scorecardresearch

বড় খবর
এক ফ্রেমে কেন্দ্রীয় কয়লামন্ত্রী ও কয়লা মাফিয়া, বিজেপিকে বিঁধলেন অভিষেক

১৯৪৯ সালের ২৬-১১ তারিখে কী ঘটেছিল?

সরকার ২৬ নভেম্বরকে সংবিধান দিবস হিসেবে পালন করার ব্যাপারে নোটিফিকেশন জারি করে ২০১৫ সালের ১৯ নভেম্বর।

১৯৪৯ সালের ২৬-১১ তারিখে কী ঘটেছিল?
অলংকরণ- সিআর শশীকুমার

৭০ বছর আগে, ১৯৪৯ সালের ২৬ নভেম্বর ভারতের বিধান পরিষদে ভারতের সংবিধান গৃহীত হয়েছিল। ২০১৫ সাল পর্যন্ত এই দিনটি ভারতের সংবিধান দিবস হিসেবে পালিত হয়ে এসেছে।

সংবিধান কার্যকরী হয় এর দু মাস বাদে, ১৯৫০ সালের ২৬ জানুয়ারি। ওই দিনটি প্রজাতন্ত্র দিবস হিসেবে পালিত হয়।

সংবিধান দিবস

২০১৫ সালের মে মাসে, কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা ২৬ নভেম্বর দিনটিকে নাগরিকদের মধ্যে সাংবিধানিক মূল্যবোধ তুলে ধরার জন্য সংবিধান দিবস হিসেবে পালন করার কথা ঘোষণা করতে বলে।

এ বছর সংবিধান খসড়া কমিটির বাবাসাহেব ভীমরাও আম্বেদকরের ১২৫ তম জন্মবার্ষিকী পালিত হয়।

কেন্দ্রীয় সরকারের এ সিদ্ধান্ত আম্বেদকরের উত্তরাধিকার দাবি করার লক্ষ্যে গৃহীত বলে মনে করা হচ্ছে। বিজেপি যেভাবে সংঘ পরিবারের বাইরের আইকনদের নিজেদের মত করে তুলে ধরার চেষ্টা করছে এই সিদ্ধান্ত সেই প্রকল্পেরই অন্তর্গত। ভগৎ সিং এবং ডক্টর রাম মনোহর লোহিয়াও এই প্রকল্পের মধ্যে রয়েছেন।

সরকার ২৬ নভেম্বরকে সংবিধান দিবস হিসেবে পালন করার ব্যাপারে নোটিফিকেশন জারি করে ২০১৫ সালের ১৯ নভেম্বর। আম্বেদকর ভারতের প্রথম আইনমন্ত্রীও ছিলেন। সে কারণে ২০১৫ সালের আগে পর্যন্ত এ দিনটিকে জাতীয় আইন দিবস হিসেবে পালন করা হত।

সরকার তাদের বিজ্ঞপ্তিতে বলেছিল, “এ বছর, দেশ ডক্টর বি আর আম্বেদকরের ১২৫ তম জন্মবার্ষিকী পালন করছে। সংবিধান দিবস বর্ষব্যাপী উদযাপনের একটি অঙ্গ।”

বিধান পরিষদ

ভারতের সংবিধান তৈরির জন্য বিধান পরিষদের প্রথম অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয় ১৯৪৬ সালের ৯ ডিসেম্বর। ওই অধিবেশনে ২০৭ জন সদস্য উপস্থিত ছিলেন, তাঁদের মধ্যে ৯ জন মহিলা।

শুরুতে, বিধান পরিষদে ৩৮৯ জন সদস্য ছিলেন। তবে দেশভাগ ও স্বাধীনতার পর সংখ্যা কমে দাঁড়ায় ২৯৯-এ। বিধান পরিষদ সংবিধানের খসড়া তৈরি করতে ৩ বছরের বেশি সময় নিয়েছিল। খসড়ার বিষয়বস্তু স্থির করতেই সময় লেগেছিল ১১৪ দিন।

খসড়া কমিটির শীর্ষে ছিলেন আম্বেদকর। বিধান পরিষদের মোট ১৭টি কমিটির মধ্যে এটি ছিল অন্যতম। এই কমিটি গটিত হয়েছিল ১৯৪৭ সালের ২৯ অগাস্ট। কমিটির কাজ ছিল ভারতের খসড়া সংবিধান প্রস্তুত করা।

সংবিধানের যে ৭৬০০ সংশোধনী আনা হয়েছিল। এর মধ্যে ২৪০০ টি সংশোধনী আলোচনার জন্যে গৃহীতই হয়নি। বিধান পরিষদের অন্তিম অধিবেশন শেষ হয় ১৯৪৯ সালের ২৬ নভেম্বর, যেদিন সংবিধান গৃহীত হয়।

পরের বছর, ২৬ জানুয়ারি সংবিধান কার্যকর হয়। ২৮৪ জন সদস্য তাতে স্বাক্ষর করেন। ২৬ জানুয়ারি দিনটিতেই ভারতের জাতীয় কংগ্রেস পূর্ণ স্বরাজের প্রস্তাব গ্রহণ করেছিল। সে কারণে ওই দিনটিতেই সংবিধান গৃহীত হয়।

 

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Explained news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Constitution day 26 11 1949 constituition adopted