scorecardresearch

বড় খবর

টমাস কুকের ব্যবসা কেন গুটিয়ে গেল, কী হবে তাদের ভারতীয় সংস্থার?

বর্তমানে ৬ লক্ষ পর্যটক পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে আটকে পড়েছেন। ব্রিটিশ সরকার জানিয়েছে তারা তাদের দেড় লক্ষ নাগরিককে ফিরিয়ে আনবে।

টমাস কুকের ব্যবসা কেন গুটিয়ে গেল, কী হবে তাদের ভারতীয় সংস্থার?
পৃথিবীর সবচেয়ে পুরনো পর্যটন সংস্থা লাটে উঠল সোমবার থেকে

সোমবার হঠাৎই বন্ধ হয়ে গেল ব্রিটিশ পর্যটন সংস্থা টমাস কুক। স্টেক হোল্ডারদের সঙ্গে সপ্তাহান্তে বৈঠক সারার পর সংস্থা বুঝতে পেরেছে যে কোম্পানি বাঁচানো যাবে না। টমাস কুকের সঙ্গে যাঁরা পর্যটনে গিয়েছিলেন, তাঁরা সারা পৃথিবীর বিভিন্ন জায়গায় আটকে পড়েছেন। ব্রিটেনের সরকার তাঁদের ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে পদক্ষেপ শুরু করেছে।

ইতিমধ্যে ভারতের টমাস কুক (ইন্ডিয়া) প্রাইভেট লিমিটেড নিজেদের ওই সংস্থা থেকে আলাদা বলে জানিয়ে দিয়েছে। তারা বলেছে লাইসেন্স চুক্তির মাধ্যমে টমাস কুকের ব্র্যান্ড নেমই কেবল তারা ব্যবহার করেথাকে।

ব্রিটিশ টমাস কুক এত বড় কোম্পানি হওয়া সত্ত্বেও কী করে এমন হল?

পৃথিবীর সবচেয়ে পুরনো পর্যটন সংস্থা টমাস কুক প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল ১৮৪১ সালে। সম্প্রতি তাদের চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলেছিল অনলাইন পর্যটন সংস্থা। এ ছাড়া পর্যটকদের মধ্যে স্বাধীনভাবে বেড়ানোর পরিকল্পনাও বাড়ছে। এতেও চাপে পড়ে যায় তারা। এ ছাড়া তারা যে সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছিল, তার মধ্যে রয়েছে আবহাওয়া সম্পর্কিত সমস্যা এবং পৃথিবীর বিভিন্ন জায়গায় রাজনৈতিক অশান্তি।

আরও পড়ুন, ফের বালাকোট চালু: দেখে নিন পাকিস্তানের জঙ্গি ক্যাম্পের ইতিহাস ভূগোল

সাম্প্রতিক বছরগুলিতে তারা ব্যাপক আর্থিক সমস্যার মুখে পড়েছিল। তাদের ঋণের পরিমাণ দাঁড়িয়েছিল ২.৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

বিবিসি জানাচ্ছে, ঋণভারে জর্জরিত টমাস কুক শেষ মুহূর্তে স্টেকহোল্ডারদের সঙ্গে আলাপআলোচনার মাধ্যমে অতিরিক্ত ২৫০ মার্কিন ডলার পাওয়ার চেষ্টা করেছিল। আলোচনা ব্যর্থ হওয়ায় কোম্পানি ধসে পড়ে। নিজেদের ওয়েবসাইটে সংস্থার তরফ থেকে জানানো হয়েছে, তাৎক্ষণিকভাবে ব্যবসা গুটিয়ে ফেলার পদক্ষেপ নেওয়া ছাড়া আর কোনও উপায় নেই।

এই সংস্থা ধসে পড়ায় সারা পৃথিবীর মোট ২২ হাজার চাকরি চলে গেল, এর মধ্যে ৯ হাজার ব্রিটেনেই।

ব্রিটেন কীভাবে আটকে পড়া যাত্রীদের ফিরিয়ে আনবে

বর্তমানে ৬ লক্ষ পর্যটক পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে আটকে পড়েছেন। ব্রিটিশ সরকার জানিয়েছে তারা তাদের দেড় লক্ষ নাগরিককে ফিরিয়ে আনবে।

এই প্রত্যর্পণ প্রচেষ্টার নাম দেওয়া হয়েছে অপারেশন ম্যাটারহর্ন। ব্রিটেনের শান্তিপর্বের ইতিহাসে এত বৃহদাকারের প্রত্যর্পণ আগে আর ঘটেনি। বিবিসি জানিয়েছে, ৪৫টিরও বেশি জেটপ্লেন ভাড়া করেছে ব্রিটিশ সরকার।

টমাস কুক ইন্ডিয়া কী বলছে?

ভারতীয় সংস্থা এ বিষয়টি থেকে দূরত্ব অবলম্বন করেছে। ২১ সেপ্টেম্বর তারা টুইট করে জানিয়ে দেয়, ব্রিটেনের টমাস কুক সংস্থার ব্যবসার কোনও প্রভাব টমাস কুক ইন্ডিয়া লিমিটেডের উপর পড়বে না, এবং গ্রাহক, অংশীদার ও কর্মচারীদের প্রতি তারা দায়বদ্ধ বলেও জানায় ভারতের টমাস কুক।


নিজেদের ওয়েবসাইটেও তারা জানিয়ে দিয়েছে-

“ব্রিটেনের পর্যটন সংস্থা টমাস কুকের যে খবর সংবাদমাধ্যমে এসেছে, তার পরিপ্রেক্ষিতে আমরা জানাতে চাঅ যে টমাস কুক ইন্ডিয়া প্রাইভেট লিমিটেড একটি সম্পূর্ণ ভিন্ন সংস্থা। ২০১২ সালের অগাস্ট মাস থেকে এই সংস্থার ৭৭ শতাংশ কানাডার বহুজাতিক সংস্থা ফেয়ারফ্যাক্স ফিনান্সিয়াল হোল্ডিংসের দ্বারা অধিগৃহীত। ভারত সহ সারা পৃথিবীর বিভিন্ন জায়গায় ওই সংস্থার কাজ রয়েছে।”

Read the Full Story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Explained news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Thomas cook travel company collapsed india business affect