বড় খবর

করোনাভাইরাস: টানা চারদিন সংক্রমণের সংখ্যাবৃদ্ধি

শনিবার যে ১৫৪১২ জনের নতুন সংক্রমণ ধরা পড়েছে, তার মধ্যে ৯৯৯০ জন অর্থাৎ ৬৫ শতাংশের বেশি সংক্রমণের হদিশ মিলেছে মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু ও দিল্লি থেকে।

Coronavirus Number Explained
দিল্লি কোভিড মৃত্যুর সংখ্যায় ও সংক্রমণে খুব দ্রুতই মুম্বইকে ছুঁয়ে ফেলবে বলে মনে হচ্ছে

শনিবার সারা দেশে ১৫ হাজারের বেশি নতুন করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এর ফলে পর পর চারদিন সংক্রমণ সংখ্যা আগের দিনের চেয়ে বাড়ল। বুধবার প্রথম নতুন সংক্রমণ ১২ হাজার  ছাড়ায়, বৃহস্পতিবার তা ছাড়ায় ১৩ হাজার, ও শুক্রবার ১৪ হাজার। শেষ বার পরপর চারদিন এরকম সংখ্যাধিক্য ঘটেছিল মাসের শুরুতে।

সংক্রমণের এই সংখ্যাধিক্যের মূল কারণ দিল্লিতে ক্রমাগত সংখ্যাবৃদ্ধি। শনিবার দিল্লিতে ৩৬৩০ জনের সংক্রমণ ধরা পড়েছে, যা তামিলনাড়ুর চেয়ে কিছু নিচে। মহারাষ্ট্র সংক্রমণের হিসেবে দ্বিতীয় স্থানে থাকা তামিলনাড়ুর চেয়ে অনেকটাই এগিয়ে। তামিলনাড়ুতেও গত কয়েকদিন ধরে নতুন সংক্রমণের সংখ্যা বেড়ে চলেছে।

দিল্লি কোভিড মৃত্যুর সংখ্যায় ও সংক্রমণে খুব দ্রুতই মুম্বইকে ছুঁয়ে ফেলবে বলে মনে হচ্ছে। মুম্বইয়ে শনিবার পর্যন্ত সংক্রমিতের সংখ্যা ৬৫৩২৯, যার মধ্যে ২৮৮৯৩ জন সক্রিয় সংক্রমিত। অন্যদিকে দিল্লিতে মোট সংক্রমিত ৫৬৭৪৬ যার মধ্যে ২৩,৩৪০ জন সক্রিয়। মুম্বইতে এখনও পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ৩৫৬১, দিল্লিতে সে সংখ্যা ২১১২।

শনিবার যে ১৫৪১২ জনের নতুন সংক্রমণ ধরা পড়েছে, তার মধ্যে ৯৯৯০ জন অর্থাৎ ৬৫ শতাংশের বেশি সংক্রমণের হদিশ মিলেছে মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু ও দিল্লি থেকে। অন্য দিকে গুজরাট ও রাজস্থানকে এই হিসেবের মধ্যে অন্তর্ভুক্ত করলে, প্রথম পাঁচ রাজ্য থেকে ৭২ শতাংশ সংক্রমণ ধরা পড়েছে। প্রথম ১০ রাজ্য থেকে ধরা পড়েছে ৮৫ শতাংশ নতুন সংক্রমণ।

সংক্রমণে শীর্ষ ১০ রাজ্য

রাজ্য মোট সংক্রমণ নতুন সংক্রমণ মোট আরোগ্য মৃত্যু

 

মহারাষ্ট্র ১২৮২০৫ ৩৮৭৪ ৬৪১৫৩ ৫৯৮৪
তামিলনাড়ু ৫৬৮৪৫ ২৩৯৬ ৩১৩১৬ ৭০৪
দিল্লি ৫৬৭৪৬ ৩৬৩০ ৩১২৯৪ ২১১২
গুজরাট ২৬৭৩৭ ৫৩৯ ১৮৭০২ ১৬৩৯
উত্তর প্রদেশ ১৭১৩৫ ৫৪১ ১০৩৬৯ ৫২৯
রাজস্থান ১৪৪২৪ ৩৮১ ১১১৬১ ৩৩৭
পশ্চিমবঙ্গ ১৩৫৩১ ৪৪১ ৭৮৬৫ ৫৪০
মধ্যপ্রদেশ ১১৭২৪ ১৪২ ৮৮৮০ ৫০১
হরিয়ানা ১০২২৩ ৪৮০ ৫১২৮ ১৪৯
কর্নাটক ৮৬৯৭ ৪১৬ ৫৩৯১ ১৩৬

দেশে এ যাবৎ মোট সংক্রমণের ক্ষেত্রেও এই রাজ্যগুলির এই অবদান দেখা যাবে। দেশে মোট সংক্রমণ এখন ৪.১১ লক্ষ। এর মধ্যে প্রথম তিন রাজ্যে ঘটেছে ৫৯ শতাংশ, প্রথম পাঁচ রাজ্যে ৭০ শতাংশ, শীর্ষ ১০ রাজ্যে ৮৪ শতাংশ।

অন্য বেশ কিছু রাজ্যে, যেখানে সাম্প্রতিক অতীতে সংক্রমণে সংখ্যাবৃদ্ধি ঘটছিল গত এক সপ্তাহে সেখানে গসি শ্লথ হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে আসাম, বিহার, কেরালা, ত্রিপুরা ও ঝাড়খণ্ড। দিল্লি ও তামিলনাড়ু ছাড়া যে সব রাজ্যে সংক্রমণ দ্রুতগতিতে বাড়ছে তার মধ্যে রয়েছে হরিয়ানা, ছত্তিসগড় ও উত্তরাখণ্ড, এর মধ্যে ছত্তিসগড় ও উত্তরাখণ্ডে এখন সংক্রমিতের সংখ্যা ২ হাজারের বেশি।

নতুন সংক্রমণের সংখ্যা প্রতিদিন বাড়লেও বৃদ্ধি হার কিন্তু এখনও পড়তির দিকে। গত ১১ দিন ধরে ভারতের বৃদ্ধি হার ৪ শতাংশ এবং ক্রমহ্রাসমান। বর্তমানে ভারতে প্রতিদিন সংক্রমণ বাড়ছে ৩.৬০ শতাংশ করে। মহারাষ্ট্র যেখানে সংক্রমণের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি, সেখানে বৃদ্ধির হার ২.৯৫ শতাংশ। দিল্লিতে বৃদ্ধিহার ৫.৫২ শতাংশ ও তামিলনাড়ুতে ৪.১৮ শতাংশ।

Web Title: Coronavirus number consecutive four days surge

Next Story
অহোম রাজবংশের প্রতিষ্ঠাতা সুকাপার উত্তরাধিকারassam sukapha
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com