scorecardresearch

বড় খবর

Explained: সেনা চেনেন পতাকায়, পতাকা দিলেন রাষ্ট্রপতি, জানেন কি এ সম্পর্কে?

১৮৮১ সালের ২৬ জানুয়ারি, দক্ষিণ আফ্রিকার বোয়ার যুদ্ধে মেজর জেনারেল আরোরা এবং কর্নেল রোয়াচ শেষ পতাকা নিয়ে যুদ্ধে গিয়েছিলেন।

Explained: সেনা চেনেন পতাকায়, পতাকা দিলেন রাষ্ট্রপতি, জানেন কি এ সম্পর্কে?

সেই ট্র্যাডিশন। ট্র্যাডিশন রঙের। রং পতাকার। পতাকা সেনার। রবীন্দ্রনাথ বলেছিলেন, ‘ তোমার পতাকা যারে দাও তারে বহিবারে দাও শকতি।’ সেই শক্তি যাঁদের আছে, তাঁদের হাতেই রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ পতাকা তুলে দিলেন শুক্রবার। জামনগরের ভালসুরায় ইন্ডিয়ান ন্যাভাল শিপের হাতে তাদের পতাকা তুলে দিয়েছেন তিনি। ভালসুরায় নৌ-প্রশিক্ষণ কেন্দ্র। ইলেকট্রিকাল এবং ইলেকট্রনিক্স, অস্ত্র এবং তথ্যপ্রযুক্তি সম্পর্কিত ট্রেনিং এখানে গুরুত্ব পায়। এ পতাকা এবার থেকে ইন্ডিয়ান ন্যাভাল শিপ ভালসুরার প্রতীক হয়ে গেল। তাদের কাহিনি বলে উঠছে যা। আমরা এই সেনাপতাকার বা প্রতীকের ইতিহাস একটু ঘুরে দেখতে পারি।

ট্র্যাডিশনটা কী?

সেনা-ব্যবস্থার শুরু থেকে তার পরিচিতি বহনকারী একটি পতাকার জন্ম। প্রাচীন ভারতেও রাজারাজড়াদের সেনার পতাকা ছিল। ধ্বজ নিয়ে যাওয়াটা ছিল যুদ্ধোদ্যত সেনার স্বাভাবিক কাজ। পরিচয় ছাড়া কে আর বাঁচতে ভালবাসে। গোষ্ঠীপরিচয়, বংশপরিচয়, তার শিলমোহর, কিংবা পতাকা এটা অনেকটা প্রবৃত্তিগত ব্যাপার। প্রাচীন গ্রিস, বা রোমের দিকেও তাকালেও ব্যতিক্রম কিছু দেখা যাবে না। রোমান সেনার ঈগল ক্রস মনে করা যেতে পারে। ‘কাস্টম অ্যান্ড এটিকেট ইন দ্য সার্ভিস’ বইয়ে মেজর জেনারেল পি কে আরোরা এবং কর্নেল এইচ আর রোয়াচ লিখেছেন, কোনও রেজিমেন্টের কথা বলে এই রং ও প্রতীক। এটা রেজিমেন্টের ইতিহাসের কথা তুলে ধরে।
আমাদের সেনা বাহিনীতে এই ট্র্যাডিশন প্রত্যক্ষ ভাবে আমরা পেয়েছি ব্রিটিশ সেনার কাছ থেকে।
পদাতিক সেনা, সেনার আরও বিভিন্ন শাখা, নৌ এবং বায়ুসেনার নানা বিভাগের নিজের নিজের চিহ্নসমন্বিত পতাকা রয়েছে। আর্টিলারি রেজিমেন্ট অবশ্য একমাত্র ব্যতিক্রম। এ ক্ষেত্রে বন্দুককে রেজিমেন্টের প্রতীক হিসেবে ধরা হয়। যুদ্ধে বন্দুক খোয়া যাওয়া মানে গোটা রেজিমেন্টের প্রতীক হারিয়ে যাওয়া।

প্রতীক বহনের নানা ভাগ

প্রতীক চার ভাগে সাধারণত বহন করে রেজিমেন্ট। তার মধ্যে একটি স্ট্যান্ডার্ড। না, এখন তা যুদ্ধক্ষেত্রে নিয়ে যাওয়া হয় না। কিন্তু রেজিমেন্টের তরফে পতাকা যুদ্ধক্ষেত্রে নিয়ে যাওয়াটাই ছিল একটা সময় পর্যন্ত দস্তুর। যুদ্ধক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় যে পতাকাটা ওড়ানো হত, সেটাই স্ট্যান্ডার্ড। দাঁড় করানো মানে স্ট্যান্ড থেকে এসেছে এই নাম। স্ট্যান্ডার্ডের মাধ্যমে কম্যান্ডারের অবস্থান নির্ধারণ করা হত, সেনা-ইতিহাস বলছে, যার সূত্রপাত ঘটেছিল মিশরে, তিন হাজার বছর আগে। এটি আনুষ্ঠানিকতা পায় মধ্যযুগে, ইউরোপে।

যুদ্ধক্ষেত্রে পতাকা নিয়ে যাওয়াটা শেষ কবে হল?

১৮৮১ সালের ২৬ জানুয়ারি, দক্ষিণ আফ্রিকার বোয়ার যুদ্ধে মেজর জেনারেল আরোরা এবং কর্নেল রোয়াচ শেষ পতাকা নিয়ে যুদ্ধে গিয়েছিলেন। এর এক বছর পর, একটি নির্দেশ জারি করে এই পতাকা নিয়ে যুদ্ধে যাওয়ার প্রথা বন্ধ করে দেওয়া হয়।

Read story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Explained news download Indian Express Bengali App.

Web Title: The regimental colours of the indian army is its importance and history