scorecardresearch

বড় খবর

Explained: বিমানসেবিকাদের পর টেকনিশিয়ানরা কর্মবিরতিতে, কেন প্রতিবাদ জানাচ্ছেন ইন্ডিগো কর্মীরা?

বিমানসেবিকাদের গণহারে ছুটির কয়েকদিন পরেই চালক ও বিমানসেবিকাদের বেতন চার শতাংশ বাড়ানো হয়েছে।

indigo

গত ১০ দিন ধরেই ভারতের বৃহত্তম বিমান সংস্থা ইন্ডিগোর বিমান চলাচল দু’ঘণ্টা করে ব্যাহত হচ্ছে। কারণ, কর্মীদের এক বিরাট অংশ কাজ করতে চাইছেন না। চলতি মাসের গোড়ায় বিমানসেবিকাদের একাংশ কর্মবিরতি পালন করেন। গত সপ্তাহে আবার এই বিমান সংস্থার কারিগরি বিভাগের কর্মীরা চলে যান কর্মবিরতিতে। তবে, ধর্মঘট না। তাঁরা অসুস্থ হয়ে ছুটি নিচ্ছেন। যার জন্য ছুটি বাতিল করা যাচ্ছে না। কিন্তু, ইন্ডিগো কর্তারা পরিষ্কার বুঝতে পারছেন যে কর্মীদের এই গণহারে অসুস্থতা আসলে প্রতিবাদেরই অংশ।

আসলে কী হচ্ছে?
একসঙ্গে সবাই অসুস্থ হয়ে পড়তে পারেন না। তাহলে, ঠিক কী হচ্ছে ইন্ডিগো কর্মীদের? কেন তাঁরা দলবেঁধে অসুস্থ হয়ে ছুটি নিচ্ছেন? কেনই বা ব্যাহত করছেন ইন্ডিগোর চলাচল? এয়ার ইন্ডিয়া, এয়ার এশিয়া ইন্ডিয়া, আকাসাএয়ার এবং জেট এয়ারওয়েজ-সহ প্রতিদ্বন্দ্বী এয়ারলাইন্সগুলো যখন তাদের তাদের বিমান চলাচলে কোনও বিরতি দিচ্ছে না। নতুন কর্মী নিয়োগ পর্যন্ত করছে। সেই সময় ইন্ডিগোর এক বিরাট সংখ্যক বিমানসেবিকারা ২ জুলাই ছুটিতে চলে গিয়েছিলেন। কর্মীদের একাংশের অভিযোগ, বেতন নিয়ে তাঁদের তীব্র অসন্তোষ আছে। তার প্রতিবাদেই গণহারে অসুস্থ হয়ে ছুটি নিচ্ছেন ইন্ডিগো কর্মীরা।

আরও পড়ুন- সাজা শেষ হলে সালেমকে মুক্তি দিতে বাধ্য কেন্দ্র, জানাল সুপ্রিম কোর্ট

কর্মীদের এই গণহারে ছুটির ফলটা কী হচ্ছে?
টেকনিশিয়ানরা গণহারে অসুস্থ হওয়ায় বিমান চলাচলে বিঘ্ন ঘটেনি বলেই ইন্ডিগো কর্তাদের দাবি। যদিও কোনও বিমান রানওয়েতে নামার পর বিমান ফের ওড়ার অবস্থায় আছে কি না, তা পরীক্ষা করা হয়। আর, সেই কাজটা কারিগরি বিভাগের কর্মীরাই করে থাকেন। তবে, টেকনিশিয়ানদের প্রভাব অস্বীকার করলেও বিমানসেবিকাদের প্রভাব অস্বীকার করতে পারেননি ইন্ডিগো কর্তারা। জানিয়েছেন, বিমানসেবিকারা গণহারে ছুটি নেওয়ায় তার প্রভাব বিমান চলাচলে পড়েছে।

বিমানসেবিকা ও টেকনিশিয়ানদের এই প্রতিবাদের জেরে ইন্ডিগো আদৌ পদক্ষেপ করেছে?
প্রতিবাদে কাজ হয়েছে। বিমানসেবিকাদের গণহারে ছুটির কয়েকদিন পরেই চালক ও বিমানসেবিকাদের বেতন চার শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। তবে, এই বেতন বৃদ্ধির কথা কর্মীদের জন্য আয়োজিত অনুষ্ঠানে ফলাও করে প্রচার দূর, ইন্ডিগো কর্তারা পুরোপুরি চেপে গিয়েছেন। করোনা অতিমারী চলাকালীন বিমান সংস্থাটি কর্মীদের বেতন ২৮ শতাংশ কমিয়েছিল। তার আগে চার শতাংশ কমিয়েছিল। এবার অবশ্য বেতন বাড়ানোর সঙ্গে ইন্ডিগো কর্মীদের অসুস্থতা নিয়ে কড়াকড়ি করেছে। জানিয়েছে, অফিসের ডাক্তার দেখে অসুস্থ জানালে, তবেই ছুটি মিলবে, নতুবা নয়।

Read full story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Explained news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Indigo staffers protesting