scorecardresearch

বড় খবর

বিশ্লেষণ: ইন্দো-মার্কিন দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ও বিনিয়োগ

২০১৮ সালে ইন্দো-মার্কিন পণ্য ও পরিষেবা বাণিজ্যের পরিমাণ ছিল ১৪২.৬ বিলিয়ন ডলার।

us india relations, ভারত আমেরিকা বাণিজ্য, ইন্দো মার্কিন বাণিজ্য, ভারত, আমেরিকা, trump visit, trump visit india, us india trade, us india export, us india bilateral ties, ট্রাম্প মোদী, trump modi meeting, us india trade, india us nuke deal, indian express bangla
২০১৮ সালে আমেরিকার দ্বাদশ বৃহত্তম পণ্য রপ্তানির বাজার ছিল ভারত।

ভারতে আসার আগে একবার তিনি বলেছেন, বাণিজ্য চুক্তি নিয়ে কোনও কথা বলবেন না। পরক্ষণেই আবার মত বদলে ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, অল্প কথা হতে পারে বাণিজ্য চুক্তি নিয়ে। সোমবার ভারত সফরের দিন ট্রাম্প ঘোষণা করেন, ভারত ও আমেরিকার মধ্যে এবার বড়সড় বাণিজ্য চুক্তি হতে চলেছে। একইসঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেছিলেন, দু’দেশের মধ্যে বাণিজ্য চুক্তি করতে বিনিয়োগ-জট কাটাতে বহুদিন ধরেই আলোচনা চলছে।

দ্বিপাক্ষিক স্তরে বাণিজ্যের ক্ষেত্রে ভারতের অবস্থান বেশ অনুকূল, এই নিয়েই খানিকটা ‘বিরক্ত’ ট্রাম্প। ভারতের উদ্দেশে ট্রাম্পের ‘শুল্ক রাজা’ মন্তব্য সেই বিরক্তিরই বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে বলে মনে করে কূটনৈতিকমহল।

এবার তাহলে ইন্দো-মার্কিন বাণিজ্য ক্ষেত্রের ছবিটা ঠিক কী, তা একনজরে দেখে নেওয়া যাক-

* ২০১৮ সালে ইন্দো-মার্কিন পণ্য ও পরিষেবা বাণিজ্যের পরিমাণ ছিল ১৪২.৬ বিলিয়ন ডলার।

* ২০১৮ সালে ভারতের সঙ্গে আমেরিকার বাণিজ্য ঘাটতির পরিমাণ ছিল ২৫.২ বিলিয়ন ডলার।

* ২০১৮ সালে ইন্দো-মার্কিন পণ্য বাণিজ্যের পরিমাণ ছিল মোট ৮৭.৯ বিলিয়ন ডলার। আমেরিকার নবম বৃহত্তম পণ্য বাণিজ্যের অংশীদার ভারত। ভারতে মার্কিন পণ্য রফতানির পরিমাণ ৩৩.৫ বিলিয়ন ডলার। ভারত থেকে পণ্য আমদানির পরিমাণ ছিল ৫৪.৩ বিলিয়ন ডলার।

* ইন্দো-মার্কিন বাণিজ্য পরিষেবার মোট পরিমাণ ৫৪.৮ বিলিয়ন ডলার। মার্কিন পরিষেবা রফতানির পরিমাণ ২৫.২ বিলিয়ন ডলার। ভারত থেকে পরিষেবা আমদানির পরিমাণ ২৯.৬ বিলিয়ন ডলার (২০১৮)।

* ভারতে মার্কিন পণ্য ও পরিষেবাদি রফতানির মাধ্যমে আমেরিকান চাকরি ১,৯৭,০০০ (২০১৫ সালের বাণিজ্য দফতরের তথ্য অনুযায়ী)।

আরও পড়ুন: ট্রাম্পের কল্যাণে মুলতানি মাটি দিয়ে তাজমহলের ‘ফেশিয়াল’!

ভারতে মার্কিন রফতানির চালচিত্র
২০১৮ সালে আমেরিকার দ্বাদশ বৃহত্তম পণ্য রফতানির বাজার ছিল ভারত। ২০১৮ সালে ভারতে মার্কিন পণ্য রফতানির পরিমাণ ছিল ৩৩.৫ বিলিয়ন ডলার। যা ২০১৭ সালের থেকে ৩০.৬ শতাংশ বেশি। ২০০৮ সালের থেকে যা ৮৯.৫ শতাংশ বেশি। ২০১৮ সালে সামগ্রিক মার্কিন রফতানির মাত্র ২ শতাংশের দখল ছিল ভারতের হাতে। অন্যদিকে, ২০১৮ সালে ভারতে মার্কিন পরিষেবা রফতানির পরিমাণ ছিল ২৫.২ বিলিয়ন ডলার। যা ২০১৭ সালের থেকে ৬.৬ শতাংশ বেশি ও ২০০৮ সালের থেকে ১৫১ শতাংশ বেশি।

২০১৮ সালে আমেরিকায় যে দ্রব্যাদি সবথেকে বেশি রফতানি করা হয়েছে, তার তালিকা…

* মূল্যবান ধাতু ও পাথর (হিরে) (৭.৯ বিলিয়ন ডলার)
* খনিজ জ্বালানি (৬.৭ বিলিয়ন ডলার)
* বিমান (২.৯ বিলিয়ন ডলার)
* যন্ত্রপাতি (২.২ বিলিয়ন ডলার)
* জৈব রাসায়নিক (১.৬ বিলিয়ন ডলার)

আরও পড়ুন: ট্রাম্পের ভারত আগমন ও ভারত-মার্কিন বাণিজ্য চুক্তি

ভারত থেকে কী আমদানি করে আমেরিকা?

২০১৮ সালে মার্কিন পণ্য আমদানিতে ভারত ছিল দশম স্থানে। ২০১৮ সালে ভারত থেকে মার্কিন পণ্য আমদানির পরিমাণ ছিল ৫৪.৩ বিলিয়ন ডলার। যা ২০১৭ সালের থেকে ১১.৯ শতাংশ বেশি এবং ২০০৮ সালের থেকে ১১১.৪ শতাংশ বেশি। ২০১৮ সালে সামগ্রিক মার্কিন আমদানির মাত্র ২.১ শতাংশ ছিল ভারত। অন্যদিকে, ২০১৮ সালে ভারত থেকে মোট আমদানিকৃত মার্কিন পরিষেবার পরিমাণ ছিল ২৯.৬ বিলিয়ন ডলার। যা ২০১৭ সালের থেকে ৪.৯ শতাংশেরও বেশি ও ২০০৮ সালে থেকে ১২৪ শতাংশ বেশি।

২০১৮ সালে আমেরিকায় যেসব দ্রব্যাদি সবথেকে বেশি আমদানি করা হয়েছে, তার তালিকা…
* মূল্যবান ধাতু ও পাথর (ডায়মন্ড) (১১ বিলিয়ন ডলার)
* ফার্মাসিউটিক্যালস (৬.৩ বিলিয়ন ডলার)
* যন্ত্রপাতি (৩.৩ বিলিয়ন ডলার)
* খনিজ জ্বালানি (৩.২ বিলিয়ন ডলার)
* যানবাহন (২.৮ বিলিয়ন ডলার)

Read the full story in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Explained news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Us india bilateral trade and investment