scorecardresearch

বড় খবর

কোভিডের দুটি ওষুধে ছাড়পত্র WHO-র, ওষুধ দুটি সম্পর্কে জানেন কি? পাবেন পাড়ার দোকানে?

সংক্রমণ রুখে দিচ্ছে প্রতিষেধক, বিশেষ করে তার দৌলতে গুরুতর দিকে মোড় নিচ্ছে না করোনা।

প্রতীকী ছবি

ভ্যাকসিন শাসন করছে কোভিডের পৃথিবী। সংক্রমণ রুখে দিচ্ছে প্রতিষেধক, বিশেষ করে তার দৌলতে গুরুতর দিকে মোড় নিচ্ছে না করোনা। আবার, ভ্যাকসিন নিয়েও অনেকের কোভিড হয়েছে। মারাও গিয়েছেন কেউ কেউ, এবং যে খবরে আমরা ভয়ও পেয়ে গিয়েছি নিদারুণ। ফলে জলবৎ হয়েছে যে, ভ্যাকসিনে কাজ হবে না শুধু, দরকার ওষুধেরও। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা দুটি ওষুধকে কোভিডের চিকিৎসায় ব্যবহারের ছাড়পত্র দিয়েছে। ব্যারিসিটিনিব (Baricitinib) এবং সোত্রোভিমাব (sotrovimab)। আসুন, এই দুটির সঙ্গে একটু আলাপ করে নেওয়া যাক।

ওষুধ বিষয়ে কিছু কথা
ব্যারিসিটিনিব। ওষুধটি রুমাটয়েড আর্থারাইটিসের চিকিৎসায় ব্যবহার করা হয়ে থাকে। হু বলছে, এটি কটিকোস্টেরয়েডসের সঙ্গে দিতে হবে, কোভিডে গুরুতর অসুস্থ রোগীদের। এ হল জেনাস কাইনেস ইনহিবিটর (Janus kinase JAK inhibitors) জাতীয় ওষুধ, যা দেহের প্রতিরোধ শক্তির অতি সক্রিয়তা রোধ করে। ব্যারিসিটিনিব ওরাল ড্রাগ, মানে গিলে খেতে হয়, এবং আর্থারাইটিসের ওষুধ ইন্টারলিউকিন-সিক্সের (Interleukin-6) বিকল্প হিসেবে এর ব্যবহারে ছাড়পত্র দিয়েছে হু, গত বছরের জুলাই-তে।
আর সোত্রোভিমাব? এই ওষুধ তৈরি করেছে গ্লাক্সোস্মিথক্লাইন, সংস্থাটি ব্রিটেনের, যাদের সঙ্গী মার্কিন সংস্থা ভির বায়োটেকনোলজি। ওষুধটি কোভিডের বিরুদ্ধে অ্যান্টিবডি (মোনোক্লোনাল অ্যান্টিবডি) তৈরি করে দেহে। যে সব রোগীর হাসপাতালে ভর্তির প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে, তাঁদের কোভিডের মৃদু এবং মাঝারি উপসর্গেই এটি দেওয়ার জন্য বলেছে ওয়ার্ল্ড হেলথ অরগানাইজেশন। হাসপাতালে ভর্তির প্রবল সম্ভাবনা বলতে বোঝাচ্ছে যাঁরা বয়স্ক, কিংবা রোগ প্রতিরোধ শক্তি যাঁদের কম রয়েছে, কিংবা অন্য কোনও গুরুতর অসুখে ভুগছেন, যেমন ডায়াবিটিস, উচ্চরক্তচাপ কিংবা ধরুন ওবেসিটি, তাঁদের কোভিড সংক্রমণের কথা। ইউএস ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (FDA) এই ওষুধটি জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারের ছাড়পত্র মানে ইমার্জেন্সি ইউজ অথোরাইজেশন (EUA)দিয়েছে। ১২ বছরের ঊর্ধ্বে মৃদু এবং মাঝারি কোভিড সংক্রমণে ব্যারিসিটিনিব প্রয়োগের সবুজ সিগনাল দিয়েছে তারা।

কী করে কাজ করছে ওষুধ দুটি?
ব্যারিসিটিনিব হল এক ধরনের ইমিউনোমডিউলেটর, টসিলিজুমাব-এর বিকল্পও। টসিলিজুমাবের নাম শুনেছেন অনেকেই। কোভিডে গুরুতর অসুস্থ রোগীকে বাঁচিয়ে দিয়েছে অনেক সময়তেই এই ওষুধ। সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, কোভিডের চিকিৎসায় COV BARRIER গবেষণার ফলাফল দেখে ব্যারিসিটিনিব প্রেসক্রাইব করতে শুরু করেন তাঁরা। গত বছর ডিসেম্বরে এ সংক্রান্ত গবেষণাপত্র প্রকাশ পায় ল্যানসেট পত্রিকায়। তা ছাড়া, ডেল্টার প্রবল বাড়বাড়ন্তের সময় টসিলিজুমাবের অভাবে, অনেক সময়ে ব্যারিসিটিনিব বিকল্প হিসেবে দেওয়া হয়েছে। আইসিএমআরের ন্যাশনাল কোভিড টাস্কফোর্সের সদস্য সঞ্জয় পুজারী বলছেন, ‘দুটি ওষুধের কাজ করার পদ্ধতি আলাদা, কিন্তু গবেষণা বলছে, গুরুতর অসুস্থ কোভিড রোগীকে যদি স্টেরয়েডসের সঙ্গে দেওয়া হয় এ দুটির কোনও একটি, তা হলে মৃত্যুর সম্ভাবনা কমছে।’ রুমাটোলজিস্ট ডা. অরবিন্দ চোপড়া বলছেন, ‘ওলুমিয়্যান্ট (Olumiant = ব্যারিসিটিনিব) মাঝারি থেকে গুরুতর রুমাটয়েড আর্থারাইটিসে আক্রান্ত প্রাপ্তবয়স্কদের দেওয়া হয়। রোগের প্রদাহ বা ইনফ্ল্যামেশন রুখে দিতে পারে এটি, অ্যান্টিভাইরাল ওষুধের মতো কাজ করে। কিন্তু মৃদু এবং মাঝারি উপসর্গের ক্ষেত্রে ব্যারিসিটিনিব না দেওয়ার কথা বলা হয়েছে।’ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ অমিত দ্রাবিড় জানাচ্ছেন, কোভিডের চিকিৎসায় ক্যাসিরিভিমাব-ইমডেভিমাব (casirivimab-imdevimab)-এর ককটেল দেওয়া হয়, কিন্তু তা ওমিক্রনের বিরুদ্ধে কাজ করে না। সে ক্ষেত্রে সোত্রোভিমাব ডেল্টা এবং ওমিক্রন দুটি ভ্যারিয়েন্টে মৃদু এবং মাঝারি উপসর্গে দেওয়া যেতে পারে, বিশেষ করে সেই সব রোগীর স্বাস্থ্যের ঝুঁকি রয়েছে,পরিস্থিতি গুরুতর হয়ে ওঠার সম্ভাবনা।

ভারতে কি পাওয়া যায় এই ওষুধ দুটি?
ব্যারিসিটিনিব সস্তা ওষুধ, প্রায় সর্বত্র মেলে। প্রবল প্রদাহ রুখতে এর ব্যবহার করা হয়, কোভিডে যা সাধারণত শুরু হয় সাত থেকে ১৪ দিনের মধ্যে। ডা. দ্রাবিড় বলছেন, ‘রোগী শ্বাসকষ্টে ভুগতে শুরু করেন যখন, তখন আমরা স্টেরয়েডস এবং টসিলিজুমাব দিয়ে থাকি। এ ক্ষেত্রে ব্যারিসিটিনিব বিকল্প হয়ে উঠতে পারে, সব জায়গায় পাওয়াও যায়।’ সোত্রোভিমাব ভারতে মেলে না। যদিও বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এখন ওমিক্রনের সংক্রমণ কোভিডের মূল ধারা হয়ে উঠেছে। এর ফলে ডেল্টা না ওমিক্রনে আক্রান্ত কোনও রোগী, তা অনেক সময়ে অস্পষ্ট থেকে যাচ্ছে। যদি স্পষ্ট করে বোঝা যায় যে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে কেউ আক্রান্ত, তা হলেই বাজারে পাওয়া যায় কোনও মোনোক্লোনাল অ্যান্টিবডি সৃষ্টিকারী ওষুধ তাঁকে দেওয়া যেতে পারে।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Explained news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Two medicines get who nod during pandemic treatment know those drugs explain