বড় খবর

বছর শেষের আগেই ভ্যাকসিন পাবেন আমেরিকানরা, আশ্বাস ফাইজারের

সংস্থার তরফে জানান হয় যেভাবে ভ্যাকসিন প্রস্তুতের কাজ এগোচ্ছে সেখানে ২০২০ সালের শেষের দিকেই বাজারে ভ্যাকসিন আনতে সক্ষম হবে তারা।

চলতি বছরের শেষের দিকেই করোনা প্রতিরোধী ভ্যাকসিন পাবে আমেরিকানরা, এমনটাই জানিয়ে দিল মার্কিন মুলুকের ওষুধপ্রস্তুতকারক সংস্থা ফাইজার। সংস্থার তরফে জানান হয় যেভাবে ভ্যাকসিন প্রস্তুতের কাজ এগোচ্ছে সেখানে ২০২০ সালের শেষের দিকেই বাজারে ভ্যাকসিন আনতে সক্ষম হবে তারা।

মার্কিন মুলুকে জার্মান সংস্থা বায়োএনটেক-এর সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধে করোনাভাইরাসের টিকা বানানোর কাজ চালাচ্ছে ফাইজার। তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালও শুরু হয়েছে। এই মুহুর্তে ভ্যাকসিন প্রতিযোগীতার দৌড়ে তাঁরাও এগিয়ে রয়েছে অনেকটাই। সিবিসি টেলিভিশনের একটি সাক্ষাৎকারে সংস্থার সিইও অ্যালবার্ট বরুলা বলেন, “আমরা ইতিমধ্যেই ভ্যাকসিন প্রস্তুতের কাজ শুরু করে দিয়েছি। হাজার হাজার ডোজও তৈরি হয়েছে। কয়েকটি স্টাডি এখনও বাকি আছে। এরপরই আমরা প্রস্তুত।”

আরও পড়ুন, মস্তিষ্কেও করোনা হানা, ফুসফুসে ছিদ্র তৈরি করছে ভাইরাস

প্রসঙ্গত, ফাইজার এর আগে জানিয়েছিল যে চলতি বছরের অক্টোবরের মধ্যে তারা ভ্যাকসিন নিয়ে আসতে পারে। যদিও ফাইজারের সিইও জানায় ৬০ শতাংশ আশা রয়েছে অক্টোবরের মধ্যে ভ্যাকসিন বাজারে নিয়ে আসার। কিন্তু টিকার কার্যকারীতার উপর তা নির্ভর করবে। তিনি বলেন, ‘‘এটা যে কাজ করবেই, তা বলছি না। তবে যদি সফলভাবে কাজ করে আমরা তা জানাব।’’

তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল শেষ হতে প্রায় অক্টোবরও পেরিয়ে যাবে। সিইও-এর অবশ্য মত, তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালের প্রথম ধাপের ফলাফলে বুঝতে পারা যাবে ভ্যাকসিনের কার্যকারীতা। সেই মতো পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবে সংস্থা। ফাইজারের সিইও অ্যালবার্ট বরুলা দাবি করেছেন, তাঁর সংস্থার তৈরি করা টিকা ‘নিরাপদ’। আমেরিকার ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের ছাড়পত্র পেলে ২০২১-এর আগেই বাজারে পাওয়া যাবে এই টিকা।

Read the full story in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Web Title: Pfizer ceo says americans could get vaccine shot before year end

Next Story
ভারতের গণ্যমান্য ব্যক্তিদের তথ্য পৌঁছল চিনের কাছে? ‘নয়া যুদ্ধের’ ইঙ্গিত
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com