বিশ্লেষণ: উন্নাও ধর্ষণ মামলার সঙ্গে কীভাবে যুক্ত অ্যাপেল সংস্থার নীতি?

দিল্লি আদালত সেঙ্গারের অবস্থান জানার জন্য আই ফোনের একেবারে সুনির্দিষ্ট লোকেশন জানতে চেয়েছে। এর ফলে তিনি সে জায়গায় ছিলেন কিনা তা জানা যাবে।

By: Shruti Dhapola New Delhi  Updated: October 1, 2019, 08:17:30 PM

দিল্লির এক আদালত অ্যাপেল সংস্থাকে ধর্ষণে অভিযুক্ত বিজেপি থেকে বিতাড়িত বিধায়কের আই ফোনের লোকেশন তথ্য জানাতে বলেছে।

২০১৭ সালে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে বলে অভিযোগ। তবে সেঙ্গার বলে চলেছেন তিনি ওই ঘটনার সময়ে সেখানে ছিলেনই না। আত্মপক্ষ সমর্থনে সেঙ্গার তাঁর ফোনের কল ডিটেইলের রেকর্ড দিয়ে দাবি করেছেন, ঘটনাস্থল থেকে সে সময়ে ৫০ কিলোমিটার দূরে ছিলেন তিনি।

তাহলে আদালতে অ্যাপেল সংস্থাকে কী দিতে হবে, কী বলছে অ্যাপেল?

দিল্লি আদালত সেঙ্গারের অবস্থান জানার জন্য আই ফোনের একেবারে সুনির্দিষ্ট লোকেশন জানতে চেয়েছে। এর ফলে তিনি সে জায়গায় ছিলেন কিনা তা জানা যাবে। সংবাদসংস্থা পিটিআই জানাচ্ছে, অ্যাপেল আদালতে বলেছে, এ ব্যাপারে নির্দিষ্ট নির্দেশ পেলে তারা এগোতে পারবে কারণ এই তথ্য আদৌ স্টোর করা রয়েছে কিনা, বা স্টোর করা থাকলে কোথায় স্টোর রয়েছে তা এখনও অজ্ঞাত।

এ ছাড়াও অ্যাপেলের আইনজীবী বলেছেন, যদি এই তথ্য সংরক্ষিত থেকেও থাকে, তাহলে কোন ফর্ম্যাটে তা আদালতে পেশ করা হবে, তা স্থির করতে হবে সংস্থাকে। আদালত অবশ্য জানিয়ে দিয়েছে, ৯ অক্টোবরের মধ্যে এই তথ্য জমা দিতে হবে। এর সঙ্গে দিতে হবে সিস্টেম অ্যানালিস্টের অথবা সংস্থার কোনও অথরাইজড ব্যক্তির হলফনামা।

অ্যাপেলের কাছে কি সত্যিই আই ফোনের লোকেশন ডেটা থাকে?

অ্যাপেলের আইনি গাইডলাইনের কথা উল্লিখিত রয়েছে সংস্থার ওয়েবসাইটে। সেখানে কোন ধরনের অনুরোধ কোম্পানি অনুমোদন করে সে কথাও লেখা রয়েছে। এর মধ্যে ডিভাইসের রেজিস্ট্রেশন, কাস্টমার সার্ভিস রেকর্ড, আইটিইন সংক্রান্ত তথ্যাদি, অ্যাপেল রিটেল স্টোরের লেনদেন ও অ্যাপেলের অনলাইন কেনাকাটি সহ অনেক তথ্যের কথা রয়েছে। কিন্তু এর মধ্যে কোথাওই স্পষ্ট করে লোকেশন ডেটার কথা উল্লিখিত নেই।

অ্যাপেলের প্রাইভেসি পলিসিতে বলা রয়েছে, আপনার অ্যাপেল কম্পিউটার বা ডিভাইস থেকে ম্যাপের মত পরিষেবা সংগৃহীত, ব্যবহৃত এবং শেয়ার করা হতে পারে, যার মধ্যে রিয়েল-টাইম ভৌগোলিক অবস্থানও রয়েছে। একই সঙ্গে আরও বলা হয়েছে, আপনার অনুমতি না পেলে, অবস্থান সম্পর্কিত তথ্য গোপনভাবে সংগৃহীত হবে এমন উপায়ে, যাতে আপনাকে ব্যক্তিগত ভাবে চিহ্নিত করা না যায়।

অ্যাপেল বলতে চাইছে, তার লোকেশন ডেটা থেকে কোনও ব্যক্তিকে নির্দিষ্টভাবে চিহ্নিত করা যায় নাষ কিন্তু মনে রাখতে হবে গুগল ম্যাপের মত থার্ড পার্টি অ্যাপ রয়েছে, যারাও ব্যবহারকারীর তথ্য সংগ্রহ করে- য়ার মধ্যে লোকেশন ডেটা রয়েছে এবং সাধারণত তা ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্টেক সঙ্গে সংযুক্ত থাকে।

অ্যাপেল কি আইন বলবৎকারী সংস্থাকে তথ্য দিয়ে থাকে?

হ্যাঁ, ভারত সহ পৃথিবীর অন্যান্য দেশেও অ্যাপেল আইন বলবৎকারী সংস্থার আবেদনে সাড়া দেয়। অ্যাপেলেরই এক রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে ২০১৮ সালের জুলাই থেকে ডিসেম্বর মাসের মধ্যে তারা ৪৯টি ডিভাইস সংক্রান্ত আবেদন, ২৮টি আর্থিক শনাক্তকারীর সম্পর্কিত আবেদন, ১৮টি অ্যাকাউন্ট সংক্রান্ত আবেদন এবং ৮টি আপৎকালীন আবেদন পেয়েছিল। এর মধ্যে বেশ কয়েকটিতে তারা সাড়া দেয়। তবে আবেদনগুলি ঠিক কী ধরনের ছিল সে ব্যাপারে গোপনীয়তা অবলম্বন করা হয়েছে।

অ্যাপেল কি ইউজার ডেটা ক্লাউডে পাঠায়?

অ্যাপেলের সাপোর্ট পেজ থেকে মনে হয় না লোকেশন সম্পর্কিত তথ্য অ্যাপেলের কাছে থাকে, কারণ তা সংরক্ষিত থাকে আইফোনেই। অ্যাপেল সবসময়েই ডিভাইসকে এমনভাবে তৈরি করতে চেয়েছে, যাতে তার তথ্য সেখানেই সংরক্ষিত থাকে। আইক্লাউড অ্যাকাউন্টের প্রসঙ্গ এলে অ্যাপেলের বক্তব্য সে সম্পর্কিত তথ্য এনক্রিপটেড অবস্থায় রয়েছে, এবং এনক্রিপশন কি রয়েছে মার্কিন ডেটা সেন্টারে।

Read the Full Story in English

Get all the Latest Bengali News and West Bengal News at Indian Express Bangla. You can also catch all the Explained News in Bangla by following us on Twitter and Facebook

Web Title:

Unnao rape case kuldeep singh sengar iphone apple location data share policy

The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com.
Advertisement