওতায় চিন থেকে। ইউসি মোবাইল প্রাইভেট লিমিটেড সংস্থার বাকি ১ শতাংশ শেয়ার রয়েছে ইউসি মোবাইল ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেড সংস্থার হাতে, যা কেম্যান্স আইল্যান্ডে নথিভুক্ত।

আরও পড়ুন, টিকটক ও অন্যান্য চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ, এর প্রভাব কী?

শেয়ারইট

সবচেয়ে জনপ্রিয় এই ফাইল শেয়ারিং অ্যাপের ভারতে ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৪০০ মিলিয়নের বেশি। এই অ্যাপের মার্কেটিং হয়েছে মূলত মুখে মুখে। সারা বিশ্বে এর ব্যবহার কারীর সংখ্যা ১.৮ বিলিয়নের বেশি। তবে এ সংস্থা একটা সময়ের পর আর প্ল্যাটফর্ম থেকে অর্থোপার্জন করতে পারেনি। 

 ক্লাব ফ্যাক্টরি

সংস্থার দাবি তারা ভারতের তৃতীয় বৃহত্তম ই কমার্স সংস্থা। এই অনলাইন প্ল্যাটফর্মের বিক্রেতার সংখ্যা ৩০ হাজার। সংস্থার ভারতীয় এন্টিটি গ্লোবম্যাক্স কমার্স ইন্ডিয়া প্রাইভেট লিমিটেডের ৯৯.৯৯ ষতাংশ হংকংয়ের কোম্পানি আনবিটেন প্রাইস লিমিটে়ের হাতে। ২০১৮-১৯ সালে গ্লোবম্যাক্স কমার্সের মোট আয় ছিল ১৭২.১৪ কোটি টাকা। ক্লাব ফ্যাক্টরির কর্মীর সংখ্যা ৯০-এর কাছাকাছি।

শেইন

শেইন ফ্যাশন ও লাইফস্টাইল প্রডাক্টের আরেকটি ই কমার্স প্ল্যাটফর্ম। ভারতে এর কাজের পরিচালনা করে গুরগাঁওয়ের শাইন ইন্ডিয়া প্রাইভেট লিমিটেড। এ সংস্থার লক্ষ্য ভারতের অপেক্ষাকৃত ছোট টায়ার ২ ও টায়ার ৩ শহর। দেশে সংস্তার জনা পঞ্চাশেক কর্মী রয়েছে। ভারতে এর ব্যবহারকারীর সংখ্যা ১০ লক্ষ ছাড়ালেও, গত বছর শুল্ক ফাঁকির অভিযোগে কাস্টমস বিভাগ সংস্থার উপর ঝাঁপিয়ে পড়ায় আংশিক কাজ বন্ধ রাখতে হয়।

ক্যামস্ক্যানার

বিশ্বের সবচেয়ে বহুল ব্যবহৃত মোবাইল স্ক্যানিং অ্যাপ ক্যামস্ক্যানারের ভারতে ব্যবহারকারীর সংখ্যা ১০০ মিলিয়নের বেশি। চিনের শাংহাইয়ের ইনটসিগ ইনফর্মেশন কোম্পানি লিমিটেডে চালিত এই অ্যাপ। এদের কোনও ভারতীয় সংস্থা নেই।

Get the latest Bengali news and Explained news here. You can also read all the Explained news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: 59 china apps banned tiktok uc browuser shareit business in india

Next Story
পুরনো প্রতিদ্বন্দ্বী প্রচণ্ডের সঙ্গে সংঘাত- কেন ভারতকে দুষছেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী?Oli Vs Prachanda India
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com