বড় খবর

ভারতের প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম তৈরি হবে ভারতেই, কীভাবে?

২০১৫-র এপ্রিল থেকে ২০২০-র অগস্ট পর্যন্ত ২৬০টি প্রকল্পের মাধ্যমে কমবেশি সাড়ে তিন লক্ষ কোটি টাকার প্রতিরক্ষা সামগ্রী আমদানি করা হয়েছে ভারতে।

প্রতীকী ছবি

এবার থেকে নিজেদের প্রতিরোধ-সুরক্ষা গড়তে দেশিয় পদ্ধতিতেই ভরসা রাখতে চলেছে মোদী সরকার। অন্তত রবিবার রাজনাথ সিংয়ের ঘোষণা থেকে এমনটাই জানা গেল। প্রতিরক্ষামন্ত্রী জানিয়ে দেন ১০১টি প্রতিরক্ষা সামগ্রীতে এবার থেকে আমদানি নিষেধাজ্ঞা জারি করছে। মূলত ভারতীয় সেনাবাহিনী, বিমানবাহিনী এবং নৌবাহিনীতে ব্যবহৃত প্রতিরক্ষা সরঞ্জামে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে কেন্দ্র। এদের মধ্যে রয়েছে, আর্টিলারি বন্দুক, যুদ্ধের জন্য প্রয়োজনীয় হালকা হেলিকপ্টার, অ্যাসল্ট রাইফেলস করভেটস, রেডার, চাকাযুক্ত আর্মাড ফাইটিং ভেহিকেলস, পরিবহনের জন্য প্রয়োজনীয় বিমান। এছাড়াও একাধিক অন্যান্য উচ্চ প্রযুক্তির অস্ত্রের আমদানীর ওপরেও নিষেধজ্ঞা জারি হয়েছে।

যে যে সরঞ্জামে নিষেধাজ্ঞা বসেছে সেই অস্ত্রশস্ত্র এবার তৈরি করবে হয় বেসরকারি সংস্থারা, নয়তো ডিফেনন্স পাবলিক সেক্টর আন্ডারটেকিংস। আসল বিষয়টি হল সরকার চাইছে বাইরের দেশের উপর নিজেদের নির্ভরযোগ্যতা কমাতে। দেশিয় পদ্ধতিতেই সেই সব সরঞ্জাম তৈরি করতে তাই এই নয়া চিন্তাভাবনা। প্রসঙ্গত, ২০১৫-র এপ্রিল থেকে ২০২০-র অগস্ট পর্যন্ত ২৬০টি প্রকল্পের মাধ্যমে কমবেশি সাড়ে তিন লক্ষ কোটি টাকার প্রতিরক্ষা সামগ্রী আমদানি করা হয়েছে ভারতে। এবার সেই দিকেই রাশ টানতে চায় মোদী সরকার।

তবে সরকারের এই সিদ্ধান্তে বেশ কিছু বেসরকারি এবং ডিফেন্স কর্তারা। নিজেদের ডিজাইন, টেকনলজি ব্যবহার করে ভারত যে নিজেই নিজেই অস্ত্রশস্ত্র প্রস্তুত করতে পারবে এবং সংস্থাগুলির জন্যও এটা যে ‘দারুণ সুযোগ’ এমনটাই মনে করছে তারা। আত্মনির্ভর ভারত গড়ার লক্ষ্য ১০১টি সামগ্রী আমদানির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রক। এদিন টুইটারে গুরুত্বপূর্ণ এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং। প্রধানমন্ত্রী মোদী আত্মনির্ভর ভারত গড়ার যে ডাক দিয়েছেন তা বাস্তবায়িত করতেই এই পদক্ষেপ বলে জানানো হয়েছে।

অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মত দেশের আর্থিক কাঠামোকে চাঙ্গা করতেই দেশিয় সংস্থার উপর ভরসা রাখছে মন্ত্রক। এর ফলে যেটা হবে ভারত যদি উচ্চমানের অস্ত্র প্রস্তুত করতে সক্ষম হয় তাহলে সেই সব সরঞ্জাম বিদেশে রফতানি করে ভালো লাভের মুখও দেখতে পারবে। ২০২০ থেকে ২০২৪ পর্যন্ত ধাপে ধাপে দেশীয় সংস্থাগুলির সঙ্গে চার লক্ষ কোটি টাকার চুক্তি বাস্তবায়িত হবে এমনটাও জানিয়েছেন রাজনাথ সিং।

তবে এই সিদ্ধান্ত কেন্দ্র একা নেয়নি। ভারতীয় সেনাবাহিনী, বিমানবাহিনী এবং নৌবাহিনীর সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করেই এই বড় সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছে রাজনাথ সিংয়ের মন্ত্রক।

Read the full story in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Explained news here. You can also read all the Explained news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Rajnath singh announced the negative imports list for defence what are these

Next Story
বিশ্বের জনপ্রিয় ওয়েবসাইট উইকিপিডিয়া কেন অনুদান চাইছে?
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com