বড় খবর

‘রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ কৈলাস’ গড়লেন ধর্ষণে অভিযুক্ত গুরু নিত্যানন্দ, চালু হল নতুন মুদ্রা

এক বছর আগে ধর্ষণে অভিযুক্ত হয়ে ভারত ছেড়ে পালিয়ে যান স্বঘোষিত গুরু নিত্যানন্দ। কোথায় রয়েছেন সেই ‘দেশে’র খবর কেউ জানেন না। কিন্তু সেই দেশের নাম না কি কৈলাস।

এমন এক দেশ যেখানে তিনিই সব। দেশপ্রধান, ধর্মগুরু তিনিই। এক বছর আগে ধর্ষণে অভিযুক্ত হয়ে ভারত ছেড়ে পালিয়ে যান স্বঘোষিত গুরু নিত্যানন্দ। কোথায় রয়েছেন সেই ‘দেশে’র খবর কেউ জানেন না। কিন্তু সেই দেশের নাম না কি কৈলাস। নিত্যানন্দ এও দাবি করেন যে ২০১৯ সালেই এই ‘হিন্দু সার্বভৌম দেশ’ তৈরি করেছেন তিনি। গণেশ চতুর্থীর দিন সকলকে অবাক করে দিয়ে ‘রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ কৈলাস’ তৈরির কথা জানালেন এই স্বঘোষিত গুরু। সেই কারেন্সির নাম হবে- কৈলাসা।

শনিবার রাতেই নিজের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ থেকে একটি ভিডিও শেয়ার করেন তিনি। সেখানে দেখা যায় গণেশ পুজোর দিন ‘রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ কৈলাশ’-এর কথা ঘোষণা করেন এবং সে দেশে নয়া মুদ্রা যার নাম দেন ‘কৈলাসিয়ান ডলার’ সেটিও সকলের সামনে আনেন। ভিডিওতে এও বলা হয় এটি একটি ‘ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত’।

বিতর্কিত এই ‘গডম্যান’ এর আগে ঘোষণা করেছিল যে তিনি ইতিমধ্যে একটি ৩০০ পৃষ্ঠার একটি অর্থনৈতিক নীতিমালা তৈরি করেছেন। যেখানে বলা আছে তাঁর দেশের অর্থনৈতিক কৌশল কী হতে চলেছে। নিত্যানন্দ আরও দাবি করেন যে এই ব্যাঙ্ক চালানোর জন্য তিনি একটি দেশের সঙ্গে মৌ-চুক্তিও স্বাক্ষর করেছেন।

এই কৈলাস আসলে কোথায়?

ধর্ষণে অভিযুক্ত হওয়ার পর ভারতীয় কর্তৃপক্ষ এই স্বঘোষিত গুরু নিত্যানন্দকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু গত বছরই নিত্যানন্দ জানান তিনি নিজেই একটি ‘দেশ’ প্রতিষ্ঠা করেছেন। এবার সেই দেশের কোনও বাস্তব অস্তিত্ব আছে কি না তা তর্কাতীত বিষয়। যদিও তাঁদের ওয়েবসাইটে দাবি করা হয়েছে যে, “এই দেশে পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে হিন্দুরা এসেছে এবং এটি বিশ্বের সর্বকালের বৃহত্তম হিন্দু জাতি।” ওয়েবসাইট http://www.kailaasa.org অনুযায়ী, কৈলাসের জনসংখ্যা ১০০ মিলিয়ন। এটি একটি হিন্দু দেশ। মূলত ইংরাজি। সংস্কৃত ও তামিল ভাষায় কথা হয়। মূলট হিন্দুত্বের প্রচার চালায় এই দেশ। কৈলাসের নিজস্ব মুদ্রার পাশাপাশি রয়েছে নিজস্ব জাতীয় পতাকা, চিহ্ন এবং জাতীয় পশু বৃষ যা হিন্দুত্বে পবিত্র হিসবেই পরিচিত। এই দেশের জাতীয় ফুল পদ্ম।

কী অভিযোগ রয়েছে এই গুরুর বিরুদ্ধে?

ছোট ছোট ছেলেমেয়ে ও নাবালিকাদের ধর্ষণ এবং অপহরণ করে আশ্রমে আটকে রাখার মতো অনেকগুলি গুরুতর অপরাধে অভিযুক্ত স্বঘোষিত গডম্যান স্বামী নিত্যানন্দ৷ নানা ভক্তিমূলক ও আধ‌্যাত্মিক টিভি চ‌্যানেলে তাঁকে দেখা যেত। হিন্দুত্ববাদ নিয়েই কথা বলতে শোনা যেত তাঁকে। ভারতের বাইরেও কোটি কোটি ভক্ত রয়েছে তাঁর।

২০১০ সালের এপ্রিল মাসে তাঁকে হিমাচল প্রদেশ থেকে গ্রেফতারও করে পুলিশ। কিন্তু পরবর্তীতে তিনি জামিন পেয়ে যান। দু’বছর পরে এক মার্কিন মহিলা দাবি করে যে পাঁচ বছর ধরে তাঁর শ্লীলতাহানি করে গিয়েছেন নিত্যানন্দ। ২০১৯ সালে ফের তাঁকে আটক করা হয় একাধিক অভিযোগে। ১৯ বছরের একটি মেয়েকে আটক করে ধর্ষণের অভিযোগও ওঠে।

কিন্তু ২০১৯ সালে গুজরাট পুলিশ জানায় যে আদালতের প্রায় ৫০-এর বেশি শুনানিতে উপস্থিত না থেকেই পলাতক হয়েছিলেন নিত্যানন্দ। জানা যায় তিনি ত্রিনিদাদ এবং টোব্যাগোতে পালিয়ে যান। অনেকে আবার জানান যে ইক্যুয়েডেরে কাছে এক জায়গায় রয়েছেন তিনি। কিন্তু কৈলাসের সঠিক সন্ধান জানা যায়নি এখনও।

Read the full story in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Explained news here. You can also read all the Explained news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Reserve bank of kailasa godman nithyanandas central bank and currency

Next Story
বাংলায় বিজেপির ‘মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী’ হতে চান তথাগত রায়?
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com